Connect with us

দেশ

করোনা প্যাকেজ ২.০: প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করছেন অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন

Published

on

নয়াদিল্লি: কোভিড-১৯ (Covid-19)-এর মারাত্মক অর্থনৈতিক প্রভাব মোকাবিলায় কার্যকর পদক্ষেপ চূড়ান্ত করতে বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে দেখা করছেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন (Nirmala Sitharaman)।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক সরকারি আধিকারিক জানিয়েছেন, প্যাকেজটি চূড়ান্ত হয়ে গেলে খুব শীঘ্রই এটা প্রকাশ করা হতে পারে। একই সঙ্গে জানা গিয়েছে, আসন্ন প্যাকেজটিতে সব থেকে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত এমএসএমই ক্ষেত্রে মনোনিবেশ করার সম্ভাবনা রয়েছে। এই খাতে আরও ১৫,০০০ কোটি টাকার ঋণের গ্যারান্টি তহবিল অন্তর্ভুক্ত থাকতে পারে।

Loading videos...

লকডাউনের মেয়াদ বাড়লেও আগামী ২০ এপ্রিল থেকে বেশ কিছু ক্ষেত্রে কাজ শুরু হওয়ার কথা ঘোষণা করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (Narendra Modi)। ফলে ওই ক্ষেত্রগুলিতে অর্থনৈতিক কার্যকলাপ শুরু হওয়ার পর উদ্ভূত পরিস্থিতিতে কেন্দ্র বিস্তৃত এবং ধারাবাহিক পদক্ষেপের নিতে পারে বলে আশা করা হচ্ছে।

একই সঙ্গে জানা গিয়েছে, সাধারণ মানুষ, বিশেষত দরিদ্র ও সমাজের দুর্বল অংশের সমস্যাগুলির সুরাহা করতে দ্বিতীয় বার ত্রাণ ঘোষিত হতে পারে। সূত্রের খবর, অর্থমন্ত্রক এবং এ ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রীর দফতর (পিএমও) গঠিত বিশেষ একটি ক্ষমতাপ্রাপ্ত গোষ্ঠী তারই প্রস্তুতিতে নিরবচ্ছিন্ন ভাবে কাজ করছে।

গত বুধবার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক ২০ এপ্রিল থেকে গ্রিন জোন হিসাবে চিহ্নিত জেলাগুলিতে নিয়ম মেনে ফের কাজ চালু করার জন্য একাধিক শিল্প ও পরিষেবা ক্ষেত্রকে অনুমতি দিয়েছে।

সীতারমন ইতিমধ্যে ১.৭ লক্ষ কোটি টাকার ত্রাণ প্যাকেজ ঘোষণা করেছেন। যেখানে অন্যতম পদক্ষেপগুলির মধ্যে গরিব মানুষের জন্য বিনামূল্যে খাদ্যশস্য এবং প্রত্যক্ষ নগদ স্থানান্তর অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছিল।

আরও পড়ুন কেন্দ্রের করোনা-প্যাকেজ: এক নজরে ৭টি বড়ো ঘোষণা

প্রধানমন্ত্রী গরিব কল্যাণ প্রকল্প’ নামে অভিহিত প্রকল্পটিতে ১.৭০ লক্ষ কোটি টাকা বরাদ্দ করে অর্থমন্ত্রী জানিয়েছিলেন, “এই প্রকল্পটি গরিব, পরিযায়ী শ্রমিক এবং যাঁদের সহায়তার প্রয়োজন, তাঁদের উদ্বেগের সমাধান করবে”। এখন দেখার করোনা প্যাকেজের দ্বিতীয় সংস্করণের নতুন কী থাকছে!

