দিল্লিতে বিধ্বংসী আগুনে মৃত অন্তত ২৭, ঘটনাস্থল পরিদর্শনে মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল

0

নয়াদিল্লি: মুন্ডকা অগ্নিকাণ্ডের খোঁজখবর নিতে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করলেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। প্রায় ১০ মিনিট ছিলেন ঘটনাস্থলে। পুলিশ-প্রশাসনের কর্মকর্তা ও ক্ষতিগ্রস্তদের সঙ্গে কথা বলেন তিনি। মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন দিল্লির উপ-মুখ্যমন্ত্রী মনীশ সিসোদিয়া, মেয়র এবং সংশ্লিষ্ট অন্যান্য দফতরের আধিকারিকরাও।

শুক্রবার বিকেলে পশ্চিম দিল্লির মুন্ডকা মেট্রো স্টেশনের কাছে একটি বাড়িতে আগুন লেগে ২৭ জনের মৃত্যু হয়। ওই বাড়ি থেকে উদ্ধার করা হয় অন্তত ৫০ জনকে। শনিবার সকালে পুলিশ জানায়, এখনও কয়েক জন নিখোঁজ। তিন-চার ঘণ্টার মধ্যেই উদ্ধারকাজ সম্পূর্ণ হবে।

কেজরিওয়াল ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন এ দিন। এই মর্মান্তিক ঘটনার জন্য দুঃখপ্রকাশ করেন তিনি। ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে ভস্মীভূত বাড়ির বাসিন্দাদের সঙ্গে কথা বলেন তিনি। পাশাপাশি উদ্ধারকাজ নিয়েও খোঁজখবর নেন মুখ্যমন্ত্রী।

ক্ষতিগ্রস্তদের উদ্দেশে কেজরিওয়ালের আশ্বাস, দিল্লি সরকার এই ঘটনার ম্যাজিস্ট্রেট পর্যায়ের তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে। দোষীরা ছাড় পাবে না। নিহতদের প্রত্যেকের পরিবারকে ১০ লক্ষ এবং আহতদের ৫০ হাজার টাকা করে ক্ষতিপূরণ ঘোষণা করেছেন তিনি।

ঘটনায় প্রকাশ, বাড়ির যে অফিস থেকে আগুন ছড়িয়ে পড়ে এই মর্মান্তিক ঘটনা, সেটার মালিকরা ‘নো অবজেকশন সার্টিফিকেট’ (এনওসি) নেননি দমকল বিভাগের কাছ থেকে। ছাড়পত্র ছিল-ই না, উলটে প্রয়োজনীয় নির্দেশিকা না মেনেই তারা ওই বাড়িটিতে কাজ করছিল বলে অভিযোগ।

জেলা পুলিশের ডিসিপি সমীর শর্মা জানিয়েছেন, “দ্রুতগতিতে উদ্ধারকাজ চালাচ্ছে এনডিআরএফ। সেখানে আরও কেউ আটকে আছে কি না, তা দেখছে। এখনও পর্যন্ত আমরা ২৭টি মৃতদেহ উদ্ধার করেছি। তাদের পরিচয় জানার চেষ্টা চলছে। দগ্ধ দেহগুলির ফরেনসিক ডিএনএ পরীক্ষা করা হবে। নিখোঁজদের একটি তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে”।

অন্য দিকে, গতকালই এই দুর্ঘটনায় গভীর দুঃখপ্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। মৃতদের পরিবারদের জন্য মাথাপিছু ২ লক্ষ টাকা করে দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছেন প্রধানমন্ত্রী। আহতরা পাবেন ৫০ হাজার টাকা করে।

আরও পড়তে পারেন: 

আটার দামে রেকর্ড, নিয়ন্ত্রণে বড়োসড়ো পদক্ষেপ কেন্দ্রের

দেশে নতুন করে কোভিড আক্রান্ত ২,৮৫৮ জন, দিল্লিতে নামল হাজারের নীচে

দিল্লিতে বিধ্বংসী আগুনে মৃত অন্তত ২৭, হাসপাতালে ভর্তি ৮ জন 

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন