Connect with us

দেশ

২০১৪-এর ভোটে রিগিং হয়েছিল, ইভিএমে কারচুপি করা যায়, দাবি সাইবার বিশেষজ্ঞের

EVMs

ওয়েবডেস্ক: ইভিএম-এ (ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিন) কারচুপি করা যায়। ২০১৪ সালের লোকসভা নির্বাচনে যে সব ইভিএম ব্যবহার করা হয়েছিল, তাতে রিগিং করা হয়েছিল। এই বিস্ফোরক দাবি করেছেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে কর্মরত সাইবার বিশেষজ্ঞ সৈয়দ শুজা। শুজা আজ লন্ডনে ভিডিও কনফারেন্সিং-এর মাধ্যমে সাংবাদিক সম্মেলন করে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং বিজেপির নেতৃত্বাধীন কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগ আনেন এবং কী ভাবে ইভিএম হ্যাক করা যায় তা প্রদর্শনের মাধ্যমে বুঝিয়ে দেন। শুজাকে স্কাইপে-র মাধ্যমে স্ক্রিনে দেখা যায়, যদিও তাঁর মুখ ঢাকা ছিল।

এ দিকে শুজার অভিযোগের প্রত্যুত্তরে ভারতের নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে জানানো হয়, ইভিএম নিশ্ছিদ্র। লন্ডনে সাংবাদিক সম্মেলন নিয়ে কী আইনি ব্যবস্থা নেওয়া যায়, তা কমিশন খতিয়ে দেখছে বলে জানানো হয়েছে।

সৈয়দ শুজা দাবি করেছেন, তিনি ইলেক্ট্রনিক কর্পোরেশন অব ইন্ডিয়ার সঙ্গে কাজ করেছেন এবং নির্বাচন কমিশনের ব্যবহৃত ইভিএম নকশা করার দায়িত্ব যাদের দেওয়া হয়েছিল, সেই টিমের সদস্য ছিলেন তিনি।

শুজা আরও দাবি করেছেন, এক সময়ের কেন্দ্রীয় মন্ত্রী গোপীনাথ মুন্ডে হ্যাকিং নিয়ে তাঁর সরকারের কুকর্ম ফাঁস করতে গিয়েছিলেন। তাই তাঁকে খুন করে দেওয়া হয়। প্রসঙ্গত, উল্লেখ করা যেতে পারে ২০১৪ সালের জুনে এক গাড়ি দুর্ঘটনায় মুন্ডে মারা যান।

আরও পড়ুন শুধুই কি সংগঠনকে জোরদার করা, না কি মোদীর ব্রিগেড বাতিল হওয়ার পেছনে রয়েছে অন্য কারণ?

সাইবার বিশেষজ্ঞ দাবি করেন, কংগ্রেস ও আপ-সহ ১০টির বেশি রাজনৈতিক দল তাঁর কাছে ইভিএম নিয়ে দরবার করেন। তিনি বলেন, শুধু বিজেপি নয়, সপা, বসপা, কংগ্রেস আর আপ-ও ইভিএম রিগিং-এর সঙ্গে জড়িত।

শুজা অভিযোগ করেন, তাঁর দলের কিছু সদস্যকে মেরে ফেলা হয়েছে। তাঁর ওপরেও আক্রমণ চালানো হয়েছে, তবে তিনি বেঁচে গিয়েছেন। তিনি বলেন, এক প্রখ্যাত ভারতীয় সাংবাদিকের সঙ্গে দেখা করে তিনি ইভিএম রিগিং-এর পুরো কাহিনি শুনিয়েছেন। নির্বাচন কমিশন ও বিভিন্ন রাজনৈতিক দলকে এ দিনের সাংবাদিক সম্মেলনে হাজির থাকার জন্য আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল, কিন্তু শুধুমাত্র কংগ্রেস নেতা কপিল সিব্বল অনুষ্ঠানে যোগ দেন বলে সাইবার বিশেষজ্ঞ জানান।

লন্ডনে শুজার সাংবাদিক সম্মেলনের পরেই পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ইভিএম হ্যাক করা যায় বলে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে কর্মরত সাইবার বিশেষজ্ঞ যে দাবি করেছেন, তা নিয়ে বিরোধী দলগুলি শীঘ্রই নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে আলোচনা করবে।

দেশ

দেশে করোনায় সুস্থতার হার বাড়ছে, কমছে মৃত্যুহার

মৃত্যুহার আরও কিছুটা কমে ২.৭২ শতাংশে এসেছে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: এখনও পর্যন্ত দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যায় রেকর্ড তৈরি হল ভারতে। এক দিনেই আক্রান্ত হলেন ২৬,৫০৬ জন। তবে সুস্থতার হার আরও কিছুটা বাড়ায় স্বস্তি এসেছে। একই সঙ্গে মৃত্যুহার এখন অনেকটাই কমে এসেছে।

বাড়ল সুস্থতা, কমল মৃত্যুহার

শুক্রবার কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক (Ministry of Health and Family Welfare) যে রিপোর্ট দিয়েছে তাতে দেখা যাচ্ছে যে এই মুহূর্তে ভারতে মোট রোগীর সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৭ লক্ষ ৯৩ হাজার ৮০২। এর মধ্যে সক্রিয় রোগী রয়েছেন ২ লক্ষ ৭৬ হাজার ৬৮৫। সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৪ লক্ষ ৯৫ হাজার ৫১৩। মারা গিয়েছেন ২১,৬০৪ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১৯,১৩৪ জন। মারা গিয়েছেন ৪৭৫ জন। দেশে বর্তমানে সুস্থতার হার আরও কিছুটা বেড়ে ৬২.৪২ শতাংশ হয়েছে। মৃত্যুহার আরও কিছুটা কমে ২.৭২ শতাংশে এসেছে।

দশ লক্ষে আক্রান্ত আর মৃত্যু গোটা বিশ্বের মধ্যে সব থেকে কম ভারতে

জনসংখ্যায় বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম দেশ ভারত। একশো তিরিশ কোটির দেশে যদি প্রতি দশ লক্ষে আক্রান্ত আর মৃত্যুর সংখ্যা দেখা যায় তা হলে বোঝা যাবে ভারতের পরিস্থিতি গোটা বিশ্বের মধ্যে সব থেকে ভালো।

এ দেশে এখনও প্রতি দশ লক্ষ মানুষে আক্রান্ত হচ্ছেন ৫৭৬ জন। মৃত্যু হয়েছে মাত্র ১৬ জনের। গোটা বিশ্বে প্রতি দশ লক্ষ মানুষে করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন ১৫৯০ জন আর মৃত্যু হচ্ছে ৭২ জনের।

পথ দেখাচ্ছে দিল্লি

দিল্লিতে আক্রান্তের সংখ্যা একটা সমান্তরাল স্তরে এসেছে। গত দেড় সপ্তাহ ধরে নতুন আক্রান্তের সংখ্যা দুই থেকে আড়াই হাজারের মধ্যে থাকছে, এক সময়ে যেটা চার হাজারের কাছাকাছি চলে গিয়েছিল। আর প্রায় রোজই নতুন আক্রান্তের সংখ্যাকে ছাপিয়ে যাচ্ছে সুস্থতা।

বর্তমানে দিল্লিতে মোট আক্রান্ত ১ লক্ষ ৭ হাজার ৫১ হলেও ইতিমধ্যে সুস্থ হয়ে গিয়েছেন ৮২,২২৬ জন। ফলে রাজধানীতে এখন সুস্থতার হার এসে দাঁড়িয়েছে ৭৬.৮১ শতাংশে।

বাড়ছে টেস্ট, বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা

আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধির পেছনে দেশের বিভিন্ন রাজ্যে নমুনা পরীক্ষা একটা বড়ো কারণ। গত ২৪ ঘণ্টায় গোটা দেশে ২ লক্ষ ৮৩ হাজার ৬৫৯টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। ফলে এখনও পর্যন্ত দেশে মোট এক কোটি দশ লক্ষ ২৪ হাজার ৪৯১টি নমুনা পরীক্ষা হল।

গত ২৪ ঘণ্টায় তামিলনাড়ুতে ৪২ হাজার নমুনা পরীক্ষা হয়েছে, উত্তরপ্রদেশে হয়েছে তিরিশ হাজার। দিল্লিতে দিনে ২০ হাজার নমুনা পরীক্ষা হচ্ছে। পশ্চিমবঙ্গে নমুনা পরীক্ষা হচ্ছে গড়ে ১০ হাজার করে।

মহারাষ্ট্র আর তেলঙ্গানা বাদে সব ক্ষেত্রেই দেখা যাচ্ছে যে মোট নমুনা পরীক্ষার দশ শতাংশেরও কম মানুষ করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন। অর্থাৎ বাকি ৯০ শতাংশ মানুষের করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ আসছে। এই পরিসংখ্যান কিন্তু কোনো ভাবেই অতিরিক্ত আতঙ্ক তৈরি করে না।

Continue Reading

দেশ

এনকাউন্টারে হত বিকাশ দুবে

একটি গাড়িই শুক্রবার সকালে জাতীয় সড়কের ধারে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে উলটে যায়। মনে করা হচ্ছে ওই গাড়িতেই দুবে ছিল।

খবরঅনলাইন ডেস্ক: পুলিশের সঙ্গে এনকাউন্টারে নিহত কানপুরের ‘ডন’ বিকাশ দুবে। যদিও গোটা ঘটনায় নতুন করে রহস্য তৈরি হয়েছে।

বিকাশ দুবেকে (Vikas Dubey) নিয়ে কানপুর আসার পথে শুক্রবার সকালে উলটে যায় পুলিশের গাড়ি। পুলিশের বক্তব্য, ওই ঘটনার সুযোগ নিয়ে পালানোর চেষ্টা করে দুবে। তখন তার উদ্দেশে গুলি চালায় পুলিশ। হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথেই মৃত্যু হয় দুবের।

পুলিশের তিনটে স্করপিও গাড়ির একটি কনভয়ে দুবেকে কানপুরে (Kanpur) নিয়ে আসা হচ্ছিল। তাদের মধ্যে একটি গাড়িই শুক্রবার সকালে জাতীয় সড়কের ধারে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে উলটে যায়। মনে করা হচ্ছে ওই গাড়িতেই দুবে ছিল।

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার মধ্যপ্রদেশের উজ্জ্বয়িনীতে মহাকাল মন্দিরের (Mahakal Temple) কাছ থেকে গ্রেফতার করা হয় দুবেকে। গ্রেফতারের সময়ে তার হম্বিতম্বি জারি ছিল। পুলিশের উদ্দেশে তাকে বলতে শোনা যায়, “আমি বিকাশ দুবে, কানপুরওয়ালা।”

গত এক সপ্তাহ ধরে অবশ্য পুলিশের চোখে ধুলো দিয়ে বেরিয়েছে দুবে। এনকাউন্টারে তার তিন ঘনিষ্ঠ সহযোগী নিহত হলেও দুবের টিকিটিও ছুঁতে পারছিল না পুলিশ। হরিয়ানার ফরিদাবাদে একটি হোটেলের সিসিটিভি ফুটেজে দুবেকে দেখা গেলেও, ঘটনাস্থলে পুলিশ পৌঁছোনোর আগেই সে চম্পট দেয় সেখান থেকে।

উল্লেখ্য, গত সপ্তাহের বৃহস্পতিবার রাতে কানপুরে বিকাশ দুবেকে গ্রেফতার করতে অপারেশন চালায় পুলিশ। কিন্তু ‘সরষের মধ্যেই ভূত’ থাকায় সেই খবর আগেই জানতে পারে বিকাশ। ফলে পুলিশ আসার আগেই সমস্ত প্রস্তুতি সেরে রাখে সে।

ছাদে দাঁড়িয়েই নিজের অ্যাকশন স্কোয়াড থেকে গুলি করে মারে পুলিশকর্মীদের। মৃত্যু হয় আট জনের। তার পর থেকেই এই দুষ্কৃতীকে খুঁজতে মরিয়া হয়ে ওঠে পুলিশ। অবশেষে পুলিশ সাফল্য পায় দুবেকে গ্রেফতার করার ব্যাপারে। তবে শুক্রবারের দুর্ঘটনার পেছনে নতুন করে কোনো রহস্য রয়েছে কি না, সেই প্রশ্ন মাথাচাড়া দিচ্ছে।