প্রসঙ্গত, করোনাভাইরাস (Coronavirus) প্রাদুর্ভাবের জেরে সংকটের মুখোমুখি হয়েছে অর্থনীতি। এই পরিস্থিতি মোকাবিলায় একটি অর্থনৈতিক টাস্ক ফোর্স গঠন করেছে কেন্দ্র। ওই টাস্কফোর্সের মাথায় রয়েছেন নির্মলা।

Advertisement
Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

দেশ

করোনা রুখতে গোবর মাখবেন না, এতে অন্যান্য রোগের ‘ঝুঁকি’ রয়েছে, সতর্কতা চিকিৎসকদের

গোবর-থেরাপি! গোবর এবং গোমূত্রের মিশ্রণ অংশগ্রহণকারীদের সারা শরীরে মাখিয়ে দেওয়া হয়। যা শুকিয়ে যাওয়ার পর দুধ এবং ঘি দিয়ে ধুয়ে ফেলা হয়।

Published

on

গোবর-থেরাপি! ছবি: এনডিটিভির সৌজন্যে

খবর অনলাইন ডেস্ক: কোভিড-১৯ (Covid-19)-এর হাত থেকে বাঁচতে গোবর ব্যবহার নিয়ে সতর্ক করে দিচ্ছেন চিকিৎসকেরা। এ ধরনের বিশ্বাসের কার্যকারিতা নিয়ে কোনো বৈজ্ঞানিক প্রমাণ যেমন নেই, তেমনই চিকিৎসকরা জানাচ্ছেন, এ ধরনের উপায় অবলম্বন করলে অন্য়ান্য রোগে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকিও থাকছেই।

বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমের প্রতিবেদনে উঠে এসেছে করোনা মোকাবিলায় গোবরের ব্যবহার নিয়ে আশ্চর্যজনক কিছু খবর। কিছু মানুষ বিশ্বাস করেন, গোবর হয়তো কোভিড থেকে বাঁচাতে পারে। তাঁদের বিশ্বাস, সপ্তাহে এক বার গোবর এবং গোমূত্র মাখলে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বেড়ে যেতে পারে। এই অবৈজ্ঞানিক ধারণার বশবর্তী হয়ে গুজরাতের কিছু মানুষ নিজেদের অনাক্রম্যতা বাড়িয়ে তুলতে গোশালায় দৌড়াচ্ছেন।

Loading videos...

হিন্দু ধর্মে, মানুষের জীবন ও পৃথিবীর একটি পবিত্র প্রতীক হিসেবে মান্যতা দেওয়া হয় গোরুকে।বহু শতাব্দী ধরে হিন্দুরা নিজেদের ঘর পরিষ্কার করতে এবং পুজোপাঠের সময় গোরুর গোবর ব্যবহার করেন। বিশ্বাস করেন যে এর চিকিৎসা এবং অ্যান্টিসেপটিক বৈশিষ্ট্য রয়েছে।

কী এই গোবর-গোমূত্র থেরাপি?

একটি ওষুধ প্রস্তুতকারী সংস্থার অ্যাসোসিয়েট ম্যানেজার গৌতম মণিলাল নামে এক ব্যক্তির মন্তব্য উদ্ধৃত করে এনডিটিভির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, শেষ বছরে কোভিডে আক্রান্ত হওয়ার পর এই গোবর ব্যবহারেই সুস্থ হয়েছিলেন তিনি। মণিলাল বলেন, “আমরা দেখছি, চিকিৎসকেরাও এখানে আসছেন। তাঁরা মনে করেন এই চিকিৎসা পদ্ধতি তাঁদের অনাক্রম্যতা বাড়াতে সাহায্য করে”।

গত বছর থেকেই গুজরাতে হিন্দু সন্ন্যাসীদের পরিচালিত একটি বিদ্যালয় শ্রীস্বামীনারায়ণ গুরুকুল বিশ্ববিদ্যায় নিয়মিত যাতায়াত করছেন। এই প্রতিষ্ঠানটি কোভিড-১৯ ভ্য়াকসিন নিয়ে কাজ চালিয়ে যাওয়া সংস্থা জাইডাস ক্যাডিলার ভারতীয় সদর দফতরে যাওয়ার রাস্তাতেই অবস্থিত।

জানা যায়, ওই প্রতিষ্ঠানে গেলে গোবর এবং গোমূত্রের মিশ্রণ অংশগ্রহণকারীদের সারা শরীরে মাখিয়ে দেওয়া হয়। যা শুকিয়ে যাওয়ার পর দুধ এবং ঘি দিয়ে ধুয়ে ফেলা হয়। আবার গোশালায় গিয়ে গোরুকে জড়িয়ে ধরেও শক্তির স্তর বাড়ানোর পদ্ধতি অবলম্বন করা হয়।

কী বলছেন চিকিৎসকেরা?

ভারত তো বটেই, বিশ্বজোড়া চিকিৎসকেরা কোভিডের বিকল্প চিকিৎসা পদ্ধতির বিরুদ্ধে বারবার সতর্ক করে আসছেন। তাঁরা বলছেন, বিকল্প পদ্ধতি একটা মিথ্যে ধারণার উপর ভিত্তি করে তৈরি। এতে শারীরিক সমস্যা আরও জটিল আকার ধারণ করতে পারে।

ইন্ডিয়ান মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশনের সর্বভারতীয় সভাপতি ডা. জেএ জয়লাল বলেছেন, “কোভিড -১৯-এর বিরুদ্ধে প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানোর জন্য গোবর বা গোমূত্র যে কাজ করে, তার কোনো দৃঢ় বৈজ্ঞানিক প্রমাণ নেই”। তাঁর কথায়, “এই উপকরণগুলি থেকে স্বাস্থ্যের ঝুঁকি রয়েছে। অন্যান্য কিছু রোগ প্রাণীদের শরীর থেকে মানুষের শরীরে ছড়িয়ে পড়তে পারে”।

পাশাপাশি, গোশালায় এক সঙ্গে এত লোক জড়ো হলে সেখান থেকেও করোনা সংক্রমণের সম্ভাবনা থাকছে। তবে অমদাবাদের আরেকটি গোশালার দায়িত্বে থাকা মধুচরণ দাস জানিয়েছেন, তাঁরা অংশগ্রহণকারীদের সংখ্যা সীমাবদ্ধ রাখছেন।

আরও পড়তে পারেন: রক্তের গ্রুপের উপর কি কোভিড আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা থাকে, গবেষণায় জানাল সিএসআইআর

Continue Reading

দেশ

Telangana Lockdown: ১২ মে থেকে ১০ দিনের শর্তসাপেক্ষ লকডাউন জারি হচ্ছে তেলঙ্গানায়

দিনে ৪ ঘণ্টার ছাড় দিয়ে লকডাউন জারি করছে তেলঙ্গানা সরকার।

Published

on

খবর অনলাইন ডেস্ক: লকডাউন জারি করে করোনা সংক্রমণ মোকাবিলা নিয়ে দ্বিমত রয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে বৃহত্তর অংশ লকডাউনের পক্ষে সওয়াল করায় সে পথেই হাঁটল তেলঙ্গানা সরকার।

মঙ্গলবার ক্রমশ বেড়ে চলা করোনা সংক্রমণ নিয়ে বৈঠকে বসে তেলঙ্গানা মন্ত্রীসভা। মুখ্যমন্ত্রীর দফতর থেকে জানানো হয়, বেশ কিছু রাজ্যে লকডাউন বা এ জাতীয় পদক্ষেপ নেওয়ার পরেও করোনা সংক্রমণ হ্রাস হয়নি বলে জানা গিয়েছে। যে কারণে করোনা মোকাবিলায় লকডাউনের কার্যকারিতা নিয়ে বহুবিধ মতামত প্রকাশিত হচ্ছে। তবে বেশ কিছু বিভাগ থেকে লকডাউনের পক্ষে পরামর্শ দিচ্ছে। এমন পরিস্থিতিতে রাজ্য মন্ত্রিসভা লকডাউনের উপকারিতা এবং বিধিগুলি নিয়ে আলোচনা করবে। লকডাউন চলতি ধান বিক্রির মরশুমেও প্রভাব ফেলতে পারে। এ বিষয়ে সরকার সিদ্ধান্ত নেবে।

Loading videos...

