দেশে ‘আর্থিক জরুরি অবস্থা’র মতো পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে, দাবি কংগ্রেসের

0
প্রতিনিধিত্বমূলক ছবি

নয়াদিল্লি: ভারতীয় অর্থনীতির ক্রমাবনীতি নিয়ে কেন্দ্রের সমালোচনা করে কংগ্রেস দাবি করল, দেশে যেন একটা আর্থিক জরুরি অবস্থা চলছে। রবিবার কংগ্রেস সাংসদ অভিষেক মনু সিঙ্ঘভি দাবি করেন, সরকারের অর্থনৈতিক ব্যর্থতা থেকে সাধারণ মানুষের দৃষ্টি ঘোরানোর আপ্রাণ চেষ্টা করছে কেন্দ্র।

দেশের সার্বিক অর্থনৈতিক মন্দা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে অভিষেক দেশের গাড়িশিল্পের চরম দুরবস্থার কথাও তুলে ধরেন। তাঁর মতে, গাড়িশিল্পে এই বেহাল অবস্থা এক দিনে সৃষ্টি হয়নি। গত ন’মাস ধরে যাত্রীবাহী গাড়ির বিক্রি ক্রমশ নিম্নমুখী। শেষ ত্রৈমাসিকে যা ৩১ শতাংশ হ্রাস পেয়েছে গত বছরের এই সময়ের তুলনায়।

অভিষেক পরিসংখ্যান দিয়ে বলেন, গত ২০১৮ সালের জুলাই মাসের পর থেকে ১৩টি মাসের মধ্যে ১২টিতেই গাড়ি বিক্রি কমেছে। নয়াদিল্লিতে একটি সাংবাদিক বৈঠকে অভিষেকের দাবি, বিশ্বের চতুর্থতম গাড়ি বাজারের চাহিদা এবং বিক্রি এ ভাবেই তলানিতে গিয়ে ঠেকছে।

Abhishek Manu Singhvi

তবে শুধু গাড়িশিল্প-ই নয়, দেশীয় অর্থনীতির মন্দার জের স্পষ্ট হয়ে ধরা পড়ছে রাজস্ব ঘাটতি এবং স্টক এক্সচেঞ্জের সূচকগুলিতেও। একই সঙ্গে সংকুচিত শ্রমশক্তি, রিয়েল এস্টেট শিল্পে মন্দা, ডলারের তুলনায় টাকার দামে পতন, প্রত্যক্ষ বিদেশি বিনিয়োগ এবং জিডিপির অবনমনের উপরও আলোকপাত করেন তিনি।

[ আরও পড়ুন: শেষ দু’দশকে এমন সংকটের মুখোমুখি হয়নি ভারতীয় গাড়ি শিল্প ]

কটাক্ষের সুরে কংগ্রেস সাংসদ বলেন, “হাস্যকর ভাবে, কেউ যদি মোদী-১ (সরকার)-এর শুরু থেকে এবং মোদী-২ (সরকার)-এর দিকে তাকান, তা হলে উন্নয়নের অবনমন স্পষ্ট ভাবেই দেখতে পাবেন”।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here