বিহার-অসমে বন্যায় মৃতের সংখ্যা আরও বাড়ল

0
Assam Flood

ওয়েবডেস্ক: বিহার এবং অসমের বন্যায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে হল ২০৮। এমনই জানা গিয়েছে সংশ্লিষ্ট রাজ্য সরকার প্রকাশিত তথ্যে। তবে এটা যে হেতু সরকারি হিসেব, বেসরকারি ভাবে মৃতের সংখ্যা কিছুটা বেশিই হতে পারে। সব থেকে খারাপ অবস্থা বিহারের। সেখানে মারা গিয়েছে ১২৭ জন। অসমে মৃত্যু হয়েছে ৮১ জনের।

বিহার

রবিবার পর্যন্ত পাওয়া তথ্য অনুযায়ী বিহারের বন্যা পরিস্থিতির খুব একটা উন্নতি এখনও হয়নি। বরং দুর্গত মানুষদের সংখ্যা আরও কিছুটা বেড়েছে। রাজ্যের মোট ১,২৫৩টি গ্রাম পঞ্চায়েত বন্যা কবলিত। সব মিলিয়ে দুর্গত ৮৫ লক্ষ ৬০ হাজার মানুষ।

রাজ্যের সব থেকে ক্ষতিগ্রস্ত জেলা সিতামাঢ়ী এবং মধুবনী। এই দুই জেলায় মৃত্যু হয়েছে যথাক্রমে ৩৭ এবং ৩০ জনের। রাজ্যে মোট আটটি ত্রাণ শিবির তৈরি করা হয়েছে, সেখানে ৬,৩০০ মানুষকে স্থানান্তরিত করা হয়েছে। বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমার আকাশপথে বন্যা পরিস্থিতি পরিদর্শন করেছেন। এর পাশাপাশি দক্ষিণ বিহারের খরা পরিস্থিতিও পরিদর্শন করেছেন তিনি।

উল্লেখ্য, জুলাইয়ের শুরুতে উত্তর বিহার এবং নেপালে প্রবল বৃষ্টির জেরে বন্যা পরিস্থিতি তৈরি হয় বিহারে। মধ্য জুনে যে সব জেলা তীব্র তাপপ্রবাহে কাহিল হয়ে পড়েছিল, সেখানেই থাবা বসায় বন্যা।

আরও পড়ুন বিদেশেও ভোট প্রচারে নরেন্দ্র মোদী!

অসম

অসমের বন্যা পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হওয়া শুরু হলেও, আবার অবনতির দিকে এগোচ্ছে। শনিবার অরুণাচল লাগোয়া শোনিতপুর জেলায় বন্যার জল ঢুকতে শুরু করেছে। সব মিলিয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৮১।

১,৭১৬টি গ্রামের ২১ লক্ষ ৬৮ হাজার মানুষ বন্যাদুর্গত। রাজ্য জুড়ে ৬৫টি ত্রাণশিবির তৈরি করা হয়েছে। দুর্গতদের মধ্যে যাদের অবস্থা সব থেকে খারাপ, তাদেরই এই শিবিরে নিয়ে আসা হয়েছে।

নেমতিঘাট, জোরহাট এবং ধুবুড়িতে এখনও বিপদসীমার ওপরে রয়েছে ব্রহ্মপুত্র। অন্য দিকে শোনিতপুরে বিপদসীমার ওপরে রয়েছে জিয়া ভরলি। এ দিকে সাধারণ মানুষের মধ্যে আতঙ্ক সৃষ্টি করেছে ভুটান থেকে আসা একটি বার্তা। বরপেটা জেলার বিপর্যয় মোকাবিলা দফতরের ডিরেক্টর নন্দিতা দত্ত বলেন, “ভুটান কয়েক দিনের মধ্যে কুরিচু জলাধার থেকে আরও জল ছাড়বে। ফলে বন্যা পরিস্থিতির আরও অবনতি হওয়ার আশঙ্কা করছি। এটা একটা চিন্তার বিষয় ঠিকই, কিন্তু আমরা সব কিছুর জন্য প্রস্তুত।”

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন