accused asaram bapu

ওয়েবডেস্ক ডেরা সচা সৌদা প্রধান গুরু গুরমিত রাম রহিমের বেলায় ঢের শিক্ষা হয়েছে। তাই সরকার এ বার আর কোনো ফাঁক রাখছে না। নিরাপত্তার ঘেরাটোপে মুড়ে ফেলা হয়েছে সংবেদনশীল জায়গাগুলি। কারণ বুধবারই আসারাম বাপুর বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলার রায় দেবে জোধপুরের নিম্ন আদালত। দোষী সাব্যস্ত হলে আসারামের অন্তত ১০ বছর জেল হতে পারে। এই মামলায় যাবজ্জীবন জেলও হতে পারে।

আসারামের ভক্তরা ঝামেলা পাকাতে পারে, এই আশঙ্কায় নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তার ব্যবস্থা করার জন্য কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক রাজস্থান, হরিয়ানা ও গুজরাতকে আগেই নির্দেশ দিয়েছিল। দিল্লির নিরাপত্তা ব্যবস্থাও জোরদার করা হয়েছে। দিল্লি পুলিশ প্রতিবেশী রাজ্যগুলির সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রেখে চলেছে। প্রয়োজনে পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার জন্য অতিরিক্ত বাহিনীও মজুদ রাখা হয়েছে। দিল্লি পুলিশের সিপিআরও দীপন্দর পাঠক বলেন, “পুলিশবাহিনীকে সতর্ক রাখা হয়েছে। প্রয়োজন হলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হবে। সমস্ত অফিসার তাঁদের নিজ নিজ এলাকায় হাজির রয়েছেন।”

আরও পড়ুন: আসারামের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলার রায় বুধবার, জোধপুরে ১৪৪ ধারা জারি

গত বছর মোহালির বিশেষ আদালত গুরমিত রাম রহিমকে দোষী সাব্যস্ত করার পর যে ব্যাপক হিংসা ছড়িয়েছিল তার পরিপ্রেক্ষিতে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক সংশ্লিষ্ট রাজ্যগুলিকে নিরাপত্তা জোরদার করার জন্য পরামর্শ দিয়েছে। সেই পরামর্শ মেনেই রাজস্থানের জোধপুর শহরকে নিখুঁত নিরাপত্তা ব্যবস্থায় মুড়ে ফেলা হয়েছে। জোধপুর শহর জেন এখন একটা দুর্গ। গোটা শহরেই ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে।

উত্তর প্রদেশের শাজাহানপুরের এক কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগে ধর্মগুরু আসারাম বাপুর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়। নির্যাতিতা কিশোরী মধ্যপ্রদেশের ছিন্দওয়াড়ায় আসারামের আশ্রমে থেকে পড়াশোনা করত। নির্যাতিতার অভিযোগ, জোধপুরের কাছে মানাই এলাকায় নিজের আর একটি আশ্রমে ওই কিশোরীকে ডেকে পাঠান আসারাম এবং ২০১৩-এর ১৫ আগস্টের রাতে তাকে ধর্ষণ করেন। ইনদওর গ্রেফতার করে ১ সেপ্টেম্বর গুরুজিকে জোধপুরে নিয়ে আসা হয়। ২ সেপ্টেম্বর থেকে তিনি বিচারবিভাগীয় হেফাজতে রয়েছেন।

তফশিলি জাতি/উপজাতিদের মামলা সংক্রান্ত একটি বিশেষ আদালতে এ বছর ৭ এপ্রিল সয়াল-জবাব শেষ হয় এবং রায়দানের দিন ধার্য করা হয় ২৫ এপ্রিল।

আসারাম বাপুর বিরুদ্ধে আর একটি ধর্ষণের মামলা ঝুলছে সুরাতে। সুপ্রিম কোর্ট এই মামলায় বিচারপ্রক্রিয়া পাঁচ সপ্তাহের মধ্যে শেষ করতে বলেছে।

 

 

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here