Connect with us

দেশ

স্বঘোষিত গোরক্ষকদের হাতুড়ির মারে গুরুতর জখম ট্রাক চালক, কার্যত নীরব দর্শক পুলিশ

অপরাধীদের ধরার থেকেও বেশি দ্রুততায় ওই মাংস ফরেন্সিক পরীক্ষাগারে পাঠায় পুলিশ, গোরুর মাংস রয়েছে না কি অন্য কিছুর সেটা বোঝার জন্য।

খবরঅনলাইন ডেস্ক: কোরবানির ইদ (Eid Al Adha) আসতেই ফের দাপাদাপি শুরু হল স্বঘোষিত গোরক্ষকদের। গোরুর মাংস নিয়ে যাওয়ার গুজব আর সন্দেহের বশে এক ট্রাকচালকের ওপরে হাতুড়ি নিয়ে হামলা করল গোরক্ষকরা। ঘটনাস্থলে থাকলেও নীরব দর্শকের বেশি কিছু ভূমিকা পালন করতে দেখা যায়নি পুলিশকে।

শুক্রবার সকাল ন’টা নাগাদ ঘটনাটি ঘটে। হরিয়ানার গুরুগ্রামে (Gurugram) মাংসভর্তি একটি পিক-আপ ট্রাককে তাড়া করে ধরে এক দল দুষ্কৃতী। অভিযোগ, ট্রাকচালক লুকমানকে বেধড়ক মারধর করা হয়। হাতুড়ি দিয়েও আঘাত করা হয় তাঁকে।

তবে পুলিশ যে এক্কেবারেই হস্তক্ষেপ করেনি তা কিন্তু নয়। অভিযোগ, অপরাধীদের ধরার থেকেও বেশি দ্রুততায় ওই মাংস ফরেন্সিক পরীক্ষাগারে পাঠায় পুলিশ, গোরুর মাংস রয়েছে না কি অন্য কিছুর সেটা বোঝার জন্য।

২০১৫ সালে উত্তরপ্রদেশের দাদরিতে গোমংস রাখার গুজবে গণপিটুনির ঘটনাতেও ঠিক এমনই ভূমিকা পালন করেছিল পুলিশ।

এ দিকে অভিযোগ, আহত লুকমানকে ওই ট্রাকে তুলেই গুরুগ্রামের বাদশাপুর গ্রামে নিয়ে গিয়ে ফের মারধর করা হয়। যদিও তখন বাধা দেয় পুলিশ। তবে পুলিশের সঙ্গেও বচসাতে জড়িয়ে পড়ে দুষ্কৃতীরা।

লুকমানকে একটি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে এফআইআর করা হয়েছে। ঘটনার ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে মুখ খুলতে রাজি হয়নি পুলিশ।

তবে এই অঞ্চলে অতীতের এমন ঘটনার যা রেকর্ড রয়েছে, তাতে অপরাধীরা আদৌ ধরা পড়বে কি না, আর ধরা পড়লেও কোনো শাস্তি হবে কি না, সেই নিয়ে সন্দেহ থেকেই যায়।

ট্রাকের মালিক জানিয়েছেন, তিনি ৫০ বছর ধরে মাংসের ব্যবসা করছেন। ওই ট্রাকে গোরুর নয়, মোষের মাংস ছিল।

নরেন্দ্র মোদীর জমানাতেই স্বঘোষিত এই গোরক্ষকদের দাপাদাপি মাত্রাছাড়া হয়েছিল। তবে গত এক বছরে এই ঘটনায় কিছুটা লাগাম পড়েছিল বলেই মনে হচ্ছিল। স্বয়ং মোদীও এমন ঘটনার বিরুদ্ধে মুখ খুলেছিলেন।

২০১৮ সালে গণপিটুনিতে খুনকে ‘ঘৃণ্য’ অ্যাখ্যা দিয়ে তা রুখতে নির্দেশিকা জারি করে সুপ্রিম কোর্ট। তবুও তাতে যে কাজ বিশেষ হয়নি তা দেখিয়ে দিল গুরুগ্রাম।

দেশ

এ বার বুদ্ধ-বিতর্ক ভারত আর নেপালের মধ্যে, অবস্থান স্পষ্ট করল বিদেশমন্ত্রক

এমনিতেই মানচিত্র-সহ একাধিক ইস্যুতে ভারত-নেপাল কূটনৈতিক সম্পর্ক ভালো নেই। এর মধ্যে বুদ্ধদেবকে কেন্দ্র করেও একটা নতুন বিতর্ক তৈরি হয়ে গিয়েছিল।

খবরঅনলাইন ডেস্ক: রামের পর এ বার বুদ্ধ-বিতর্ক তৈরি হল ভারত আর নেপালের মধ্যে। বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্করের (S Jaishankar) একটি মন্তব্যের প্রেক্ষিতে তীব্র প্রতিক্রিয়তা জানায় নেপাল (Nepal)। সেই বিতর্কের আগুনে জল ঢেলেছেন বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র অনুরাগ শ্রীবাস্তব।

উল্লেখ্য, ইন্ডিয়ান ইন্ডাস্ট্রিয়াল কনফেডারেশনের শীর্ষ সম্মেলনে ভাষণ দিতে গিয়ে বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর গান্ধীজি এবং গৌতম বুদ্ধের দর্শনের কথা উল্লেখ করে ভারতের পথ চলার কথা বলেছিলেন। তাতেই ভুল বোঝাবুঝি তৈরি হয়।

নেপালের সংবাদমাধ্যম এ হেন মন্তব্যের তীব্র প্রতিবাদ জানায়। নেপালের বিদেশ মন্ত্রক বিবৃতি দিয়ে বলে, “২০১৪ সালে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী নেপালের পার্লামেন্টে ভাষণ দিয়েছিলেন। সেই বক্তৃতায় মোদী বলেছিলেন, ‘নেপাল হল এমন এক দেশ যেখানে বিশ্ব শান্তির প্রেরণা বুদ্ধের জন্ম হয়েছিল।”

তবে শুধুমাত্র ভুল বোঝাবুঝির জন্যই যে গোটা বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছিল, সেটা বলেছেন শ্রীবাস্তব। তিনি সাংবাদিকদের বলেন, “মহামানব গৌতম বুদ্ধের জন্ম যে নেপালের লুম্বিনিতেই হয়েছিল, এ ব্যাপারে কোনো সন্দেহ নেই।”

তিনি আরও বলেন, “বিদেশমন্ত্রী এক ভাবে কথাটা বলেছিলেন। নেপালের কিছু সংবাদমাধ্যম বিষয়টির অন্যরকম ব্যখ্যা করেছে। যার ফলে বিতর্ক তৈরি হয়েছে। কিন্তু বিতর্কের কোনো অবকাশ নেই। এটি ঐতিহাসিক এবং প্রত্নতাত্ত্বিক নথি দ্বারা প্রমাণিত যে, গৌতম বুদ্ধের জন্ম হয়েছিল নেপালের লুম্বিনিতে।”

এমনিতেই মানচিত্র-সহ একাধিক ইস্যুতে ভারত-নেপাল কূটনৈতিক সম্পর্ক ভালো নেই। এর মধ্যে বুদ্ধদেবকে কেন্দ্র করেও একটা নতুন বিতর্ক তৈরি হয়ে গিয়েছিল। তবে বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্রের বিবৃতির পরে এই বিতর্ক শেষ হয়েছে।

Continue Reading

দেশ

আয়ারল্যান্ড, দিল্লি পুলিশ আর মুম্বই পুলিশের অনবদ্য সমন্বয়, আত্মহত্যা রুখে দিল ফেসবুক

লকডাউনে (Lockdown) আর্থিক অনটনের জেরে আত্মহত্যা করতে যাচ্ছিলেন তিনি।

খবরঅনলাইন ডেস্ক: আয়ারল্যান্ডের (Ireland) এক ফেসবুক কর্মচারীর তৎপরতা, দিল্লি আর মুম্বই পুলিশের মধ্যে অনবদ্য সমন্বয়ে হয়ে গেল একটা অসাধ্য সাধন। মৃত্যুর মুখ থেকে ফিরিয়ে আনা হল এক ব্যক্তিকে।  লকডাউনে (Lockdown) আর্থিক অনটনের জেরে আত্মহত্যা করতে যাচ্ছিলেন তিনি।

জানা গেছে, আত্মহত্যা করার আগে ওই যুবক ফেসবুকে একটি ভিডিও পোস্ট করেন। সেই ভিডিওটিতেই এমন কিছু ইঙ্গিত ছিল, যা দেখে মনে হয় তিনি আত্মহত্যা করার প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

ফেসবুকের নিজস্ব ফিল্টার পদ্ধতিতে সেই ভিডিওটি ধরা পড়তেই সতর্ক হন আয়ারল্যান্ডের ওই ফেসবুক কর্মী। প্রথমে তিনি ভেবেছিলেন ফেসবুকের তরফে সরাসরি ওই যুবকের সঙ্গে যোগাযোগ করবেন। কিন্তু পরে সেই সিদ্ধান্ত বদলে পুলিশের ওপরে ভরসা করেন তিনি।

