পশ্চিমবঙ্গ ও তামিলনাড়ু বাদে সব বড়ো রাজ্যেই ফের কমছে করোনা

0

নয়াদিল্লি: জুন মাসের মাঝামাঝি থেকে দেশের সব বড়ো রাজ্যেই বাড়তে শুরু করেছিল করোনার সংক্রমণ। কিন্তু বর্তমান পরিস্থিতি দেখে এটা বোঝা যাচ্ছে যে শুধুমাত্র পশ্চিমবঙ্গ এবং তামিলনাড়ু বাদে সব বড়ো রাজ্যেই ফের লাগাম পড়েছে সংক্রমণে। এর মধ্যে মুম্বই এবং দিল্লির মতো বড়ো শহরের করোনাতথ্য খুব উৎসাহব্যঞ্জক।

গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে নতুন করে ১৬ হাজার ১৩৫ জন কোভিডে আক্রান্ত হয়েছেন। গত সপ্তাহে একবার সংক্রমণ ১৮ হাজারের গণ্ডি অতিক্রম করেছিল। তার পর থেকে ফের তা কমতে শুরু করে। এই ১৬ হাজার ১৩৫ জনের মধ্যে পশ্চিমবঙ্গ, তামিলনাড়ু, মহারাষ্ট্র এবং কেরলেই আক্রান্ত হয়েছেন ১০ হাজার ৭৭৮ জন। এই চারটে রাজ্যে সংক্রমণ চার অংকে, বাকি রাজ্যগুলিতে তিন অংকে।

কিন্তু গভীর ভাবে বিচার করতে দেখা যাবে শুধুমাত্র পশ্চিমবঙ্গ এবং তামিলনাড়ু বাদে সংক্রমণ সব জায়গাতেই কমছে। মহারাষ্ট্রে একটা সময় সংক্রমণ উঠেছিল ছয় হাজারের ওপরে, সেখানে গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছেন ২ হাজার ৯৬২ জন। কেরলে গত সপ্তাহে সংক্রমণ ৪৮০০-তে উঠে গিয়েছিল। কিন্তু রবিবার সেখানে আক্রান্ত হয়েছেন ৩ হাজার ৩২২।

এ বার আসা যাক দিল্লি এবং মুম্বইয়ের কথায়। দিল্লিতে সংক্রমণ ১০ দিন আগেই বেড়ে ২ হাজারে চলে গিয়েছিল, সেখানে রবিবার আক্রান্ত হয়েছেন ৬৪৮ জন। মুম্বইয়ে আক্রান্ত ৭৬১ হন, দু’সপ্তাহ আগে সংখ্যাটা পঁচিশশো ছাড়িয়ে গিয়েছিল। দুই শহরেই সংক্রমণের হার এখন ৫ শতাংশের আশেপাশে। একটা সময় তা ১০ শতাংশ ছাড়িয়ে গিয়েছিল।

এ ছাড়া, কর্নাটক, উত্তরপ্রদেশ, হরিয়ানার মতো বড়ো রাজ্যেও গত দশ দিন ধরে সংক্রমণ কমার ট্রেন্ড দেখা গিয়েছে। সংক্রমণ এখন শুধু বাড়ছে পশ্চিমবঙ্গ এবং তামিলনাড়ুতে। তবে অতীতে দেখাই গিয়েছে দিল্লি এবং মুম্বইয়ে যে ধারা দেখা যায়, সেটা কলকাতায় এসে পৌঁছোয় তার দিন দশেক পরে। সুতরাং কিছুদিনের মধ্যেই সংক্রমণ পশ্চিমবঙ্গ তথা কলকাতাতে কমবে, এমন আশা করাই যায়।

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন