ওয়েবডেস্ক: হরিয়ানা বিধানসভা নির্বাচনে দাদরি কেন্দ্র থেকে বিজেপির প্রতীকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলেন ভারতীয় কুস্তিগির ববিতা ফোগত। তাঁর হয়ে প্রচারে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ‘ঘরের মেয়েকে আশীর্বাদে‘র প্রার্থনা জানিয়েছিলেন ভোটারদের কাছে। কিন্তু ফলাফল তার তেমন কোনো প্রভাব পড়ল না। শেষ পাওয়া খবর অনুযায়ী, তৃতীয়স্থানে রয়েছেন ববিতা।

বিজেপি প্রার্থী হিসাবে ববিতা ভোটপ্রচারপর্বে বলেছিলেন, তিনি প্রধানমন্ত্রীর অনুপ্রেরণাতেই ভোট ময়দানে লড়তে নেমেছেন। এমনকী বৃহস্পতিবার ভোটগণনা শুরুর আগে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে তিনি বলেন, “আমরা অলিম্পিকে পদক জয়ের জন্য চার বছর ধরে প্রস্তুতি নিই। আজকের এই রকমের যখন আমি ফলাফলের জন্য অপেক্ষা করি। আমি আশা করছি, সাধারণ মানুষ তাঁদের মেয়েকে আশীর্বাদ করবেন”।

তবে ভোটের ফলাফলের প্রবণতা একটু অন্য রকম। দাদরিতে মোট ১৭ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। এঁদের মধ্যে জেজেপি প্রার্থী সতপাল সাঙ্গওয়ান এবং কংগ্রেস প্রার্থী মেজর নৃপেন্দ্র সিং সাঙ্গওয়ান বেশ প্রভাবশালী বলেই পরিচিত। যদিও এই কেন্দ্রে তারকাপ্রার্থী বলতে একমাত্র ববিতাই। কিন্তু শেষ পাওয়া খবরে, দাদরি কেন্দ্রে সম্বির নামে এক নির্দল প্রার্থী ১৪,০৮০ ভোটের ব্যবধানে জিতছেন। দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন জেজেপি প্রার্থী সতপাল সাঙ্গওয়ান।

গত আগস্ট মাসে বাবা মহাবীর সিং ফোগতের সঙ্গেই বিজেপিতে যোগ দেন ববিতা। নির্বাচনের প্রচারে দাদরির সার্বিক উন্নয়ন, জলসংকট মোচন, মহিলাদের স্বনির্ভর করে তোলার উপর জোর দেন তিনি। একই সঙ্গে এলাকার সর্বস্তরে খেলাধুলার প্রসারের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন ববিতা।

আরও পড়ুন: মহারাষ্ট্র-হরিয়ানা বিধানসভা নির্বাচন ফলাফল লাইভ

উল্লেখ্য, প্রধানমন্ত্রীর ‘বেটি বাঁচাও, বেঁটি পড়াও’ কর্মসূচিতেও অংশ ছিলেন ববিতা। তাঁর সংযুক্তি ‘বেটি খিলাও’ বেশ জনপ্রিয়তা পেয়েছিল।

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন