airpollution

নয়াদিল্লি: বাতাসের গুণমান কেমন? তা জানতে রয়েছে ভালো, সন্তোষজনক, মাঝারি, খারাপ, খুবই খারাপ – এই পাঁচ ধরনের মান। কেন্দ্রীয় দূষণ নিয়ন্ত্রণ পর্ষদ (সিপিসিবি) জানিয়েছে, রাজধানী দিল্লির বাতাস এক্কেবারে শেষ মানের। অর্থাৎ খুবই খারাপ। এর অর্থ হল উদ্বেগজনক। এমন ঘটনা সদ্য নয়, চলছে কয়েক বছর ধরেই। কিন্তু কী বা করার?

পরিবেশ সুরক্ষিত করতে বন্ধ করা যেতে পারে যানবাহনের ব্যবহার, বা কমানো যেতে পারে। কারণ হিসাবে বলা যায়, সিপিসিবি-র রিপোর্টের কথাই। দিল্লির বায়ুদূষণের সব থেকে বেশিটাই সংঘটিত হয় যানবাহন থেকে নির্গত ধোঁয়ায়। প্রায় ৪০%।

এই মুহূর্তের সব থেকে চিন্তার বিষয় হল দিল্লির এই দূষণ এ বার ছড়িয়ে পড়তে শুরু করেছে আশেপাশের এলাকাগুলিতেও। বিপর্যস্ত হচ্ছে সেই সব এলাকার জনজীবনও।

আরও পড়ুন – এই ধরনের গ্রাহকরা এটিএম থেকে বিনা চার্জে টাকা তুলতে পারবেন- জানুন বিস্তারিত

দিল্লির মোট ১৯টি এলাকার বাতাস খবুই খারাপ মানের। ছয়টি এলাকার মান খারাপ পর্যায়ের। তার মধ্যে গাজিয়াবাদ আর নয়ডার বায়ু খুবই খারাপ, ফিরোজাবাদ খারাপ আর গুড়গাঁও মাঝারি মানের।

রিপোর্ট অনুযায়ী, শনিবার মাত্র এক দিনের জন্য বায়ুদূষণের মাত্রা সামান্য কম দেখা গিয়েছিল। ফলে এক ধাপ এগিয়ে তখন খারাপ হয়েছিল। সেই পরিস্থিতি ক্ষণিকের। তার পর রবিবার থেকে আবার সেই খুবই খারাপ।

এয়ার কোয়ালিটি ইনডেক্স অনুযায়ী বায়ূতে দূষণের মাত্রা ০-৫০ হলে বায়ূর অবস্থা খুবই ভালো। ৫১-১০০ হলে ভালো, ১০১ থেকে ২০০ হলে মাঝারি, ২০০ থেকে ৩০০ হলে খারাপ আর ৩০০-৪০০ হলে খুবই খারাপ। আর ৪০১ থেকে ৫০০ হলে তা সাংঘাতিক। সেখানে দিল্লির মাত্রা ছাড়িয়ে গিয়েছে ৩১৪-র মাপকাঠি। দিল্লির বাতাসে রয়েছে প্রতি ডায়ামিটারে পিএম অর্থাৎ অতি সূক্ষ্ম পার্টিকুলেট ম্যাটার প্রায় ১৭৪টি ২.৫ মাইক্রো মিটারের মাপের কণা। আর প্রতি ডায়ামিটারে পিএম১০ মাপের ৩৫৮টি কণা।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here