Coronavirus Delhi

খবরঅনলাইন ডেস্ক: গত ১৯ এপ্রিল দিল্লিতে লকডাউন জারি করার সময় মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল বলেছিলেন, তিনি আক্রান্তের সংখ্যার থেকেও বেশি ভয় পাচ্ছেন সংক্রমণের হারকে। সেটা অতি দ্রুততায় কমাতে না পারলে হাসপাতালগুলিতে হাহাকার আরও বাড়বে। তার পর কেটে গিয়েছে প্রায় তিনটে সপ্তাহ, অবশেষে স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলতে শুরু করেছে রাজধানী।

দিল্লিতে যে দিন লকডাউন জারি হয়, তখন সেখানে সংক্রমণের হার ছিল ৩০ শতাংশের কাছাকাছি। অর্থাৎ প্রতি ১০০টি টেস্টে কোভিড পজিটিভ হচ্ছিলেন ৩০ জন। এর পরের এক সপ্তাহ সংক্রমণের হার ক্রমেই বাড়তে থাকে। গত ২৬ এপ্রিল সেটা পৌঁছে যায় ৩৫ শতাংশে।

Loading videos...

এটাই ছিল চরম সীমা। তার পর থেকেই কমতে শুরু করেছে সংক্রমণের হার। গত ২৪ ঘণ্টায় রাজধানীতে সংক্রমণের হার নেমে এসেছে ২৩ শতাংশের ঘরে। অর্থাৎ, গত বারো দিনে দিল্লিতে সংক্রমণের হারকে ১২ শতাংশ কমানো সম্ভব হয়েছে। ২৩ শতাংশ সংক্রমণের হার যদিও খুবই বেশি, কিন্তু মাত্র কয়েকটা দিনে এই হারটা যে ভাবে কমেছে সেটা খুবই ভালো ব্যাপার।

গত ২৬ এপ্রিল রাজধানীতে ৫৭ হাজার ৬০২টি টেস্টের বিপরীতে আক্রান্ত হয়েছিলেন ২০ হাজার ২০১ জন। শনিবারের রিপোর্ট বলছে ৭৪ হাজার ৩৮৪টি টেস্টের বিপরীতে আক্রান্ত হয়েছেন ১৭ হাজার ৩৬৪ জন। সংক্রমণের হারের পাশাপাশি আক্রান্তের সংখ্যাও বেশ ভালো ভাবেই কমছে।

গত ১৪ এপ্রিলের পর এই প্রথম বার দিল্লিতে দৈনিক সংক্রমণ ১৭ হাজারের ঘরে নেমে এসেছে। আরও একটি স্বস্তির বিষয় হল, এ দিন সুস্থ হয়েছেন ২০ হাজার ১৬০ জন। এর ফলে রাজধানীর সক্রিয় রোগীর সংখ্যাও অনেকটাই কমেছে। ধীরে ধীরে কমতে শুরু করেছে দৈনিক মৃতের সংখ্যাও। ২৬ এপ্রিল রাজধানীতে মারা গিয়েছিলেন ৩৮০ জন। সেটা আরও কিছুটা বেড়ে চারশো অতিক্রম করে ফেলেছিল কয়েক দিন পরেই। তবে গত ২৪ ঘণ্টায় মারা গিয়েছেন ৩৩২ জন।

আর এর ফলে দিল্লিতে হাসপাতালে ফাঁকা শয্যার সংখ্যাও বাড়ছে। গত ২৬ এপ্রিল যেখানে দিল্লির হাসপাতালগুলিতে ফাঁকা শয্যার সংখ্যা ছিল ১,৬৫৬টি, সেটা শনিবার বেড়ে হয়েছে ২,৪৫১।

দিল্লির পরিস্থিতির এই উন্নতির ব্যাপারে এখনও মুখ ফুটে কিছু বলেননি মুখ্যমন্ত্রী কেজরিওয়াল। হয়তো তিনি আরও কয়েকটা দিন দেখে এই সংক্রমণের হারের ১৫ শতাংশের নীচে চলে আসা পর্যন্ত অপেক্ষা করছেন। তবে আপাতত গত ১২ দিনের ছবিটা যে ভাবে উন্নতি করেছে, তাতে রাজধানী দ্বিতীয় ঢেউয়ের কবল থেকে তাড়াতাড়িই মুক্তি পাবে বলে আশা করছেন বিশেষজ্ঞরা।

আরও পড়তে পারেন Vaccination Drive: শীঘ্রই চতুর্থ কোভিড-টিকা পেয়ে যেতে পারে ভারত

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.