উৎসবের মাঝে সুখবর! ২-১৮ বছর বয়সিদের জন্য কোভ্যাকসিনে ছাড়পত্র

0
vaccinations
টিকাকরণ। প্রতীকী ছবি

নয়াদিল্লি: ২-১৮ বছর বয়সিদের জন্য ভারত বায়োটেকের তৈরি কোভিড টিকা কোভ্যাকসিন-কে ছাড়পত্র দিল বিশেষজ্ঞ কমিটি। মঙ্গলবার এই খবর প্রকাশ্যে আসার সঙ্গে সঙ্গেই ভারতে তৈরি কোভিডটিকার সাফল্যের মুকুটে আরও একটি নতুন পালক জুড়ল।

গত সপ্তাহেই ভারত বায়োটেক জানিয়েছিল, ২-১৮ বছর বয়সিদের জন্য নিজের তৈরি টিকার পরীক্ষামূলক প্রয়োগের প্রাসঙ্গিত তথ্য তারা সংশ্লিষ্ট বিশেষজ্ঞ কমিটির কাছে জমা দিয়েছে। জানানো হয়, প্রাপ্তবয়স্কদের জন্য তৈরি টিকার মতোই অপেক্ষাকৃত কমবয়সিদের জন্য তৈরি টিকাও একই রকম কার্যকর।

নিজেদের দাবির স্বপক্ষে পরীক্ষামূলক প্রয়োগের যথাযথ পরিসংখ্যানও পেশ করেছিল সংস্থা। তবে ট্রায়ালগুলো থেকে প্রাপ্ত তথ্য এখনও প্রকাশ করা হয়নি। জানানো হয়েছিল, সারা দেশে এক হাজারের বেশি শিশুর উপর ট্রায়াল চালানো হয়েছে।

ভারতে এখনও পর্যন্ত প্রাপ্তবয়স্কদের ৯৬ কোটি ডোজ টিকা দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি শিশুদের জন্য কোভিডটিকার ব্যাপারেও বাড়তি নজর দেওয়া হয়েছে। এর আগে ১২ বছরের বেশি এবং প্রাপ্তবয়স্কদের উপর কার্যকরী জাইডাস ক্যাডিলার টিকা ব্যবহারের অনুমতি দিয়েছিল কেন্দ্র। পাশাপাশি সেরাম ইনস্টিটিউটের তৈরি নোভাভ্যাক্সের ট্রায়াল চালানোর অনুমতিও দেওয়া হয়েছে। ৭-১১ বছর বয়সিদের উপর ওই টিকার পরীক্ষামূলক প্রয়োগ চলছে।

দিল্লি এমসের প্রধান ডা. রণদীপ গুলেরিয়া জোরের সঙ্গে বলেছেন, “২-১৮ বছর বয়সি শিশুদের অবশ্যই টিকা দিতে হবে। কারণ, এটাই মহামারি থেকে মুক্তি পাওয়ার একমাত্র উপায়”।

বেশ কিছু রাজ্য ইতিমধ্যেই স্কুল খুলেছে। এমন পরিস্থিতিতে স্কুলে আসা পড়ুয়াদের স্বাস্থ্য সংক্রান্ত উদ্বেগ রয়েই গিয়েছে। পাশাপাশি পরবর্তীতে শিশুদের সংক্রামিত হওয়ার সম্ভাবনার কথাও জানিয়েছে বিভিন্ন মহল। ফলে প্রাপ্তবয়স্কদের পাশাপাশি তাদেরও টিকাকরণের প্রয়োজনীয়তা রয়েছে বলে দাবি করছেন একাংশের বিশেষজ্ঞ।

আরও পড়তে পারেন    

দৈনিক সংক্রমণ নামল ১৫ হাজারের নীচে, ২২৪ দিনের মধ্যে সব থেকে কম

ওনামের পর ছাড়িয়েছিল ৩০ হাজার, সেই কেরলে দৈনিক সংক্রমণ নামল ৭ হাজারের নীচে, ১৮২ দিনের মধ্যে সর্বনিম্ন

গত বছরের ১৬ মে’র পর সব থেকে কম দৈনিক কোভিড সংক্রমণ রেকর্ড করল মহারাষ্ট্র    

সপ্তমীতেও আবহাওয়া কার্যত শুকনো, বিক্ষিপ্ত ভাবে বৃষ্টি ফিরতে পারে অষ্টমী থেকে

“টিকা নিতে টাকা দেননি, তেল কিনতে বেশি দিতেই হবে”, মন্ত্রীর যুক্তিতে অস্বস্তি বাড়ল বিজেপির

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন