nevy

ওয়েবডেস্ক: দেশ জুড়ে ৪ ডিসেম্বর নৌ দিবস পালিত হয়। কেন এই দিনটিকে নৌ দিবস হিসাবে বেছে নেওয়া হল?

ঘটনাটি ১৯৭১ সালের। ঠিক এই দিনে অর্থাৎ ৪ ডিসেম্বর ভারত-পাকিস্তান যুদ্ধের সময় ভারতীয় নৌবাহিনী আক্রমণ করেছিল পাকিস্তানের করাচি বন্দরের ওপর। সে আক্রমণে বীরত্ব আর সাফল্যের পরিচয় দিয়েছিল ভারতীয় নৌবাহিনী। সেই সাফল্যের স্মৃতিতে এই দিনটি পালিত হয়ে আসছে নৌ দিবস হিসাবে।

 nevy

ওই দিন তখন সময় দুপুর দু’টো। করাচি বন্দরে আক্রমণ চালানোর আদেশ পাওয়ামাত্রই গুজরাতের ওখা বন্দর থেকে করাচি বন্দরের দিকে যাত্রা শুরু করে ক্ষেপণাস্ত্রবাহী মাত্র তিনটি ভারতীয় জাহাজ। আইএনএস নিপাত, আইএনএস নির্ঘাত, আইএনএস বীর এই তিনটি ভারতীয় জাহাজ চার চারটি পাকিস্তানি ভেসেলকে ডুবিয়ে দিয়েছিল। এমনকি ধূলিসাৎ করে দিয়েছিল করাচি বন্দরের অনেকাংশই। প্রায় ৫০০ জন পাকিস্তানি নৌসেনা মারা গিয়েছিল।

আরও পড়ুন – একাধিক কর্মসূচির মাধ্যমে জলপাইগুড়িতে পালিত হল বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবস

ভারতীয় নৌবাহিনী হল ভারতীয় সশস্ত্র বাহিনীর একটি শাখা। বর্তমানে ৫৮ হাজার ৩৫০ জন সেনা রয়েছেন এই বাহিনীতে। তা ছাড়া একটি বিমানবাহী জাহাজ, ২৪টি যুদ্ধ জাহাজ, ৮টি ক্ষেপণাস্ত্র ধ্বংসকারী জাহাজ, ১৩টি সাবমেরিন, ১টি নিউক্লিয়ার অ্যাটাক সাবমেরিন, ৩০টি পেট্রোল ভেসেল, বহু সহায়ক জাহাজও রয়েছে। এ ছাড়াও রয়েছে আরও অনেক উন্নত ব্যবস্থাদিও।

 nevy

উল্লেখ্য, সতেরো শতকের ছত্রপতি শিবাজিকে ‘ভারতীয় নৌবাহিনীর পিতা’ আখ্যা দেওয়া হয়।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here