mithun chakraborty

ওয়েবডেস্ক: রাজধানীর এক আদালত মিঠুন চক্রবর্তীর ছেলে মহাক্ষয় এবং স্ত্রী যোগিতার বিরুদ্ধে পুলিশকে এফআইআর গ্রহণের নির্দেশ দিল সোমবার। জানা গিয়েছে, রাজধানীর এক তরুণীর সঙ্গে ৩ বছর ধরে বলপূর্বক শারীরিক সম্পর্ক চালিয়ে যাওয়া, গর্ভপাতে বাধ্য করার অভিযোগ উঠেছে মহাক্ষয়ের নামে। পাশাপাশি, যোগিতার বিরুদ্ধে উঠেছে মেয়েটির প্রাণনাশের হুমকি দেওয়ার অভিযোগ।

নির্দেশনামায় অ্যাডিশনাল চিফ মেট্রোপলিটান ম্যাজিস্ট্রেট একতা গাবা জানিয়েছেন, অভিযুক্তরা প্রভাবশালী। প্রধান অভিযুক্ত শুধু দেশের এক বড়ো অভিনেতার সন্তানই নন, পাশাপাশি তিনি রাজ্যসভার প্রাক্তন সদস্যেরও সন্তান। অন্য দিকে, অভিযোগকারিণী সহায়-সম্বলহীন, তাঁর মা-বাবা, পরিবার কিছুই নেই। তাঁকে হুমকি দেওয়া হয়েছে। মুম্বইয়ে ফিরতেও তিনি ভয় পাচ্ছেন। আপাতত লুকিয়ে আছেন দিল্লিতে বন্ধুদের কাছে!

পাশাপাশি ম্যাজিস্ট্রেট আরও নির্দেশ দিয়েছেন, ঘটনাটির সঙ্গে প্রাণনাশের হুমকির অভিযোগ জড়িয়ে আছে বলে তা যেন আদ্যন্ত তদন্ত করা হয় এবং সব দিক থেকে তরুণীটির নিরাপত্তা সুরক্ষিত করা হয়!

আদালতের ওই নির্দেশনামা থেকে জানা গিয়েছে, ২০১৫ সালে মহাক্ষয়ের সঙ্গে ওই তরুণীর আলাপ হলে তিনি পানীয়র মধ্যে ড্রাগ মিশিয়ে তাঁকে ধর্ষণ করেন। এবং ব্ল্যাকমেলের ভয় দেখিয়ে, প্রেমের ফাঁদে ফেলে ক্রমাগত শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করেই যান! পরিণামে তরুণী গর্ভধারণ করলে মহাক্ষয় নিজেই ওষুধ দিয়ে তরুণীটির আপত্তি থাকা সত্ত্বেও গর্ভপাতে বাধ্য করান। এর পর বিয়ের কথা উঠলে তিনি ক্রমাগত এড়িয়ে যেতে থাকেন তাঁকে। কখনও বলেন কোষ্ঠী মিলছে না, কখনও সরাসরিই জানান এই সম্পর্ক বিয়ের দিকে এগোবে না!

নির্দেশনামা আরও জানাচ্ছে, তরুণী এই নিয়ে আইনের দ্বারস্থ হতে চাইলে যোগিতা ফোন করে তাঁকে শাসান! বলেন, মুম্বইয়ে এলে তাঁর প্রাণনাশের ভয় রয়েছে! সে কারণেই ওই তরুণী এখন রাজধানীতে আত্মগোপন করে রয়েছেন বন্ধুদের কাছে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here