এর পরই তেলঙ্গানা মন্ত্রীসভার বৈঠকে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়, আগামী ১২ মে সকাল ১০টা থেকে রাজ্যে ১০ দিনের লকডাউন জারি করা হবে। তবে সাধারণ মানুষকে স্বস্তি দিতে সকাল ৬টা থেকে ১০টা পর্যন্ত সমস্ত ধরনের কাজকর্মেই ছাড় থাকবে। উল্লেখ্য, এর আগে প্রায় দু’সপ্তাহ ধরে নাইট কারফিউ কার্যকর ছিল তেলঙ্গানায়।

এ দিন মুখ্যমন্ত্রীর দফতর থেকে একটি টুইটে জানানো হয়, “রাজ্য মন্ত্রীসভা সিদ্ধান্ত নিয়েছে, আগামীকাল সকাল ১০টা থেকে শুরু হয়ে ১০ দিনের জন্য লকডাউন জারি করা হবে। সমস্ত ধরনের কাজকর্মের জন্য প্রতিদিন সকাল ৬টা থেকে সকাল ১০টা পর্যন্ত ছাড় দেওয়া হবে। মন্ত্রীসভা কোভিড-১৯ টিকা সংগ্রহের জন্য বিশ্ব দরপত্র আহ্বান করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে”।

লকডাউনের পাশাপাশি টিকাকরণ নিয়েও এ দিন গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নেয় তেলঙ্গানা মন্ত্রীসভা। স্থির হয়েছে, প্রয়োজনীয় টিকা কেনার জন্য গ্লোবাল টেন্ডার ডাকবে রাজ্য সরকার। আগামী জুন মাস থেকে ১৮ ঊর্ধ্বদের টিকাকরণ পুরো দমে শুরু হয়ে যেতে পারে রাজ্যে।

আরও পড়তে পারেন: Corona Update: দৈনিক সংক্রমণকে ছাপিয়ে গেল সুস্থতা, দু’মাস ধরে টানা বৃদ্ধির পর অবশেষে কমল সক্রিয় রোগী

Continue Reading

দেশ

আক্রান্ত কর্মীদের দেখতে গিয়ে হামলার শিকার ত্রিপুরার প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী মানিক সরকার, অভিযুক্ত বিজেপি

Published

on

খবরঅনলাইন ডেস্ক: ত্রিপুরার প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী মানিক সরকারের ওপরে হামলার অভিযোগ উঠল বিজেপির বিরুদ্ধে। দক্ষিণ ত্রিপুরা জেলার শান্তিরবাজারে দলীয় সমর্থকদের বাড়িতে গিয়েছিল সিপিআইএমের একটি প্রতিনিধিদল। সেই সময় তাঁদের উপর হামলা চালানো হয়।

সোমবার মানিকবাবুর নেতৃত্বে শান্তিরবাজারে যায় সিপিআইএমের একটি প্রতিনিধিদল। ওই দলে ছিলেন উপ বিরোধীদল নেতা বাদল চৌধুরী-সহ অন্য নেতারা। প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী দাবি করেছেন, যে কর্মী-সমর্থকদের বাড়িতে যাওয়া হয়েছিল, তাঁদের ওপরও হামলা চালিয়েছিল বিজেপি-আশ্রিত দুষ্কৃতীরা।

Loading videos...

গত সপ্তাহে বুধবার দলীয় কার্যালয়ের সামনে কালমার্ক্সের জন্মবার্ষিকী পালনের সময় দলীয় কর্মী- সমর্থকদের উপর হামলা চালানো হয়েছিল। ওই হামলায় আক্রান্তদের সঙ্গে দেখা করতেই শান্তিরবাজারে গিয়েছিল সিপিএমের ওই দলটি। তখনই তাঁদের ওপরে হামলা চালানো হয়।

প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর দাবি, সিপিএমের প্রতিনিধিদল যে ওই এলাকায় যাবে, তা আগেভাগেই রাজ্য পুলিশের ডিজিকে জানানো হয়েছিল। অথচ পরিস্থিতির দোহাই দিয়ে তাঁদের ফিরে যেতে বলা হয়। মূল রাস্তায় ফেরার সময় তাঁদের ওপর হামলা চালায় বিজেপি-আশ্রিত দুষ্কৃতীরা।

মানিকবাবুর কথায়, “এটা পূর্বপরিকল্পিত হামলা। রাজ্য নেতাদের মদত ছাড়া এটা সম্ভব ছিল না। রাজ্যে আইন-শৃঙ্খলা ভেঙে পড়েছে। যত দিন যাচ্ছে, তত সিপিএম কর্মীদের উপর হামলা বাড়ছে।”

যদিও হামলার এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন রাজ্যের শাসক দল। ত্রিপুরার শিক্ষামন্ত্রী এবং মন্ত্রিসভার মুখপাত্র রতনলাল নাথ দাবি করেছেন, হামলাকারীরা বিজেপির কর্মী নয়। তারা পুরোনো সিপিএম কর্মী। দলের বিরুদ্ধে ক্ষোভের কারণেই তাঁরা না কি হামলা চালিয়েছে।

আরও পড়তে পারেন: কেরলের প্রথম কমিউনিস্ট সরকারের শেষ জীবিত সদস্য গৌরী আম্মা প্রয়াত

Continue Reading
Advertisement
Advertisement
দেশ12 mins ago

করোনা রুখতে গোবর মাখবেন না, এতে অন্যান্য রোগের ‘ঝুঁকি’ রয়েছে, সতর্কতা চিকিৎসকদের

Madhyamik examination west bengal
শিক্ষা ও কেরিয়ার1 hour ago

Madhyamik 2021: আপাতত সম্ভব নয় মাধ্যমিক পরীক্ষা, সরকারের সিদ্ধান্তের অপেক্ষায় পর্ষদ

দেশ1 hour ago

Telangana Lockdown: ১২ মে থেকে ১০ দিনের শর্তসাপেক্ষ লকডাউন জারি হচ্ছে তেলঙ্গানায়

প্রযুক্তি2 hours ago

পশ্চিমবঙ্গ সরকারের কোভিড অ্যাপ, সহজে জানা যাবে যাবতীয় তথ্য

রাজ্য3 hours ago

দিব্যেন্দু অধিকারীর বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার সুপারিশ জেলা তৃণমূলের

বিজ্ঞান3 hours ago

রক্তের গ্রুপের উপর কি কোভিড আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা থাকে, গবেষণায় জানাল সিএসআইআর

বিদেশ4 hours ago

স্বাস্থ্যকর্মীর ভুলে ইতালির এক মহিলাকে কোভিড টিকার ৬টি ডোজ, তার পর কী হল

রাজ্য6 hours ago

বিধায়ক পদ ছাড়ছেন রাজ্যের দুই বিজেপি নেতা

দেশ3 days ago

Covid Crisis: জলে গুলে খেতে হবে, করোনারোধী ওষুধে ছাড়পত্র দিল ডিজিসিআই

বিজ্ঞান2 days ago

কোভিডের ভাইরাস বায়ুবাহিত, ৬ ফুট পর্যন্ত ছড়াতে পারে, দাবি শীর্ষ মার্কিন সংস্থার

রাজ্য2 days ago

Bengal Corona Update: নতুন করে আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় একই, রাজ্যে বাড়ল সুস্থতা

রাজ্য3 days ago

Bengal Corona Update: সংক্রমণের হার ফের ৩০ শতাংশ পার, বাড়ল মৃতের সংখ্যাও, তবে কলকাতা-সহ ৯ জেলায় কমল সক্রিয় রোগী

দেশ2 days ago

ভ্যাকসিন এবং কোভিডের চিকিৎসা সরঞ্জামে ট্যাক্স কেন? মমতার চিঠির পর ১৬টা টুইট কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রীর

রাজ্য2 days ago

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের তৃতীয় মন্ত্রীসভায় একাধিক নতুন মুখ

বিজ্ঞান2 days ago

পৃথিবীতে ফিরে এল চিনা রকেটের অবশিষ্টাংশ, পড়ল ভারত মহাসাগরে

ক্রিকেট1 day ago

বিরাট-রোহিত ছাড়াই এক নতুন ভারতীয় দলকে জুলাইয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলতে দেখা যাবে!

