দিল্লিতে বিপদসীমা ছাড়াল যমুনা, বন্যায় উত্তর ভারতের মৃতের সংখ্যা বাড়ছে

0

ওয়েবডেস্ক: দিল্লিতে বিপদসীমা ছাড়াল যমুনা। ফলে শহরের নিচু এলাকাগুলিতে নদীর জল ঢুকতে শুরু করেছে। অন্য দিকে গত কয়েক দিনের প্রবল বৃষ্টি, বন্যা এবং ধসের জেরে উত্তর ভারতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৬১।

সব থেকে খারাপ অবস্থা দুই পাহাড়ি রাজ্য হিমাচল প্রদেশ এবং উত্তরাখণ্ডের। উত্তরাখণ্ডে ৩২ জনের মৃত্যু হয়েছে। এঁদের মধ্যে ১৭ জনের মৃত্যু হয়েছে উত্তরকাশি জেলার মোরিতে মেঘভাঙা বর্ষণের ফলে। হিমাচলের মৃতের সংখ্যা ২৬।

সোমবার থেকে বৃষ্টির দাপট কিছুটা কমলেও দুই রাজ্যে এখনও বিপদসীমার ওপরে বইছে বহু নদী। উত্তরাখণ্ডের হরিদ্বার এবং হৃষীকেশে বিপদসীমার ওপর দিয়ে বইছে গঙ্গা। বন্ধ একাধিক রাস্তা। চলছে না গাড়ি। ফলে সাধারণ মানুষের মতো আটকে পড়েছেন বহু পর্যটকও। সবাইকে উদ্ধার করার ব্যাপারে চেষ্টা চালাচ্ছে প্রশাসন। এ দিকে বৃষ্টির পাশাপাশি হিমাচলের কিছু এলাকায় তুষারপাতও হয়েছে।

পঞ্জাবের বন্যা পরিস্থিতি বিশেষ উন্নতি এখনও হয়নি। রাজ্যের তিন জেলা, পাঠানকোট, রোপার এবং লুধিয়ানার পরিস্থিতি সব থেকে খারাপ। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিং এই বন্যাকে ‘ভয়াবহ প্রাকৃতিক দুর্যোগ’ আখ্যা দিয়ে ত্রাণ বাবদ ১০০ কোটি টাকা মঞ্জুর করেছেন।

আরও পড়ুন মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী কমল নাথের ভাগ্নেকে গ্রেফতার করল ইডি

দিল্লির পরিস্থিতিও খারাপ। যমুনার বিপদসীমা ২০৫.৩ মিটার। মঙ্গলবার সকালে সে বইছে ২০৫.৯ মিটার দিয়ে। ইতিমধ্যে নদী তীরবর্তী এলাকাগুলিতে জল ঢুকতে শুরু করেছে। সাধারণ মানুষকে নিরাপদ জায়গায় সরিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য নির্দেশ দিয়েছেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। এর পরেই দিল্লির নিচু এলাকাগুলি থেকে প্রায় ১০ হাজার মানুষকে বিভিন্ন ত্রা শিবিরে স্থানান্তরিত করা হয়েছে। বন্যার পরিস্থিতি আরও খারাপ হতে পারে। কারণ সোমবার নতুন করে জল ছাড়া হয়েছে হরিয়ানা থেকে। এর ফলে দিল্লিতে আরও বাড়তে পারে জলস্তর।

তবে স্বস্তির কথা এই যে আপাতত ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা বিশেষ নেই উত্তর ভারতের ক্ষেত্রে। ফলে ধীরে ধীরে বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হতে পারে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here