এর পরেই ফেসবুক সংস্থার তরফে যোগাযোগ করা হয় দিল্লির (Delhi Police) ডেপুটি কমিশনার (সাইবার) অন্বেষ রায়ের সঙ্গে। ফেসবুকে ওই যুবকের ফোন নম্বর নথিভুক্ত ছিল। সেই সব কিছু দিয়ে, যুবকের সন্দেহজনক ভিডিওর কথা জানিয়ে, শনিবার রাত আটটা নাগাদ মেল করা হয় রায়কে।

এর পরেই সক্রিয় হয় দিল্লির সাইবার দফতর। ফোন নম্বরটি পূর্ব দিল্লির বাসিন্দা এক মহিলার। সেই নম্বর ট্র্যাক করে ওই মহিলার বাড়ি পৌঁছোয় দিল্লি পুলিশ। কিন্তু সেখানে গিয়ে চমক। ওই মহিলা তো একদমই সুস্থ রয়েছেন।

কিন্তু এর পরেই গোটা ব্যাপারটিতে নাটকীয় মোড় আসে। জানা যায়, এক সময়ে তাঁর ফোন নম্বর দিয়ে খোলা অ্যাকাউন্টটি বর্তমানে ব্যবহার করেন তরুণীর স্বামী।

সপ্তাহ দুয়েক আগে স্ত্রীর সঙ্গে ঝগড়া করে বাড়ি ছেড়ে মুম্বই চলে যান তিনি। সেখানে একটি হোটেলে রাঁধুনির কাজ করেন তাঁর স্বামী। স্বামীর ফোন নম্বর মিললেও, মুম্বইয়ের ঠিকানা দিতে পারেননি স্ত্রী।

সঙ্গে সঙ্গে মুম্বই পুলিশের (Mumbai Police) সাইবার শাখার ডিসিপি রেশমি করন্ডিকারের সঙ্গে যোগাযোগ করে সমস্ত তথ্য দেন অন্বেষ রায়। কিন্তু ওই যুবকের ফোন নম্বর ‘আনরিচেবল’ আসে বারবার। তখন রাত ১১টা বাজে। ঘণ্টা তিনেক সময় পার হয়ে গেছে।

এই প্রসঙ্গেই রেশমি কারান্ডিকার বলেন, “যত তাড়াতাড়ি সম্ভব ওই যুবকের কাছে পৌঁছোনোই আমাদের কাছে সব চেয়ে বড়ো চ্যালেঞ্জ ছিল। আমরা এগোনোর আগেই দেখতে পারি যে ওই ব্যক্তি চারটে ভিডিও আপলোড করে ফেলেছেন। গলায় দড়ি দেওয়ার প্রস্তুতির ভিডিও ছিল ওগুলো।”

উপায়ান্তর না দেখে ওই যুবকের মাকে দিয়ে ভিডিও কল করানোর চেষ্টা করা হয় হোয়াটসঅ্যাপে। কিন্তু সেটা বারবারই কেটে যেতে থাকে। এর পরে ওই যুবক নিজেই মাকে কল করেন, অন্য একটা নম্বর থেকে।

রেশমি বলেন, “ফোনে যোগাযোগ হওয়া মাত্র আমাদের এক অফিসার ওর সঙ্গে কথা বলতে থাকে, ওকে ব্যস্ত রাখে, আর অন্য একটি দল বেরিয়ে যায় নির্দিষ্ট লোকেশন ট্রেস করে।”

অবশেষে রাত দেড়টায় ওই যুবকের ঘরে পৌঁছোয় মুম্বই পুলিশ। রুখে দেওয়া সম্ভব হয় ওই যুবকের আত্মহত্যা।

লকডাউনের কারণে কয়েক মাস ধরে ওই যুবকের কোনো রোজগার নেই। এই কারণেই নিজের জীবন শেষ করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু অনবদ্য একটা সমন্বয়ের কারণে রুখে দেওয়া সম্ভব হল সেটা।

Continue Reading

দেশ

দেশে করোনামুক্তির সংখ্যা পেরোলো ১৫ লক্ষের গণ্ডি, সুস্থতার হার প্রায় ৭০ শতাংশ

দেশে বর্তমানে সুস্থতার হার অনেকটা বেড়ে ৬৯.৩৩ শতাংশে এসেছে। দেশে বর্তমানে মৃত্যুহার এসে ঠেকেছে মাত্র ২ শতাংশে।

