মকর সংক্রান্তির তাৎপর্য বিস্তৃত। এ দিনটির মাহাত্ম্য নিয়েও কথিত রয়েছে অংসখ্য কাহিনি। এই বিশেষ দিনে গঙ্গা স্নান, উপবাস, পুজো, দান ও সূর্যের উপাসনা ইত্যাদি বিশেষ গুরুত্ব বহন করে। সারা দেশেই দিনটি পালিত হয় বিভিন্ন নামে। জেনে নেওয়া যাক সেগুলিই।

পশ্চিমবঙ্গে এই উৎসব অনেক নামে পরিচিত। ‘পৌষ সংক্রান্তি’, ‘পৌষপার্বণ’ বা ‘নবান্ন’।

বিহার, উত্তরপ্রদেশ ও ঝাড়খণ্ডের বিভিন্ন জায়গায় এই উৎসব ‘খিচড়ি পরব’ নামে খ্যাত।

উত্তর ভারতের বেশ কয়েকটি রাজ্যে একই নামে পরিচিত এই উৎসব। পঞ্জাব, হরিয়ানা, হিমাচল, জম্মুতে এই উৎসব ‘লোহরি’ নামে চালু। আবার এই অঞ্চলে একে ‘মাঘী’ উৎসবও বলা হয়।

কাশ্মীরে এর নাম ‘শায়েন-ক্রাত’।

রাজস্থান ও গুজরাতে এই উৎসবের নাম রাখা হয়েছে ‘উত্তরায়ণ’।

মধ্যপ্রদেশে মকর সংক্রান্তিকে বলা হয় ‘সুকরাত’।

মহারাষ্ট্রে বলা হয় ‘তিলগুল’।

তামিলনাড়ুতে এই উৎসবের নাম ‘পোঙ্গল’।

কর্ণাটকে একে বলা হয় ‘মকর সংক্রমনা’ বা ‘ইল্লু বিল্লা’।

অন্ধ্রপ্রদেশ এবং কেরলে এই উৎসব পশ্চিমবঙ্গের নামেই পরিচিত। ‘মকর সংক্রান্তি’ নামেই পরিচিত।

পূর্ব ভারতের অসমে এই উৎসবের পরিচিতি ‘ভোগালি বিহু’ নামে।

*সমস্ত ছবি সংগৃহীত

আরও পড়তে পারেন: 

মকর সংক্রান্তির সঙ্গে সম্পদলাভের কী যোগ, জানুন বিস্তারিত

মকর সংক্রান্তি বা উত্তরায়ণ কী, জেনে নিন এই দিনের গুরুত্ব

মকর সংক্রান্তিতে বিশ্বব্যাপী সূর্য নমস্কার অনুষ্ঠানের আয়োজন কেন্দ্রের

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন