ওয়েবডেস্ক: প্রৌঢ়ার বেশ নিয়ে বিক্ষোভকারীদের এড়িয়ে সবরীমালা মন্দিরে প্রবেশ করেছেন তিনি। এমনই দাবি করলেন ৩৬ বছর বয়সি এক দলিত মহিলা কর্মী। নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে এমনই পোস্ট করেছেন তিনি।

পি মঞ্জু নামক ওই মহিলার দাবি, মঙ্গলবার খুব ভোরে মন্দিরে প্রবেশ করেছেন তিনি। নিজের একটি ছবিও সেই পোস্টে দিয়েছেন তিনি, যেখানে দেখা যাচ্ছে প্রৌঢ়ার বেশ নিয়ে মন্দিরের ভেতরে প্রার্থনা করছেন। যদিও ওই মহিলার দাবি নিয়ে এখনও নীরব পুলিশ।

মঞ্জুর অবশ্য দাবি ৫০ বছর বয়সি প্রৌঢ়ার রূপ নেওয়ায় তাঁর বেশি সমস্যা হয়নি। বিক্ষোভকারীদের সহজেই ধোঁকা দেওয়া গিয়েছে বলে জানান তিনি। তবে মন্দিরে ঢোকার জন্য তিনি পুলিশের সাহায্য চাননি বলে দাবি করেন মঞ্জু।

বামঘেঁষা দলিত সংগঠন মহিলা দলিত ফেডারেশনের সদস্যা মঞ্জু বলেন, “খুব ভালো ভাবে আয়াপ্পার দর্শন করলাম। আমি সাধারণ দর্শনার্থী হয়েই এসেছি। তবে বিক্ষোভকারীদের এড়ানোর জন্য চুলে ডাই করেছিলাম, যাতে প্রৌঢ়ার মতো লাগে আমাকে।”

আরও পড়ুন টানা চার দিন সবুজে শেয়ার বাজার, থামবে কোথায়?

গত অক্টোবরে সবরীমালা মন্দিরে ঢোকার চেষ্টা করেছিলেন তিনি। কিন্তু বিক্ষোভকারীদের প্রবল বাধার সম্মুখীন হন। এমনকি কোল্লামে তাঁর বাড়িতে হামলাও করে বিক্ষোভকারীরা।

উল্লখ্য, গত সপ্তাহেই বছর চল্লিশের মহিলার সবরীমালা মন্দিরে প্রবেশ নিয়ে তুমুল হট্টগোল হয় কেরল জুড়ে। বিজেপি এবং হিন্দুত্ববাদী সংগঠনগুলিই এই হট্টগোলের নেতৃত্বে ছিল প্রধানত ভাবে। বন্‌ধেরও ডাক দেওয়া হয়, তবে সেই বন্‌ধে খুব একটা সাড়া সে ভাবে পাওয়া যায়নি।

এখন দেখার মঞ্জুর এই মন্দির প্রবেশের দাবি ঘিরে কেমন প্রতিক্রিয়া জানায় হিন্দুত্ববাদীরা।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here