sonia gandhi

নয়াদিল্লি: বড়োসড়ো ধাক্কা খেলেন কংগ্রেস সভানেত্রী সনিয়া গান্ধী এবং সহ-সভাপতি রাহুল গান্ধী। ন্যাশনাল হেরাল্ড মামলায় ‘ইয়ং ইন্ডিয়ান’ সংস্থার বিরুদ্ধে আয়কর তদন্তের নির্দেশ দিল দিল্লি হাইকোর্ট। এই সংস্থার ডিরেক্টর পদে রয়েছেন সনিয়া এবং রাহুল।

হাইকোর্টের নির্দেশকে স্বাগত জানিয়ে শুক্রবার বিজেপির তরফ থেকে জানানো হয়েছে যে হাইকোর্টের এই নির্দেশ কংগ্রেসের কাছে এক বিরাট ধাক্কা। যদিও নিজেদের এই ধাক্কার কথা উড়িয়ে দিয়ে কংগ্রেস বলেছে, এই নির্দেশের বিরুদ্ধে তারা শীর্ষ আদালতের দারস্থ হবে।

কংগ্রেস নেতা তথা আইনজীবী অভিষেক মনু সিঙ্ঘভির কথায়, “ইয়ং ইন্ডিয়া-এর বিরুদ্ধে তদন্ত করার উপযুক্ত প্রমাণ আয়কর বিভাগের কাছে নেই। তাই আমরা আয়কর মূল্যায়নের কর্তাদের কাছে এই তদন্তের ব্যাপারে আপত্তি জানাব।”

এই দুর্নীতি মামলার কেন্দ্রবিন্দুতে রয়েছে  অ্যাসোসিয়েটেড জার্নাল লিমিটেড (এজেএল), যারা ন্যাশনাল হেরাল্ড-সহ আরও তিনটে কাগজের প্রকাশনা করত। কিন্তু ২০০৮-এ ৯০ কোটি টাকার ঋণ শোধ না করেই বন্ধ হয়ে যায় এজেএল। বিজেপি নেতা সুব্রহ্মণ্যম স্বামী অভিযোগ করেন এজেএলের কাছে দু’হাজার কোটি টাকার সম্পত্তি ছিল, তা দিয়ে তারা সেই ঋণ শোধ করতেই পারত, কিন্তু তা না করে, সনিয়া এবং রাহুল ইয়ং ইন্ডিয়া সংস্থাটি তৈরি করেন, এবং কংগ্রেসের পার্টি ফান্ড দিয়ে সেই ঋণ কিনে নেন। স্বামীর অভিযোগ ইয়ং ইন্ডিয়া সংস্থার অন্তত ৭৬ শতাংশ শেয়ার রয়েছে সনিয়া এবং রাহুলের কাছে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here