খবরঅনলাইন ডেস্ক: ভারতে করোনা-আক্রান্তের সংখ্যা ২২ লক্ষের গণ্ডি পেরোলেও একই সঙ্গে সুস্থ হয়ে উঠলেন ১৫ লক্ষেরও বেশি মানুষ। দেশে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে সুস্থতার হার আর হুহু করে কমছে মৃত্যুর হার।

দেশের করোনা-তথ্য

সোমবার কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের (Ministry of Health and Family Welfare) প্রকাশিত তথ্য দেখা যাচ্ছে যে এই মুহূর্তে ভারতে মোট করোনারোগীর সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ২২ লক্ষ ১৫ হাজার ৭৪। এর মধ্যে সক্রিয় রোগী রয়েছেন জন ৬ লক্ষ ৩৪ হাজার ৯৪৫। সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১৫ লক্ষ ৩৫ হাজার ৭৪৩ জন। অন্য দিকে মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৪৪,৩৮৬।

অর্থাৎ গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৬২,০৬৪ জন। সুস্থ হয়েছেন ৫৪,৮৫৯ জন। মৃত্যু হয়েছে ১০০৭ জনের।

দেশে বর্তমানে সুস্থতার হার অনেকটা বেড়ে ৬৯.৩৩ শতাংশে এসেছে। দেশে বর্তমানে মৃত্যুহার এসে ঠেকেছে মাত্র ২ শতাংশে।

মহারাষ্ট্রে এক দিনে সুস্থ ১৩ হাজার

দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যায় রেকর্ড করেছে মহারাষ্ট্র। আবার সেই সংখ্যাটাকেও ছাপিয়ে গেল সুস্থ হওয়া মানুষের সংখ্যা। গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে ১২,২৪৮ জন নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন। আর সুস্থ হয়েছেন ১৩,৩৪৮ জন।

মহারাষ্ট্রে আক্রান্তের সংখ্যা ৫ লক্ষ পেরিয়ে গেলেও মোট সুস্থ হয়ে উঠেছেন সাড়ে তিন লক্ষের কিছু বেশি। এ রাজ্যেও সুস্থতার হার প্রায় ৭০ শতাংশ ছুঁইছুঁই।

ভরসা দেখাচ্ছে তামিলনাড়ুও

কোভিডে আশার আলো দেখাচ্ছে তামিলনাড়ুও। সে রাজ্যে দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যায় বিশেষ কোনো পতন হয়নি ঠিকই, কিন্তু টেস্টের সংখ্যা বেড়েছে হুহু করে। গত মাসে, দৈনিক ৫০ হাজার টেস্টে সে রাজ্যে আক্রান্ত হচ্ছিলেন পাঁচ হাজার জন। এখন দৈনিক ৭০ হাজার টেস্টে আক্রান্ত হচ্ছেন সাড়ে পাঁচ হাজারের কিছু বেশি মানুষ।

অর্থাৎ এ রাজ্যে দৈনিক সংক্রমণের হার কিছুটা কমে দশ শতাংশের নীচে চলে এসেছে। আশা দেখাচ্ছে চেন্নাইও। দু’ মাস এই প্রথম বার চেন্নাইয়ে দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা এক হাজারের নীচে চলে এসেছে।

চিন্তায় রাখছে যে তিন রাজ্য

আপাতত সব থেকে বেশি চিন্তার কারণ তিনটে রাজ্যকে নিয়ে। কর্নাটক, অন্ধ্রপ্রদেশ আর পশ্চিমবঙ্গ। এই তিন রাজ্যেই বর্তমানে দৈনিক সংক্রমণের হার দশ শতাংশের বেশি। গত ২৪ ঘণ্টায় কর্নাটকে ৪৩ হাজার টেস্টে আক্রান্ত হয়েছেন ৫৮০০ জন, অন্ধ্রপ্রদেশে ৬৩ হাজার টেস্টে ১০ হাজার আক্রান্ত হয়েছেন আর পশ্চিমবঙ্গে ২৬ হাজার টেস্টে আক্রান্ত হয়েছেন ২৯৩৯ জন।

তবে দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা (৪,৭৫১) বেশি হলেও উত্তরপ্রদেশ নিয়ে চিন্তা কিছুটা কম। কারণ সে রাজ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় ১ লক্ষের বেশি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। অর্থাৎ দৈনিক সংক্রমণের হার কার্যত নগণ্য।

Continue Reading
Advertisement
Advertisement

রবিবারের খবর অনলাইন

কেনাকাটা

কেনাকাটা4 days ago

ঘর ও রান্নাঘরের সরঞ্জাম কিনতে চান? অ্যামাজন প্রাইম ডিলে রয়েছে ৫০% পর্যন্ত ছাড়

খবরঅনলাইন ডেস্ক : অ্যামাজন প্রাইম ডিলে রয়েছে ঘর আর রান্না ঘরের একাধিক সামগ্রিতে প্রচুর ছাড়। এই সেলে পাওয়া যাচ্ছে ওয়াটার...

কেনাকাটা4 days ago

এই ১০টির মধ্যে আপনার প্রয়োজনীয় প্রোডাক্টটি প্রাইম ডে সেলে কিনতে পারেন

খবরঅনলাইন ডেস্ক : চলছে অ্যামাজনের প্রাইমডে সেল। প্রচুর সামগ্রীর ওপর রয়েছে অনেক ছাড়। ৬ ও ৭  তারিখ চলবে এই সেল।...

কেনাকাটা4 days ago

শুরু হল অ্যামাজন প্রাইম ডে সেল, জেনে নিন কোন জিনিসে কত ছাড়

খবরঅনলাইন ডেস্: শুরু হল অ্যামাজন প্রাইম ডে সেল। চলবে ২ দিন। চলতি মাসের ৬ ও ৭ তারিখ থাকছে এই অফার।...

things things
কেনাকাটা1 week ago

করোনা আতঙ্ক? ঘরে বাইরে এই ১০টি জিনিস আপনাকে সুবিধে দেবেই দেবে

খবরঅনলাইন ডেস্ক : করোনা পরিস্থিতিতে ঘরে এবং বাইরে নানাবিধ সাবধানতা অবলম্বন করতেই হচ্ছে। আগামী বেশ কয়েক মাস এই নিয়মই অব্যাহত...

কেনাকাটা2 weeks ago

মশার জ্বালায় জেরবার? এই ১৪টি যন্ত্র রুখে দিতে পারে মশাকে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: একে করোনা তায় আবার ডেঙ্গুর প্রকোপ শুরু হয়েছে। এই সময় প্রতি বারই মশার উৎপাত খুবই বাড়ে। এই বারেও...

rakhi rakhi
কেনাকাটা2 weeks ago

লকডাউন! রাখির দারুণ এই উপহারগুলি কিন্তু বাড়ি বসেই কিনতে পারেন

সামনেই রাখি। কিন্তু লকডাউনের মধ্যে মনের মতো উপহার কেনা একটা বড়ো ঝক্কি। কিন্তু সেই সমস্যা সমাধান করতে পারে অ্যামাজন। অ্যামাজনের...

কেনাকাটা3 weeks ago

অনলাইনে পড়াশুনা চলছে? ল্যাপটপ কিনবেন? দেখে নিন ৪০ হাজার টাকার নীচে ৬টি ল্যাপটপ

ইনটেল প্রসেসর সহ কোন ল্যাপটপ আপনার অনলাইন পড়াশুনার কাজে লাগবে জেনে নিন।

কেনাকাটা3 weeks ago

করোনা-কালে ঘরে রাখতে পারেন ডিজিটাল অক্সিমিটার, এই ১০টির মধ্যে থেকে একটি বেছে নিতে পারেন

শরীরে অক্সিজেনের মাত্রা বুঝতে সাহায্য করে এই অক্সিমিটার।

কেনাকাটা3 weeks ago

লকডাউনে সামনেই রাখি, কোথা থেকে কিনবেন? অ্যামাজন দিচ্ছে দারুণ গিফট কম্বো অফার

খবরঅনলাইন ডেস্ক : সামনেই রাখি। কিন্তু লকডাউনের মধ্যে দোকানে গিয়ে রাখি, উপহার কেনা খুবই সমস্যার কথা। কিন্তু তা হলে উপায়...

laptop laptop
কেনাকাটা4 weeks ago

ল্যাপটপ কিনবেন? দেখে নিন ২৫ হাজার টাকার মধ্যে এই ৫টি ল্যাপটপ

খবরঅনলাইন ডেস্ক : কোভিভ ১৯ অতিমারির প্রকোপে বিশ্ব জুড়ে চলছে লকডাউন ও ওয়ার্ক ফ্রম হোম। অনেকেই অফিস থেকে ল্যাপটপ পেয়েছেন।...

নজরে

Click To Expand