হায়দরাবাদ: করোনায় (Coronavirus) ভারতে সব থেকে খারাপ অবস্থা যে যে রাজ্যের সেই তালিকায় প্রথম তিনটে স্থান ধরে রেখেছে মহারাষ্ট্র, দিল্লি আর তামিলনাড়ু। এখানে হুহু করে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। পরিসংখ্যানে দেখা যাচ্ছে এই তিনটে রাজ্যর পাশাপাশি করোনা পরিস্থিতি ভয়াবহ তেলঙ্গানাতেও (Telangana)।

তেলঙ্গানায় নমুনা পরীক্ষা গোটা দেশের মধ্যে সব থেকে কম হয়েছে আর সেই নমুনা পজিটিভ হওয়ার হার গোটা দেশের মধ্যে সব থেকে বেশি।

মঙ্গলবার সারা দিন তেলঙ্গানায় মোট ৩,০০৬টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। তার মধ্যে ৮৭৯ জনের রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। অর্থাৎ এক দিনে ২৯.২৪ শতাংশ নমুনা পজিটিভ হয়েছে। এখনও পর্যন্ত গত তিন মাসে রাজ্যে মোট নমুনা পরীক্ষা হয়েছেন ৬৩,২৪৯। এখনও পর্যন্ত রাজ্যে করোনায় মোট আক্রান্ত হয়েছেন ৯৫৫৩ জন।

অর্থাৎ তেলঙ্গানায় নমুনা পজিটিভের হার এখন রয়েছে ১৫.১০ শতাংশ।

ভারতের সব থেকে বেশি সংক্রমণ ভারতের যে যে রাজ্যে হয়েছে তাঁর সঙ্গে তুলনায় আনা যাক এই পরিসংখ্যানটা। মহারাষ্ট্রে মোট আক্রান্ত এক লক্ষ ৩৯ হাজার ১০ জন। সেখানে নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ৮ লক্ষ। অর্থাৎ ওই রাজ্যে প্রতি ১০০টি নমুনার মধ্যে পজিটিভ হচ্ছে ১৭.১ জনের, যথেষ্ট বেশি।

দিল্লিতে ৪ লক্ষের কিছু বেশি নমুনা পরীক্ষায় পজিটিভ হয়েছে ৬৬,৬০২। অর্থাৎ এখানে নমুনা পজিটিভ হওয়ার হার ১৬.৬ শতাংশ। তামিলনাড়ুতে ৯ লক্ষের কিছু বেশি নমুনা পরীক্ষায় পজিটিভ হয়েছে ৬৪,৬০৩। অর্থাৎ এই রাজ্যে নমুনা পজিটিভ হচ্ছে ৭.১৭ শতাংশ হারে।

গুজরাতে ৩ লক্ষ ৩৫ হাজার নমুনা পরীক্ষায় পজিটিভ হয়েছে ২৮,৩৭১। অর্থাৎ এখানে নমুনা পজিটিভ হওয়ার হার ৮.৪৬ শতাংশ।

অন্য দিকে রাজস্থানে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১৫ হাজার পেরোলেও সেখানে নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ৭ লক্ষ ২৫ হাজারের কিছু বেশি। ফলে রাজস্থানে এখন নমুনা পজিটিভ হওয়ার হার ২.০৬ শতাংশ। পশ্চিমবঙ্গে চার লক্ষ ২০ হাজার পরীক্ষায় পজিটিভ হয়েছে ১৫ হাজারের কিছু কাছাকাছি। এ রাজ্যে পজিটিভ হওয়ার হার ৩.৫ শতাংশ।

এই পরিসংখ্যানেই বোঝা যাচ্ছে মহারাষ্ট্র, দিল্লি, তামিলনাড়ু আর গুজরাতের পাশাপাশি তেলেঙ্গানার পরিস্থিতি আদৌ সুখকর নয়। এমনকি টেস্টের সংখ্যা আরও বাড়লে উল্লিখিত চারটে রাজ্যের চেয়েও পরিস্থিতি খারাপ হতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন বিশেষজ্ঞরা।

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন