dishtv
প্রতীকী ছবি

ওয়েবডেস্ক: চ্যানেল প্যাক একবার নেওয়া হয়ে গেলে এক মাসের আগে আর তা বদল করা যায় না। তা ছাড়া প্যাকের মধ্যে একাধিক অপ্রয়োজনীয় চ্যানেলের ভিড়। যা কোনো দিন দেখাই হয় না, তার জন্য টাকা গুনতে হয়। এমন অভিযোগ সকলেরই ছিল। এমনকী ডিশ টিভিও এক মাসের লক ইন পিরিয়ডের বোর্ড ঝুলিয়ে রেখেছিল এই ব্যাপারে। কিন্তু আর থাকবে না। ট্রাই-এর নতুন নিয়ম অনুযায়ী ডিরেক্ট টু হোম সার্ভিসের ক্ষেত্রে এখন আর কোনো ভাবেই এক মাস অপেক্ষা করতে হবে না। কোনো চ্যানেল বন্ধ বা চালু করতে গেলে মাসের মধ্যে যে কোনো সময়ই তা করা যাবে।

ট্রাই-এর নতুন নিয়ম অনুযায়ী এই ব্যবস্থা আসায় খুশি গ্রাহকরা। পরিষেবা দেওয়ার ক্ষেত্রে স্বচ্ছতা আনতে আর গ্রাহকদের স্বাধীনভাবে পছন্দের চ্যানেল বেছে নেওয়ার সুযোগ দিতেই এই নিয়ম এনেছে সংস্থা। এতে করে গ্রাহকদের ইচ্ছা মতো চ্যানেল দেখার সুযোগ যেমন হল, তেমনই কমল চ্যানেল প্যাকের মূল্যও। অপ্রয়োজনীয় চ্যানেলের ভিড় থেকে মুক্তি।

আরও খবর পড়ুন

ট্রাইয়ের চেয়ারম্যান আর এস শর্মা বলেন, গ্রাহকের পছন্দ আর তাঁদের আগ্রহ নিয়ে কোনো রকম দর কষাকষি বা আপস করা যাবে না। এই সমস্যাটি খতিয়ে দেখা হয়েছে। গ্রাহকরা খুবই অখুশি। এই অভিযোগের মূলে ছিল ডিস্ট্রিবিউটারদের ঠিক করা সময়ের বেড়াজাল। এটি সিস্টেম আর সফটওয়্যারের সঙ্গে যুক্ত। এখানে জোর করে গ্রাহকদের ওপর চ্যানেল আর টাকার বোঝা চাপিয়ে দেওয়া হতো। বাধ্য করা হতো। এতে নিয়ন্ত্রণকারী সংস্থার কোনো হাত ছিল না। শীঘ্রই নতুন নিয়ন্ত্রক পরিকাঠামো তৈরি করে পরিষেবার বিষয়টি দেখা হবে।

টাটা স্কাই, এয়ারটেল ডিজিট্যাল, সান ডিরেক্ট-এ এই লক-ইন পিরিয়ড ছিল না। কিন্তু ডিশ টিভিতে ছিল। তা গ্রাহকদের অসুবিধের কারণ হয়ে উঠেছিল। এখন আর সেই সমস্যা রইল না।

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন