Connect with us

দেশ

জীবাণুনাশক টানেলের ভিতর দিয়ে হেঁটে যাওয়ার ফল মারাত্মক হতে পারে, সুপ্রিম কোর্টে জানাল কেন্দ্র

গত এপ্রিল মাসে কেন্দ্র নির্দেশিকা জারি করলেও এখন জীবাণুনাশক টানেল বহাল তবিয়তে বিভিন্ন রাজ্যে।

Published

on

Disinfection Tunnels

খবর অনলাইন ডেস্ক: জীবাণুনাশক টানেল ভাইরাস মারতে পারে না বলে স্পষ্ট করে জানিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। এ ব্যাপারে সুপ্রিম কোর্টে একটি জনস্বার্থ মামলার পরিপ্রেক্ষিতে একই সঙ্গে কেন্দ্র জানিয়ে দেয়, “এ ধরনের পদ্ধতি মানুষের শারীরিক এবং মানসিক ক্ষতির কারণ হয়ে দাঁড়াতে পারে”।

করোনাভাইরাস সংক্রমণ রুখতে দেশের বিভিন্ন শহরে যে জীবাণুনাশক টানেল বসানো হয়েছে। পক্ষান্তরে মানুষের শরীরে জীবাণুনাশক ছড়ানো নিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রকের উদ্দেশে অসংখ্য প্রশ্ন করেন সাধারণ মানুষ। জীবাণুনাশক টানেলের ব্যবহার বন্ধের আর্জি নিয়ে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হন গুরসিমরন সিং নরুলা।

কী বলল কেন্দ্র?

সোমবার শীর্ষ আদালতে কেন্দ্র বলে, “করোনাভাইরাস সংক্রমণ রুখতে ব্যবহৃত জীবাণুনাশক টানেলের ভিতর দিয়ে হেঁটে যাওয়ার ফল মারাত্মক হতে পারে। কারণ, এটা ভাইরাসকে মারতে পারে না, তবে শারীরিক ও মানসিক ক্ষতি করতে পারে”।

বিশেষজ্ঞদের মতামত উল্লেখ করে স্বাস্থ্যমন্ত্রক সলিসিটর জেনারেল তুষার মেহতার মাধ্যমে বিচারপতি অশোক ভূষণ, আরএস রেড্ডি এবং এমআর শাহের একটি বেঞ্চকে জানায়, “কোনো পরিস্থিতিতেই সরকারের তরফে মানুষের উপর জীবাণুনাশক স্প্রে করার পরামর্শ দেওয়া হয়নি। এমনকী, কোনো রাস্তা, বাড়ির বাইরের অংশগুলিতে জীবাণুনাশক স্প্রে করোনোভাইরাসের বিরুদ্ধে কোনো স্পষ্ট প্রভাব ফেলেনি”।

কী বলেছিল কেন্দ্র?

গত এপ্রিল মাসেই নির্দেশিকা জারি করে স্বাস্থ্যমন্ত্রক জানিয়ে দেয়, “মানুষের শরীরে জীবাণুনাশক স্প্রে করবেন না”। বলা হয়, কোনো ব্যাক্তি বা দলের উপর কোনো পরিস্থিতিতেই জীবাণুনাশক স্প্রে করা বাঞ্ছনীয় নয়। কারও উপর এই রাসায়নিক জীবাণুনাশক স্প্রে করলে তাঁর শারীরিক ও মানসিক ক্ষতি হতে পারে”। এই জীবাণুনাশকে সোডিয়াম হাইপোক্লোরিন ব্যবহার করা হয় বলে জানা যায়।

একই সঙ্গে ওই নির্দেশিকায় বলা হয়, শরীরের বাইরে বা জামাকাপড়ে থাকা ভাইরাসকেও পুরোপুরি ধ্বংস করা যায়, এমন কোনো বৈজ্ঞানিক পাওয়া যায়নি।

কী বলল সুপ্রিম কোর্ট?

supreme court

তবে কেন্দ্রের তরফে নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে বলে দাবি করা হলেও দেশের বিভিন্ন জায়গায় এর ব্যবহার সমানে চালু রয়েছে বলে জানা গিয়েছে। সুপ্রিম কোর্ট মেহতার কাছে জানতে চায়, কেন্দ্র যদি গত এপ্রিল মাসেই এ ব্যাপারে নির্দেশিকা জারি করে থাকে, তা হলে রাজ্যগুলি তা মানছে না কেন?