উল্লেখ্য খুন, ডাকাতি, অপহরণ-সহ ৬০টি মামলা রয়েছে বিকাশের বিরুদ্ধে।

Continue Reading

দেশ

করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বাড়লেও ভারতে এখনও গোষ্ঠী সংক্রমণ নেই: স্বাস্থ্যমন্ত্রক

এখনও পর্যন্ত এ দেশ গোষ্ঠী সংক্রমণের পর্যায়ে পৌঁছোয়নি বলে জানাল স্বাস্থ্যমন্ত্রক

নয়াদিল্লি: বৃহস্পতিবার পর্যন্ত ভারতে মোট করোনাভাইরাস (Coronavirus) আক্রান্তের সংখ্যা সাড়ে সাত লক্ষের গণ্ডি ছাড়িয়েছে। তবে এখনও পর্যন্ত এ দেশ গোষ্ঠী সংক্রমণের পর্যায়ে পৌঁছোয়নি বলে জানাল স্বাস্থ্যমন্ত্রক।

বৃহস্পতিবার স্বাস্থ্যমন্ত্রক জানায়, “ভারত এখন পর্যন্ত গোষ্ঠী সংক্রমণ বা কমিউনিটি ট্রান্সমিশনের (community transmission) পর্যায়ে পৌঁছোয়নি। কিছু অঞ্চল বা জায়গায় শুধুমাত্র স্থানীয় প্রাদুর্ভাব (local outbreak) রয়েছে”।

নমুনা পরীক্ষার সঙ্গেই বাড়ছে শনাক্ত

স্বাস্থ্যমন্ত্রকের যুগ্মসচিব পুণ্যসলিলা শ্রীবাস্তব এ দিনের সাংবাদিক বৈঠকে বলেন, ৮ জুলাই পর্যন্ত দিল্লিতে ৬,৭৯,৮৩১টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এর অর্থ প্রতি ১০ লক্ষ মানুষে ৩৫,৭৮০ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। দিল্লিতে প্রতিদিন গড়ে ২০ হাজার নমুনা পরীক্ষা হয়েছে।

একই সঙ্গে আইসিএমআরের সিনিয়র সায়েন্টিস্ট নিবেদিতা গুপ্তা বলেন, প্রতিদিনই নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা বাড়ছে। এখন প্রতিদিন সারা দেশে ২.৬ লক্ষ নমুনা পরীক্ষা করা হচ্ছে। অ্যান্টিজেন টেস্টের প্রয়োগে এই সংখ্যা দ্রুত বাড়বে বলেই আশা করা হচ্ছে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রকের ওএসডি রাজেশ ভূষণ বলেন, “আমরা বিশ্বের দ্বিতীয় জনবহুল দেশ। ১৩০ কোটি জনসংখ্যা থাকা সত্ত্বেও অন্যান্য দেশের সঙ্গে তুলনামূলক ভাবে ভারত কোভিড -১৯ পরিচালনা করতে সক্ষম হয়েছে। আপনি যদি প্রতি ১০ লক্ষ জনসংখ্যার আক্রান্তের সংখ্যার দিকে তাকান, তা হলে এখনও বিশ্বের সর্বনিম্ন অবস্থানে রয়েছে আমাদের দেশ”।

সক্রিয় রোগীর অবস্থান

এ দিনই মন্ত্রিগোষ্ঠীর ১৮তম বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা. হর্ষ বর্ধন। দেশের যে সমস্ত এলাকায় সংক্রমণ এবং আক্রান্তের মৃত্যুর হার অত্যধিক, সেই সমস্ত জায়গায় বাড়তি নজরদারি চালানোর কথা উল্লেখ করা হয়।

মন্ত্রিগোষ্ঠীর বৈঠকে পেশ করা তথ্য অনুযায়ী, আটটি রাজ্যে সারা দেশের প্রায় ৯০ শতাংশ সক্রিয় রোগী রয়েছেন। আটটি রাজ্যের তালিকায় রয়েছে মহারাষ্ট্র, দিল্লি, কর্নাটক, তেলঙ্গানা, অন্ধ্রপ্রদেশ, গুজরাত, তামিলনাড়ু এবং উত্তরপ্রদেশ। বিস্তারিত পড়ুন: সক্রিয় করোনা রোগীর ৯০ শতাংশই আটটি রাজ্যে!