ভিডিও

কেনাকাটা

কেনাকাটা2 months ago

বাজেট কম? তা হলে ৮ হাজার টাকার নীচে এই ৫টি স্মার্টফোন দেখতে পারেন

আট হাজার টাকার মধ্যেই দেখে নিতে পারেন দুর্দান্ত কিছু ফিচারের স্মার্টফোনগুলি।

কেনাকাটা3 months ago

সরস্বতী পুজোর পোশাক, ছোটোদের জন্য কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সরস্বতী পুজোয় প্রায় সব ছোটো ছেলেমেয়েই হলুদ লাল ও অন্যান্য রঙের শাড়ি, পাঞ্জাবিতে সেজে ওঠে। তাই ছোটোদের জন্য...

কেনাকাটা3 months ago

সরস্বতী পুজো স্পেশাল হলুদ শাড়ির নতুন কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সামনেই সরস্বতী পুজো। এই দিন বয়স নির্বিশেষে সবাই হলুদ রঙের পোশাকের প্রতি বেশি আকর্ষিত হয়। তাই হলুদ রঙের...

কেনাকাটা4 months ago

বাসন্তী রঙের পোশাক খুঁজছেন?

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সামনেই আসছে সরস্বতী পুজো। সেই দিন হলুদ বা বাসন্তী রঙের পোশাক পরার একটা চল রয়েছে অনেকের মধ্যেই। ওই...

কেনাকাটা4 months ago

ঘরদোরের মেকওভার করতে চান? এগুলি খুবই উপযুক্ত

খবরঅনলাইন ডেস্ক: ঘরদোর সব একঘেয়ে লাগছে? মেকওভার করুন সাধ্যের মধ্যে। নাগালের মধ্যে থাকা কয়েকটি আইটেম রইল অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন লেখার...

কেনাকাটা4 months ago

সিলিকন প্রোডাক্ট রোজের ব্যবহারের জন্য খুবই সুবিধেজনক

খবরঅনলাইন ডেস্ক: নিত্যপ্রয়োজনীয় বিভিন্ন সামগ্রী এখন সিলিকনের। এগুলির ব্যবহার যেমন সুবিধের তেমনই পরিষ্কার করাও সহজ। তেমনই কয়েকটি কাজের সামগ্রীর খোঁজ...

কেনাকাটা4 months ago

আরও কয়েকটি ব্র্যান্ডেড মেকআপ সামগ্রী ৯৯ টাকার মধ্যে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: আজ রইল আরও কয়েকটি ব্র্যান্ডেড মেকআপ সামগ্রী ৯৯ টাকার মধ্যে অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন লেখার সময় যে দাম ছিল...

কেনাকাটা4 months ago

রান্নাঘরের এই সামগ্রীগুলি কি আপনার সংগ্রহে আছে?

খবরঅনলাইন ডেস্ক: রান্নাঘরে বাসনপত্রের এমন অনেক সুবিধেজনক কালেকশন আছে যেগুলি থাকলে কাজ অনেক সহজ হয়ে যেতে পারে। এমনকি দেখতেও সুন্দর।...

কেনাকাটা4 months ago

৫০% পর্যন্ত ছাড় রয়েছে এই প্যান্ট্রি আইটেমগুলিতে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: দৈনন্দিন জীবনের নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসগুলির মধ্যে বেশ কিছু এখন পাওয়া যাচ্ছে প্রায় ৫০% বা তার বেশি ছাড়ে। তার মধ্যে...

কেনাকাটা4 months ago

ঘরের জন্য কয়েকটি খুবই প্রয়োজনীয় সামগ্রী

খবরঅনলাইন ডেস্ক: নিত্যদিনের প্রয়োজনীয় ও সুবিধাজনক বেশ কয়েকটি সামগ্রীর খোঁজ রইল অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদনটি লেখার সময় যে দাম ছিল তা-ই...

নজরে