বিচারপতি এমআর শাহ বলেন, গুজরাতের জেলা হাসপাতালগুলিতে এখনও এই পদ্ধতি ব্যবহৃত হচ্ছে। আপনারা (কেন্দ্র) সমস্ত রাজ্যে জীবাণুনাশক টানেলগুলির ইনস্টলেশন বন্ধ করার জন্য নির্দেশিকা এখনই জারি করুন”।

জীবাণুনাশক টানেলের ভিতর দিয়ে হাঁটলে কী হতে পারে?

*স্বাস্থ্যমন্ত্রকের মত, একাধিক রোগের উপসর্গ দেখা দিতে পারে।

*শরীরে জীবাণুনাশক স্প্রে করলে চোখ, মুখ- এমনকী সারা শরীরে চুলকানি হতে পারে।

*ঝিমুনি ভাব অথবা বমি হতে পারে।

আরও পড়তে পারেন: ক্যানসার, হৃদরোগ অথবা ডায়াবেটিসের মতো রোগে প্রতি বছর চার কোটির বেশি মৃত্যু! কোভিডের কারণে তা আরও বাড়তে পারে

Advertisement
Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

দেশ

ভারত এবং বিশ্বের স্বল্প ও মধ্যম আয়ের দেশগুলির জন্য বাড়তি ১০ কোটি ডোজ করোনা ভ্যাকসিন তৈরি করবে সেরাম

যৌথ উদ্যোগের মাধ্যমে সব মিলিয়ে ২০ কোটি ডোজ কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন সরবরাহ করা হবে।

Published

on

সেরাম কর্ণধার আদর পুনাওয়ালা। প্রতিনিধিত্বমূলক ছবি

নয়াদিল্লি: ভারত এবং বিশ্বের স্বল্প এবং মধ্যম আয়ের দেশগুলির জন্য অতিরিক্ত ১০ কোটি ডোজ করোনা ভ্যাকসিন তৈরি করবে ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউট। কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন (Covid-19 vaccine) উৎপাদন সংক্রান্ত কৌশলগত পদ্ধতি সংশোধন করে এই তথ্য প্রকাশ করল সেরাম।

গ্লোবাল অ্যালায়েন্স ফর ভ্যাকসিন অ্যান্ড ইমিউনাইজেশন (গাভি) এবং বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশনের যৌথ উদ্যোগের সঙ্গে সেরামের যে চুক্তি হয়েছে এটি তারই একটি অঙ্গ। এর আগে সেরাম ভারত এবং বিশ্বের স্বল্প এবং মধ্যম আয়ের দেশগুলির জন্য ১০ কোটি ডোজ ভ্যাকসিনের ঘোষণা করেছিল। ফলে নতুন করে তার সঙ্গে আরও ১০কোটি ডোজ যুক্ত হওয়ার পর মিলিত সংখ্যা ২০ কোটিতে পৌঁছাল।

সেরাম ইনস্টিটিউট ইন্ডিয়া (SII) জানায়, “গত আগস্ট মাসে যৌথ ভাবে ঘোষণা করা ১০ কোটি ডোজের সঙ্গে এটি বাড়তি সংযোজন। নতুন সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, যৌথ উদ্যোগের মাধ্যমে সব মিলিয়ে ২০ কোটি ডোজ কোভিড-১৯ (Covid-19) ভ্যাকসিন সরবরাহ করা হবে”।

দাম কত?

ভারতে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্য়ালয়ের (Oxford University) ভ্যাকসিনটির পরীক্ষামূলক প্রয়োগ চালাচ্ছে সেরাম। এর আগে সংস্থার কর্ণধার আদর পুনাওয়ালা ( Adar Poonawalla) একটি সাক্ষাৎকারে জানান,তাঁদের তৈরি কোভিড ভ্যাকসিন কোভিশিল্ডের দাম হতে পারে এক হাজার টাকার আশেপাশে।

তবে যৌথ উদ্যোগে যে ভ্যাকসিন ২০২১ সালে স্বল্প এবং মধ্যম আয়ের দেশগুলিতে সরবরাহ করা হবে, সেগুলির প্রত্য়েকটির দাম সর্বোচ্চ ৩ ডলার বা আড়াইশো টাকার মধ্যে।

পুঁজি চ্যালেঞ্জ!

