খবরঅনলাইন ডেস্ক: সার্বিক ভাবে লকডাউন হবে না, তবে দেশে ক্রমে বেড়ে চলা করোনার সংক্রমণে রাশ টানতে রাজ্যগুলিতে নতুন করে বিধিনিষেধ আরোপ করার ক্ষমতা দিয়েছে কেন্দ্র। স্থানীয় স্তরে কনটেনমেন্ট জোন তৈরি করে এই বিধিনিষেধ আরোপ করতে পারবে রাজ্যগুলি।

মঙ্গলবার সব রাজ্যকে নির্দেশিকা পাঠিয়েছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রসচিব অজয় ভল্লা। তাতে বলা হয়েছে, করোনা সংক্রমণ রুখতে রাজ্যগুলি প্রয়োজনে ওয়ার্ড, ব্লক, শহর বা জেলা পর্যায়ে স্থানীয় ভাবে সব ধরনের গতিবিধিতে বিধি-নিষেধ জারি করতে পারবে।

Loading videos...

১ এপ্রিল থেকে এই নির্দেশিকা কার্যকর হবে। লাগু থাকবে এক মাস। কোনো এলাকায় সংক্রমণ মাত্রাছাড়া হলে, তাকে কন্টেনমেন্ট জোন হিসেবেও ঘোষণা করতে পারবে রাজ্যগুলি। তবে এই নির্দেশিকায় কোথাও লকডাউন শব্দটি ব্যবহার করা হয়নি।

উল্লেখ্য, লকডাউনে কার্যত ধসে পড়া অর্থনীতিতে প্রাণ ফেরার লক্ষণ দেখা গিয়েছে সবে। এই অবস্থায় হয়তো চট করে দেশ জুড়ে ফের ঘরবন্দির নিদান দিতে চাইবে না কেন্দ্র। কিন্তু বিশেষজ্ঞদের একাংশ মনে করিয়ে দিচ্ছেন যে, এমনকি স্থানীয় বিধিনিষেধও অর্থনীতির দ্রুত ছন্দে ফেরার পথে বাধা হবে। ধাক্কা খাবে বহু জনের রুজি-রুটি।

তাই তা যথাসম্ভব এড়াতে কোভিড-সতর্কতা বিধি কড়া ভাবে মেনে চলার উপরে জোর দিচ্ছেন তাঁরা। যদিও সাধারণ মানুষের একটা বড়ো অংশই কোনো ভাবেই সচেতন হতে রাজি নন। চৈত্র সেলের বাজার হোক বা নির্বাচনী জনসভা, মাস্ক পরে আসা ব্যক্তিদের সংখ্যা সেখানে প্রায় নগণ্য।

খবরঅনলাইনে আরও পড়তে পারেন

Delhi Corona: দৈনিক সংক্রমণ এক হাজার পার, প্রকাশ্যে হোলি বাতিল, জারি আরও নিষেধাজ্ঞা

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.