মৃত্যুর হার

এ দিন সকালে স্বাস্থ্যমন্ত্রক জানায়, বৃহস্পতিবার পর্যন্ত দেশে মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৭ লক্ষ ৬৭ হাজার ২৯৬। এর মধ্যে সক্রিয় রোগী রয়েছেন ২ লক্ষ ৬৯ হাজার ৭৮৯। সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৪ লক্ষ ৭৬ হাজার ৩৭৮। মারা গিয়েছেন ২১,১২৯ জন।

তবে বেশ কিছু রাজ্যে মৃত্যুর হার জাতীয় হারের থেকে অনেকটাই কম। দেখে নিন ভারতের বিভিন্ন রাজ্য আর কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে মৃত্যুহার কী রকম রয়েছে: করোনায় মৃত্যুহারে কে কোথায়

Continue Reading
Advertisement
দেশ1 day ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ২৪৮৭৯, সুস্থ ১৯৫৪৭

কলকাতা2 days ago

কলকাতায় লকডাউনের আওতায় পড়া এলাকাগুলির পূর্ণাঙ্গ তালিকা প্রকাশিত

দেশ3 days ago

দ্রুত গতিতে বাড়ছে সুস্থতা, ভারতে এক সপ্তাহেই করোনামুক্ত লক্ষাধিক

বিদেশ3 days ago

অনলাইনে ক্লাস করা ভিনদেশি পড়ুয়াদের আমেরিকা ছাড়তে হবে, নির্দেশ ডোনাল্ড ট্রাম্প সরকারের

ক্রিকেট2 days ago

১১৬ দিন পর শুরু আন্তর্জাতিক ক্রিকেট, হাঁটু গেড়ে বসে জর্জ ফ্লয়েডকে স্মরণ ক্রিকেটারদের

রাজ্য3 days ago

বৃহস্পতিবার বিকেল পাঁচটা থেকে রাজ্যের কনটেনমেন্ট জোনগুলিতে কড়া লকডাউন

কেনাকাটা3 days ago

বাচ্চার জন্য মাস্ক খুঁজছেন? এগুলোর মধ্যে একটা আপনার পছন্দ হবেই

দেশ18 hours ago

সক্রিয় করোনা রোগীর ৯০ শতাংশই আটটি রাজ্যে!

কেনাকাটা

কেনাকাটা12 hours ago

ঘরের একঘেয়েমি আর ভালো লাগছে না? ঘরে বসেই ঘরের দেওয়ালকে বানান অন্য রকম

খবরঅনলাইন ডেস্ক : একে লকডাউন তার ওপর ঘরে থাকার একঘেয়েমি। মনটাকে বিষাদে ভরিয়ে দিচ্ছে। ঘরের রদবদল করুন। জিনিসপত্র এ-দিক থেকে...

কেনাকাটা3 days ago

বাচ্চার জন্য মাস্ক খুঁজছেন? এগুলোর মধ্যে একটা আপনার পছন্দ হবেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক : নিউ নর্মালে মাস্ক পরাটাই দস্তুর। তা সে ছোটো হোক বা বড়ো। বিরক্ত লাগলেও বড়োরা নিজেরাই নিজেদেরকে বোঝায়।...

কেনাকাটা4 days ago

রান্নাঘরের টুকিটাকি প্রয়োজনে এই ১০টি সামগ্রী খুবই কাজের

খবরঅনলাইন ডেস্ক : লকডাউনের মধ্যে আনলক হলেও খুব দরকার ছাড়া বাইরে না বেরোনোই ভালো। আর বাইরে বেরোলেও নিউ নর্মালের সব...

কেনাকাটা5 days ago

হ্যান্ড স্যানিটাইজারে ৩১ শতাংশ পর্যন্ত ছাড় দিচ্ছে অ্যামাজন

অনলাইনে খুচরো বিক্রেতা অ্যামাজন ক্রেতার চাহিদার কথা মাথায় রেখে ঢেলে সাজিয়েছে হ্যান্ড স্যানিটাইজারের সম্ভার।

নজরে