গত শনিবার  টুইটারে আদর লিখেছিলেন, “সরকারের কাছে ৮০ হাজার কোটি টাকা আছে তো? কারণ, আগামী এক বছরের মধ্যে দেশের সকলের জন্য টিকা কিনতে এই টাকার প্রয়োজন। পরবর্তীতে এই চ্যালেঞ্জই আমাদের মোকাবিলা করতে হবে”। (বিস্তারিত পড়ুন এখানে: দেশবাসীকে দেওয়ার জন্য ভ্যাকসিন কেনার টাকা আছে তো কেন্দ্রের কাছে? প্রশ্ন সেরাম কর্ণধারের)

তবে ওই দিনই রাষ্ট্রসঙ্ঘের সাধারণ অধিবেশনে ভারতে তৈরি ভ্যাকসিন কার্যত গোটা মানবজাতির জন্য উৎসর্গ করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। প্রধানমন্ত্রীর এই দৃষ্টিভঙ্গিকেও স্বাগত জানিয়েছেন সেরাম কর্ণধার। পাশাপাশি তিনি মোদীর উদ্দেশে বলেছেন, “আপনার নেতৃত্ব এবং এই সহযোগিতামূলক দৃষ্টিভঙ্গিকে ধন্যবাদ। এটা পরিষ্কার যে, প্রত্যেক ভারতবাসীর জন্য আপনি প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেবেন”। (বিস্তারিত পড়ুন এখানে: ভারতে তৈরি ভ্যাকসিন নিয়ে গোটা বিশ্বকে আশ্বাস নরেন্দ্র মোদীর, স্বাগত জানালেন সেরাম কর্ণধার)

ভারত এবং বিশ্বের স্বল্প ও মধ্যম আয়ের অন্যান্য দেশে ভ্যাকসিন সরবরাহ প্রসঙ্গে আদর বলেন, “এই পর্যায়ে বিভিন্ন সরকারি, বেসরকারি, বিশ্ব স্বাস্থ্য এবং আর্থিক প্রতিষ্ঠানের একত্রিত হওয়ার প্রয়োজন। কেউ যাতে পিছনে না পড়ে যায়, তা আমাদের নিশ্চিত করতে হবে। মহামারি রুখতে বিশ্বের প্রত্যন্ত অঞ্চলেও ভ্যাকসিন সরবরাহ নিশ্চিত করতে হবে”।

Continue Reading

দেশ

শেষমেশ ভারতে কাজ বন্ধ করল অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল

ভারতে অ্যামনেস্টির সমস্ত অ্যাকাউন্ট ফ্রিজ করার নেপথ্যে কী এমন কারণ রয়েছে?

Published

on

অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল। ফাইল ছবি

নয়াদিল্লি: প্রায় আট বছর ধরে সফল ভাবে কাজ চালিয়ে যাওয়ার পর ভারতে থেকে হাত গুটিয়ে নিল মানবাধিকার সংগঠন অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল। একাধিক বার কেন্দ্রীয় সরকারের তীব্র সমালোচনা করে খবরের শিরোনামে এসেছে মানবাধিকার সংগঠনটি। তবে মঙ্গলবার সংগঠন জানায়, তাদের সমস্ত ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট ‘ফ্রিজ’ হয়েছে।

ইডির তরফে সম্প্রতি সংস্থাটির অ্যাকাউন্টগুলি ফ্রিজ করার পর ভারতে কর্মী ছাঁটাইয়েরও পথ ধরে অ্যামনেস্টি। এ দিন জানিয়ে দেওয়া হয়, ভারতের সমস্ত কর্মীকে কার্যত ছেঁটে ফেলার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

