খবর অনলাইন ডেস্ক: কোভিড আক্রান্তদের জন্য বড়োসড়ো স্বস্তি! শনিবার জারি করা সরকারি নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, কোভিডরোগীদের হাসপাতালে ভরতির জাতীয় নীতিটি আরও ‘রোগী কেন্দ্রিক’ করার জন্য সংশোধন করা হয়েছে।

এ দিন স্বাস্থ্যমন্ত্রকের পক্ষ থেকে সংশোধিত নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে। নতুন পদক্ষেপে রোগীর দ্রুত এবং তাৎক্ষণিক চিকিৎসা শুরু করার উপর জোর দেওয়া হয়েছে। যে কারণে প্রয়োজন অনুযায়ী নীতি মেনে পদক্ষেপ নেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে নতুন নির্দেশিকায়।

Loading videos...

নতুন নির্দেশিকার অন্যতম অংশ

কোভিড আক্রান্তের হাসপাতাল বা অন্যান্য স্বাস্থ্য পরিষেবা কেন্দ্রে ভরতি হওয়ার জন্য কোভিড পজিটিভ রিপোর্ট বাধ্যতামূলক নয়। সন্দেহজনক আক্রান্তের পরিস্থিতি বিবেচনা করেই তাঁকে সিসিসি, ডিসিএইচসি বা ডিএইচসি ওয়ার্ডে ভরতি করতে হবে। কোভিডের রিপোর্ট যতক্ষণ না আসছে, প্রয়োজনীয় চিকিৎসা চালিয়ে যেতে হবে।

কোনো রোগীকে কোনো রকমের পরিষেবা থেকেই বঞ্চিত করা হবে না। এর মধ্যে রয়েছে অক্সিজেন বা অত্যাবশ্যকীয় ওষুধ সরবরাহের পরিষেবা। এমনকী রোগী অন্য কোনো শহরের হলেও তাঁকে সব পরিষেবা দিতে হবে।

কোনো রোগীকেই হাসপাতাল থেকে ফেরানো যাবে না। অর্থাৎ, তাঁকে ভরতি নিতে অস্বীকার করা যাবে না। তিনি নির্দিষ্ট শহরের কোনো বৈধ পরিচয়পত্র দেখাতে না পারলেও তাঁকে ভরতি নিতে হবে।

তবে প্রয়োজনের ভিত্তিতে হাসপাতালে ভরতি হতে হবে। হাসপাতালে ভরতির প্রয়োজন নেই, এমন ব্যক্তির বেড দখল করে রাখা উচিত নয়। অন্য দিকে সুস্থ রোগীকে ছেড়ে দেওয়ার ব্যাপারেও কঠোর ভাবে নীতি মেনে চলা উচিত।

সংশ্লিষ্ট রাজ্য সরকার চাইলে সেখানকার বেসরকারি হাসপাতালকে কোভিড কেয়ার সেন্টারে রূপান্তরিত করে চিকিৎসা করাতে পারে।

আরও পড়তে পারেন: কোভিডের চিকিৎসায় সহজ হল আয়কর আইন, নগদেই মেটানো যাবে ২ লক্ষ টাকার বেশি

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.