Arvind Subramanian

ওয়েবডেস্ক: কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রকের প্রাক্তন মুখ্য আর্থিক পরামর্শদাতা অরবিন্দ সুব্রাহ্মণ্যন বিস্ফোরক তথ্য প্রকাশ্যে আনতে চলেছেন তাঁর লেখা নতুন বইয়ে। ‘দ্য চ্যালে়ঞ্জেস অব দ্য মোদী-জেটলি ইকনোমি’ নামের বইয়ে তিনি লিখেছেন, নোটবন্দি ছিল সর্বতো ভাবে অর্থনীতির উপর চরম আঘাত। কী ভাবে নোট বাতিলের জেরে বেসরকারি সংস্থা থেকে শুরু করে আপামর নাগরিকের জীবনে আর্থিক দুর্দশা নেমে এসেছে সে সব কথাই উঠে এসেছে তাঁর কলমে। তিনি মনে করেন, বড়ো মূল্যের (৫০০ এবং ১০০০ টাকা) নোটের বাতিল করার ঘোষণা রাতারাতি হয়ে যাওয়ায় সব থেকে বেশি আঘাত লেগেছে দেশের ওই অংশগুলিতে।

সুব্রাহ্মণ্যনের বইটি প্রকাশিত হবে আগামী ৫ ডিসেম্বর। তার আগেই একটি জাতীয় সংবাদ সংস্থায় প্রকাশিত খবরে এখন থেকেই চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। ‘দ্য টু পাজল অব ডিমোনেটাইজেশন- পলিটিক্যাল অ্যান্ড ইকনোমিক’ শীর্ষক ওই বইয়ের দ্বিতীয় অধ্যায়ে তিনি লিখেছেন, নোটবন্দি ছিল সর্বতো ভাবে অর্থনীতির উপর চরম আঘাত। বাজার থেকে ৮৬ শতাংশ নোট তুলে নেওয়া আদতে অর্থনৈতিক ব্যর্থতায় পরিণত হয়েছে। যা প্রকৃত অর্থে জিডিপির হারে অবনমনের অনুঘটক হিসাবে কাজ করেছে। তার আগে থেকেই জিডিপি নিম্নমুখী ছিল। কিন্তু নোট বাতিলের পর তা হুহু করে নীচের দিকে নামতে শুরু করে। প্রামাণ্য পরিসংখ্যান হিসাবে তিনি লিখেছেন, “নোট বাতিলের আগের ষষ্ঠ ত্রৈমাসিকে জিডিপির গড় হার ছিল ৮ শতাংশ। নোট বাতিলের পর সপ্তম ত্রৈমাসিকে তা ঠেকেছে ৬.৮ শতাংশে”।

গত জুন মাসেই অরবিন্দ সুব্রহ্মণ্যম চার বছর দায়িত্ব পালনের পর পদ ছেড়েছেন। কেন্দ্রে বিজেপির নেতৃত্বে সরকার প্রতিষ্ঠার পর আমেরিকা থেকে ২০১৪-র অক্টোবরে তাঁকে এই পদে নিয়ে আসেন নরেন্দ্র মোদী স্বয়ং। কিন্তু নিজের ব্যক্তিগত কারণে সম্প্রসারিত মেয়াদ শেষের আগেই তিনি ফের আমেরিকা পাড়ি দেন।

পিটারসন ইনস্টিটিউট ফর ইন্টারন্যাশনাল ইকনোমিকসের ফেলো অরবিন্দ অর্থমন্ত্রকে প্রাথমিক ভাবে যোগ দেন তিন বছরের চুক্তিতে। সেই চুক্তি পরবর্তীতে সম্প্রসারিত হয়। কিন্তু ওই দ্বিতীয় দফার মেয়াদ শেষের আগেই ভারত ছাড়েন ৫৯ বছরের তুখোড় অর্থনীতিবিদ অরবিন্দ। চার বছরে মোদী সরকারের উল্লেখয়োগ্য আর্থিক সংস্কারের সঙ্গে ওতপ্রোত ভাবে জড়িয়ে ছিলেন তিনি।

আরও পড়ুন: ঋণ মকুবের দাবি নিয়ে রাজধানীতে পথে এক লক্ষ কৃষক

অরবিন্দ নিজের টুইটারে সরকারের গুরুত্বপূর্ণ পদে কাজ করার অভিজ্ঞতার কথাও তুলে ধরেছেন। তিনি লিখেছেন, “মুখ্য অর্থনৈতিক উপদেষ্টারপদে কাজ করে প্রশংসা পেয়েছি, কাজে সম্পূর্ণতা বেশ উত্তেজনাময়”। তবে তাঁর প্রকাশ হতে যাওয়া বইয়ে নোট বাতিলের প্রবল সমালোচনা রয়েছে বলে মনে করে ওয়াকিবহাল মহল।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here