সংগঠনের বিরুদ্ধে কেন্দ্রের অভিযোগ

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের অভিযোগ, আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংগঠনটি বেআইনি ভাবে বিদেশি তহবিল সংগ্রহ করছে। পাশাপাশি ফরেন কনট্রিবিউশন রেগুলেশন আইনে নিজেদের নাম নথিভুক্ত করায়নি অ্যামনেস্টি। ভারতে কোনো সংস্থা যদি বিদেশি অনুদান নিতে চায়, সে ক্ষেত্রে বিদেশি অনুদান (নিয়ন্ত্রণ)আইনে নথিবদ্ধ করা বাধ্যতামূলক।

এই কারণগুলিকে সামনে রেখেই ইডি সংগঠনের ব্যাঙ্ক ফ্রিজ করার পদক্ষেপ নেয় বলে জানা গিয়েছে। সংগঠন অবশ্য কেন্দ্রের অভিযোগ খণ্ডন করে দাবি করেছে, দেশের সমস্ত আইন কানুন মেনেই তারা কাজকর্ম করে।

কেন্দ্রের বিরুদ্ধে সংগঠনের অভিযোগ

একটি প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে অ্যামনেস্টি বলেছে, “ভারত সরকার অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টগুলি ফ্রিজ করেছে। যা গত ১০ ​​সেপ্টেম্বর জানা যায়। মানবাধিকার সংগঠনগুলিকে ইচ্ছাকৃত ভাবে নিশানা করে বারবার আঘাত হেনেছে ভারত সরকার। সেই কারণেই সংগঠনের যাবতীয় কাজকর্ম বন্ধ করতে হয়”।

সংগঠন অভিযোগ করেছে, ভারতে কর্মীদের ছাঁটাই করা এবং চলমান সমস্ত প্রচার এবং গবেষণা কাজ থামিয়ে দিতে কার্যত বাধ্য করা হয়েছে। দ্ব্যর্থহীন ভাষায় সরকারের নানা অনৈতিক ও অমানবিক কাজকর্মের সমালোচনা করার জন্যই ইডি-সহ সরকারের নানা সংস্থার মাধ্যমে হেনস্থা করা হচ্ছে।

নেপথ্য ঘটনা!

গত ফেব্র‌ুয়ারি মাসে দিল্লিতে যে সংঘর্ষ দেখা দিয়েছিল, তার পেছনে সরকারের ভূমিকা নিয়ে রিপোর্ট পেশ করেছিল অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল।

এ প্রসঙ্গে সংগঠনের ভারতীয় শাখার এগজিকিউটিভ ডিরেক্টর অবিনাশ কুমার সংবাদ মাধ্যমের কাছে বলেন, “সাম্প্রতিক কালে দিল্লি সংঘর্ষে তার আগে জম্মু-কাশ্মীরে মানবাধিকার লঙ্ঘন নিয়ে প্রশ্ন তোলা হয়েছিল। অ্যামনেস্টি শুধু অবিচারের বিরুদ্ধে আওয়াজ তুলেছিল। তার জন্য অ্যাকাউন্ট ফ্রিজ-এর মতো ব্যবস্থা নেওয়া অনুচিত”।

এ বিষয়ে ওয়াকিবহাল মহলের প্রশ্ন, দিল্লিতে গোষ্ঠী সংঘর্ষের মতো বেশ কিছু ঘটনায় জেরে কেন্দ্রের নরেন্দ্র মোদী সরকারের সমালোচনা করার কোনো প্রত্যক্ষ যোগসূত্র রয়েছে কি অ্যামনেস্টির অ্যাকাউন্ট ফ্রিজ করার নেপথ্যে?

(আরও পড়তে পারেন: মানবাধিকার সংগঠনগুলিকে অপরাধ চক্রের মতোই দেখছে কেন্দ্র: অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল)

সংগঠন দাবি করেছে, “সম্প্রতি দিল্লি এবং জম্মু-কাশ্মীরে যে ভাবে মানবাধিকার লঙ্ঘন করা হয়েছে, সেই বিষয়ে আমরা নিজেদের রিপোর্ট পেশ করেছি”।

তবে আর যাইহোক, অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের মতো একটি মানবাধিকার সংগঠনের এ ভাবে হাত গুটিয়ে নেওয়ার ঘটনায় আন্তর্জাতিক মহলে ভারত সম্পর্কে নেতিবাচক প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হলেও অবাক হওয়ার কিছু নেই।

অন্তত সংগঠনের শীর্ষকর্তারা যেখানে স্পষ্টতই দাবি করছেন, “অবিচারের বিরুদ্ধে আওয়াজ তুলেই আমাদের আক্রমণের মুখে পড়তে হয়েছে”।

আরও পড়তে পারেন: দু’ সপ্তাহ আগে উত্তরপ্রদেশে গণধর্ষিতা হয়েছিলেন, দিল্লির হাসপাতালে মৃত্যু সেই তরুণীর

Continue Reading

দেশ

র‍্যাপিড অ্যান্টিজেন টেস্টের থেকে আরও দ্রুত এবং সঠিক ভাবে করোনা শনাক্ত করতে পারে ‘ফেলুদা’, বলছেন বিজ্ঞানীরা

এটি করোনা শনাক্তকরণের জন্য আরটি-পিসিআরের একটি সস্তা, দ্রুত এবং সহজ বিকল্প।

Published

on

নমুনা পরীক্ষা। প্রতীকী ছবি

নয়াদিল্লি: র‍্যাপিড অ্যান্টিজেন পরীক্ষার থেকে আরও দ্রুত এবং সঠিক ভাবে কোভিড-১৯ আক্রান্তকে শনাক্ত করতে রং পরিবর্তন করতে পারে ভারতের সিআরআইএসপিআর ‘ফেলুদা’। যে কারণে বিজ্ঞানীরা বলছেন, এটি করোনা শনাক্তকরণের জন্য আরটি-পিসিআরের একটি সস্তা, দ্রুত এবং সহজ বিকল্প হতে পারে।

কী এই ফেলুদা?

একটি বিশেষ ভাবে তৈরি‘পেপার স্ট্রিপ’এর মাধ্যমে কোনো ব্যক্তি কোভিড আক্রান্ত কি না, তা কয়েক মিনিটেই চিহ্নিত করতে পারে এই টেস্ট কিট। সত্যজিৎ রায়ের বিখ্যাত গোয়েন্দা চরিত্র ‘ফেলুদা’র নামেই এটির নামকরণ করা হয়েছে। গত ১৯ সেপ্টেম্বর এই টেস্ট কিটের বাণিজ্যিক ভাবে ব্যবহারের অনুমতি দিল ড্রাগস কন্ট্রোলার জেনারেল অব ইন্ডিয়া (DCGI)।

এটি তৈরি করেছেন দুই বাঙালি বিজ্ঞানী শৌভিক মাইতি ও দেবজ্যোতি চক্রবর্তী। দু’জনেই কাউন্সিল অব সায়েন্টিফিক অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিয়াল রিসার্চ-এর ইনস্টিটিউট অব জেনোমিকস অ্যান্ড ইন্টিগ্রেটিভ বায়োলজি (CSIR-IGIB)-তে কর্মরত।

আইজিআইবি-র ডিরেক্টর অনুরাগ আগরওয়াল আগেই জানান, এটার কাজ একটা সাধারণ রিয়েল টাইম রিভার্স ট্রান্সক্রিপশন-পলিমেরেজ চেন রিঅ্যাকশনের (আরটি-পিসিআর) মতোই শুরু হয়, যা রাইবোনিউক্লিক অ্যাসিড (আরএনএ)-এর এক্সট্রাকশন এবং ডিওক্সাইরিবোনিউক্লিক অ্যাসিডে (ডিএনএ) রূপান্তরিত হয়।

কী ভাবে কাজ করে?

প্রযুক্তিটি জিনের মধ্যে ডিএনএর নির্দিষ্ট সিকোয়েন্সগুলি শনাক্ত করতে পারে। এতে এক ধরনের এনজাইম ব্যবহৃত হয়।

উদ্ভাবক বিজ্ঞানীদের দাবি, খুব কম সময়ের মধ্যে এটি ভাইরাসের জিনগত উপাদান শনাক্ত করতে সক্ষম। এটি আরটি-পিসিআর পরীক্ষার বিকল্প। অত্যন্ত কম সংখ্যক ভাইরাল নিউক্লিক অ্যাসিড (কম ভাইরাল আরএনএ) পাশাপাশি একক নিউক্লিয়োটাইড প্রকরণ শনাক্ত করতে সক্ষম।

দাম কত?

