sailesh mehta

বডোদরা: গুজরাত নির্বাচন যত এগিয়ে আসছে তত যেন খোলস ছেড়ে বেরিয়ে আসছে বিজেপির মেরুকরণের রাজনীতি। কিছু দিন আগেই মুসলিমদের কাছে টানার কথা প্রচারে বলেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। আজানের সময়ে বন্ধ রেখেছিলেন নিজের ভাষণ। কিন্তু তাঁর দলেরই এক নেতার মুখ থেকে বেরিয়ে এল মুসলিমদের সংখ্যা কমানোর হুমকি।

তিনি বডোদরার বিজেপি কাউন্সিলর শৈলেশ মেহতা। গুজরাতের দাভোয় বিধানসভা আসনে বিজেপির প্রার্থী হয়েছেন তিনি। প্রচারসভায় কোনো দ্বিধা-সংশয় না করেই তিনি বলে দেন, “এখানে যদি দাড়ি-টুপি পরা কেউ থাকেন, আমাকে ক্ষমা করুন, কিন্তু তাদের জনসংখ্যা কমাতে হবে।” এখানেই না থেমে তিনি বলেন, “দাভোয়কে দুবাই হতে দেব না।” ক্ষমতায় এলে তিনি যে মসজিদ এবং মাদ্রাসাকে কোনো আর্থিক অনুদান দেবেন না সে কথাও বলে দেন শৈলেশ।

স্থানীয় টিভি চ্যানেলে তাঁর এই ভাষণ সম্প্রচার করা হলে এর বিরুদ্ধে নির্বাচন কমিশনে অভিযোগ দায়ের করেন অমদাবাদের মানবাধিকার কর্মী নিশান্ত বর্মা। নিজের অভিযোগে নিশান্ত জানিয়েছেন, “ওই নেতা সরাসরি মুসলিমদের হুমকি দিচ্ছেন। এটা কোনো ভাবেই মেনে নেওয়া যায় না।”

অভিযোগ পেয়ে অবশ্য শৈলেশের  বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিয়েছে নির্বাচন কমিশন। এই ব্যাপারে তাঁকে নোটিশ পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে কমিশন। শৈলেশের এই মন্তব্যের তীব্র প্রতিবাদ করেছে স্থানীয় কংগ্রেস নেতৃত্ব। এই ব্যাপারে শৈলেশকে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, শুধুমাত্র সমাজবিরোধীদের লক্ষ করেই এই মন্তব্য করেছেন তিনি। তাঁর কথায়, “আমার লক্ষ্য সমাজবিরোধীরা। নির্দোষরা নিশ্চিন্তে থাকতে পারেন।”

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here