খবরঅনলাইন ডেস্ক: ভয় হচ্ছে আচমকা সব কিছু খুলে দিলে আবার যদি সংক্রমণ বাড়তে শুরু করে! সে কারণেই পরিস্থিতির দিন দিন উন্নতি হলেও লকডাউনসুলভ বিধিনিষেধ আরও বাড়াতে চলেছে মহারাষ্ট্র।

চলতি বিধিনিষেধের মেয়াদ শেষ হওয়ার কথা ছিল ১৫ মে। তবে সেটা বাড়ানো হবে এমন আন্দাজ আগে থেকেই করা হচ্ছিল। এই নিয়েই বুধবার বৈঠকে বসে মহারাষ্ট্রের মন্ত্রীসভা। এই বৈঠকের শেষেই রাজ্যের স্বাস্থ্যমন্ত্রী রাজেশ তোপে জানান যে বৈঠকে অধিকাংশ মন্ত্রীই বিধিনিষেধ বাড়ানোর ব্যাপারে সম্মতি দিয়েছেন। তবে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরেই নেবেন বলে জানান তোপে। মনে করা হচ্ছে ৩১ মে পর্যন্ত বিধিনিষেধ বাড়ানো হবে।

Loading videos...

মহারাষ্ট্রে সংক্রমণের দাপট আগের থেকে অনেকটাই কমে গিয়েছে। তবে এখনও বড়ো বড়ো সংখ্যায় মানুষ আক্রান্ত হচ্ছেন। গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে আক্রান্ত হয়েছেন ৪৬ হাজার ৭৮১ জন। তবে আড়াই লক্ষের কাছাকাছি টেস্টের বিপরীতে এই সংখ্যাটা এসেছে। সংক্রমণের হার ছিল ১৮.৫৫ শতাংশ। ৩০ শতাংশ থেকে এই হারকে অতি দ্রুততায় ১৮ শতাংশের ঘরে নিয়ে আসা গিয়েছে, এটাকে সাফল্যের চোখেই দেখছে রাজ্য।

এর পাশাপাশি গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৫৮ হাজার ৫০৮ জন। এর ফলে সক্রিয় রোগীর সংখ্যা আরও অনেকটাই কমে গিয়েছে। এপ্রিলের মাঝামাঝি রাজ্যে প্রায় ৭ লক্ষ সক্রিয় রোগী হয়ে গিয়েছিল। বর্তমানে ৫ লক্ষ ৫৮ হাজার ৯৯৬ জন।

মহারাষ্ট্রের মধ্যে আবার অঞ্চলভিত্তিক সংক্রমণচিত্রে কিছু পার্থক্য রয়েছে। মুম্বই, পুণে, নাগপুর, নাসিকের মতো শহরাঞ্চলে সংক্রমণ কার্যত পুরোপুরিই নিয়ন্ত্রণে এসে গিয়েছে। মুম্বইয়ে বর্তমানে দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা ২ হাজারের আশেপাশে ঘোরাফেরা করছে, সংক্রমণের হার সাড়ে ৬ শতাংশে এসে গিয়েছে। কিন্তু গ্রামীন জেলাগুলিতে এখনও সংক্রমণের দাপট অব্যাহত।

আরও পড়তে পারেন Covid Crisis: ‘গণ বিপর্যয়’ আটকাতে দ্রুত পদক্ষেপের দাবিতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে একযোগে চিঠি বিরোধীদের

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.