সার্স কোভ-২ ভাইরাস জেনোমিক সিকোয়েন্সকে চিহ্নিত করতেই ‘সিআরআইএসপিআর’ প্রযুক্তির এই পরীক্ষা করা হয়। ঠিক যেমন সাধারণ গর্ভাবস্থা পরীক্ষার (প্রেগনেন্সি কিট) ক্ষেত্রে দেখা যায়। প্রেগন্যান্সি স্ট্রিপের মতোই এ ক্ষেত্রেও করোনা উপস্থিত থাকলে এর রং পরিবর্তন হয়। ফলে করোনা শনাক্ত করার জন্য বহুমূল্যের যন্ত্রপাতির প্রয়োজন পড়ে না।

ফেলুদা মাত্র ৪৫ মিনিটেই নমুনা পরীক্ষার ফল বলে দিতে পারে। এর দাম কিট প্রতি ৫০০ টাকা। ফেলুদার ক্ষেত্রে অন্যতম সুবিধা হল, অনেক দ্রুত কোভিড টেস্টের ফল পাওয়া যাবে। অর্থাৎ, রিপোর্টের জন্যও দীর্ঘসময় অপেক্ষা করতে হবে না। সেই সঙ্গে টেস্টের খরচও অনেক কম। এটি কোভিড রোগ নির্ণয়ের একটি জিনোম এডিটিং প্রযুক্তি।

Continue Reading
Advertisement
Uncategorized12 mins ago

কৃষি বিলের প্রতিবাদে ‘দিল্লি চলো’র ডাক কৃষক সংগঠনের

coronavirus
রাজ্য13 mins ago

রাজ্যের কোভিড-পরিস্থিতি স্থিতিশীল, চিন্তায় রাখছে কলকাতা-উত্তর ২৪ পরগণা

রাজ্য47 mins ago

করোনার মৃদু উপসর্গ থাকলে বাড়িতে থেকে চিকিৎসা করাতে বললেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

বিনোদন1 hour ago

দুর্গার বেশে ধরা দিয়ে খুনের হুমকি পাচ্ছেন নুসরত জাহান, দ্বারস্থ প্রশাসনের

রাজ্য2 hours ago

বদলি প্রক্রিয়া শুরুর দাবিতে বিকাশ ভবন যাচ্ছে শিক্ষক সংগঠন

জলপাইগুড়ি3 hours ago

‘একশো শতাংশ কাজ চাই, ঢিলেমি নয়’, উত্তরকন্যার প্রশাসনিক বৈঠকে স্পষ্ট বার্তা মুখ্যমন্ত্রীর

দেশ4 hours ago

ভারত এবং বিশ্বের স্বল্প ও মধ্যম আয়ের দেশগুলির জন্য বাড়তি ১০ কোটি ডোজ করোনা ভ্যাকসিন তৈরি করবে সেরাম

Mukesh Ambani
শিল্প-বাণিজ্য5 hours ago

লকডাউনের পর থেকে প্রতি ঘণ্টায় মুকেশ অম্বানির আয় ৯০ কোটি টাকা!

দেশ11 hours ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ৭০৫৮৯, সুস্থ ৮৪৮৭৭

দেশ2 days ago

জল্পনার অবসান! নীতীশ কুমারের দলে যোগ দিলেন বিহারের প্রাক্তন ডিজি

Mamata Banerjee
রাজ্য3 days ago

১ অক্টোবর থেকে শর্তসাপেক্ষে খুলছে সিনেমা হল, চালু খেলাধুলো-সহ অন্য সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান

north bengal rain
রাজ্য1 day ago

অতিবৃষ্টির হাত থেকে অবশেষে রেহাই পেল উত্তরবঙ্গ, আপাতত স্বস্তি

দেশ2 days ago

প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী এবং বিজেপি নেতা জসবন্ত সিংহ প্রয়াত

