দূষণের জন্য মাস্ক পরেই চলে বাজি পড়ানো।

নয়াদিল্লি: গত তিন সপ্তাহে দিল্লিতে ক্রমশ বেড়েছে দূষণের মাত্রা। দূষণ নিয়ন্ত্রণে আনার জন্য এই সপ্তাহেই হয়তো ‘ক্লাউড সিডিং’-এর মাধ্যমে কৃত্রিম ভাবে বৃষ্টি নামানো হতে পারে দিল্লিতে।

দিল্লি সরকারের এক আধিকারিক বলেন, আবহাওয়ার অবস্থা স্থিতিশীল হলেই ক্লাউড সিডিং-এর প্রক্রিয়া শুরু করা যেতে পারে। তবে আবহাওয়া স্থিতিশীল না হলে আগামী সপ্তাহে এই প্রক্রিয়া করা যেতে পারে।

বাতাসের ভাসমান মেঘের সঙ্গে শুকনো বরফ (ড্রাই আইস), সিলভার আয়োডাইড এবং খাবারের নুন মিশিয়ে ক্লাউড সিডিং করানো হয়। এর ফলে মেঘ ভারী হয়ে যেতে পারে এবং সেখান থেকে বৃষ্টি নামতে পারে।

আরও পড়ুন গত কুড়ি দিনে সোমবারই শ্রেষ্ঠ সকাল পেল কলকাতা

আবহাওয়া বিশেষজ্ঞদেরা অবশ্য জানিয়েছেন, আবহাওয়া স্থিতিশীল হওয়ার ২৪ ঘণ্টা পর থেকেই এই প্রক্রিয়া শুরু করা যেতে পারে।

আর্দ্রতা এবং হাওয়ার গতিবেগ কমে যাওয়ায়, মঙ্গলবার দিল্লির দূষণের মাত্রা আবার ‘অত্যন্ত খারাপ’ হয়েছে। বাতাসের মান সংক্রান্ত সূচক যেখানে ২০০ থাকার কথা, সেখানে দিল্লিতে রয়েছে ৩৫২।

২০১৬ থেকেই ক্লাউড সিডিং-এর ব্যাপারে চিন্তাভাবনা শুরু করে সরকার। তবে তা কখনও বাস্তবায়িত হয়নি। গত বছর দূষণ আটকানোর জন্য জলকামান ব্যবহার করেছিল দিল্লি সরকার।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here