বাংলাদেশ3 days ago

অবৈধ পথে ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিতে গিয়ে নৌকাডুবি, বাংলাদেশি-সহ উদ্ধার ২২

রাজ্য3 days ago

বিজেপির কেন্দ্রীয় সম্পাদকপদ খুইয়ে হুঁশিয়ারি রাহুল সিনহার!

shubhman gill
ক্রিকেট3 days ago

শুভমান গিলের ব্যাটে ভর করে আইপিএলে খাতা খুলল কেকেআর

কেনাকাটা

কেনাকাটা21 hours ago

পছন্দসই নতুন ধরনের গয়নার কালেকশন, দাম ১৪৯ টাকা থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক : পুজোর সময় পোশাকের সঙ্গে মানানসই গয়না পরতে কার না মন চায়। তার জন্য নতুন গয়না কেনার...

কেনাকাটা4 days ago

নতুন কালেকশনের ১০টি জুতো, ১৯৯ টাকা থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক : পুজো এসে গিয়েছে। কেনাকাটি করে ফেলার এটিই সঠিক সময়। সে জামা হোক বা জুতো। তাই দেরি...

কেনাকাটা5 days ago

পুজো কালেকশনে ৬০০ থেকে ১০০০ টাকার মধ্যে চোখ ধাঁধানো ১০টি শাড়ি

খবর অনলাইন ডেস্ক: পুজোর কালেকশনের নতুন ধরনের কিছু শাড়ি যদি নাগালের মধ্যে পাওয়া যায় তা হলে মন্দ হয় না। তাও...

কেনাকাটা1 week ago

মহিলাদের পোশাকের পুজোর ১০টি কালেকশন, দাম ৮০০ টাকার মধ্যে

খবরঅনলাইন ডেস্ক : পুজো তো এসে গেল। অন্যান্য বছরের মতো না হলেও পুজো তো পুজোই। তাই কিছু হলেও তো নতুন...

কেনাকাটা1 week ago

সংসারের খুঁটিনাটি সমস্যা থেকে মুক্তি দিতে এই জিনিসগুলির তুলনা নেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক : নিজের ও ঘরের প্রয়োজনে এমন অনেক কিছুই থাকে যেগুলি না থাকলে প্রতি দিনের জীবনে বেশ কিছু সমস্যার...

কেনাকাটা2 weeks ago

ঘরের জায়গা বাঁচাতে চান? এই জিনিসগুলি খুবই কাজে লাগবে

খবরঅনলাইন ডেস্ক : ঘরের মধ্যে অল্প জায়গায় সব জিনিস অগোছালো হয়ে থাকে। এই নিয়ে বারে বারেই নিজেদের মধ্যে ঝগড়া লেগে...

কেনাকাটা3 weeks ago

রান্নাঘরের জনপ্রিয় কয়েকটি জরুরি সামগ্রী, আপনার কাছেও আছে তো?

খবরঅনলাইন ডেস্ক: রান্নাঘরের এমন কিছু সামগ্রী আছে যেগুলি থাকলে কাজ করাও যেমন সহজ হয়ে যায়, তেমন সময়ও অনেক কম খরচ...

কেনাকাটা3 weeks ago

ওজন কমাতে ও রোগ প্রতিরোধশক্তি বাড়াতে গ্রিন টি

খবরঅনলাইন ডেস্ক : ওজন কমাতে, ত্বকের জেল্লা বাড়াতে ও করোনা আবহে যেটি সব থেকে বেশি দরকার সেই রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা...

কেনাকাটা3 weeks ago

ইউটিউব চ্যানেল করবেন? এই ৮টি সামগ্রী খুবই কাজের

বহু মানুষকে স্বাবলম্বী করতে ইউটিউব খুব বড়ো একটি প্ল্যাটফর্ম।

কেনাকাটা1 month ago

ঘর সাজানোর ও ব্যবহারের জন্য সেরামিকের ১৯টি দারুণ আইটেম, দাম সাধ্যের মধ্যে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: ঘর সাজাতে কার না ভালো লাগে। কিন্তু তার জন্য বাড়ির বাইরে বেরিয়ে এ দোকান সে দোকান ঘুরে উপযুক্ত...

নজরে