জরায়ু থেকে চিকিৎসকরা বের করলেন বাইকের হ্যান্ডেলের টুকরো, গ্রেফতার স্বামী

প্রতীকী ছবি

ওয়েবডেস্ক: চিকিৎসকেরা অস্ত্রোপচারের পর ৩৬ বছরের এক বিবাহিত মহিলার জরায়ু থেকে বের করলেন বাইকের হ্যান্ডলের প্লাস্টিক দিয়ে তৈরি টুকরো। হাসপাতাল সূত্রে খবর, ওই টুকরোর দৈর্ঘ্য প্রায় ৬ ইঞ্চি। ঘটনার পরই মহিলার অভিযোগের ভিত্তিতে গ্রেফতার করা হয় তাঁর স্বামীকে। যিনি একটি মিউজিক ব্র্যান্ডের সদস্য।

মধ্যপ্রদেশের ইন্দোরের একটি হাসপাতালে ভরতি ওই আদিবাসী মহিলা গত রবিবার অভিযোগ করেন, গত দু’বছর ধরে তিনি স্বামীর অত্যাচারের যন্ত্রণা সহ্য করে আসছেন। অভিযোগ পাওয়ার পরই পুলিশ তদন্তে নেমে অভিযুক্তকে গ্রেফতার করে।

স্থানীয় চন্দননগর থানার ওসি রাহুল শর্মা সংবাদ মাধ্যমের কাছে বলেন, ভোপাল থেকে ২৫১ কিমি দূরে ধর জেলার বাসিন্দা ওই দম্পতি। ১৫ বছর আগে তাঁদের বিয়ে হয়। একটি-দু’টি নয়, ছ’টি সন্তান তাঁদের।

মহিলার অভিযোগ, বছর দুয়ের আগে সন্তানদের নিয়ে ঝগড়া চলছিল স্বামীর সঙ্গে। সে সময় একটি মোটর বাইকের ভাঙা হ্যান্ডেল দিয়ে মহিলার গোপনাঙ্গে আঘাত করতে থাকে হিতাহিতজ্ঞান শূন্য স্বামী। সে সময়ই ওই হ্যান্ডেলের একটি ৬ ইঞ্চি মাপের প্লাস্টিকের টুকরো ঢুকে যায় তাঁর জরায়ুতে। কিন্তু ছেলে-মেয়েদের ভবিষ্যতের কথা ভেবে এবং লজ্জার কারণে সে কথা জানাতে পারেননি কাউকেই।

ওসি জানান, কয়েক মাস পেটে অসহ্য যন্ত্রণা নিয়ে একটি বেসরকারি হাসপাতালে যান মহিলা। সেখানে তাঁকে বলা হয়, অবিলম্বে অস্ত্রোপচারের জন্য এক লক্ষ টাকা জমা করতে হবে। কিন্তু এই বিশাল পরিমাণ টাকার কথা শুনে হাসপাতাল থেকে চলে আসেন। গত রবিবার বিধ্বস্ত অবস্থায় মহিলা আসেন থানায়।

এর পর থানায় অভিযোগ দায়ের করার পরই পুলিশের উদ্যোগে এমওয়াই গভর্নমেন্ট হাসপাতালে তাঁকে ভরতি করিয়ে অস্ত্রোপচার করানো হয়।

[ কাশ্মীরে ফের ধর্ষিতা নাবালিকা ]

অস্ত্রোপচারে পর হাসপাতালের বিভাগীয় প্রধান ডা. আর কে মাথুর জানান, ওই প্লাস্টিকের টুকরো মহিলার জরায়ু, ক্ষুদ্রান্ত এবং মূত্রনালীর ক্ষতি করেছে। একই সঙ্গে তিনি জানান, “চার ঘণ্টার অস্ত্রোপচারে আমরা ওই প্লাস্টিকের টুকরোটিকে বের করেছি। একই সঙ্গে ক্ষতিগ্রস্ত হওয়া অংশগুলিরও চিকিৎসা করা হয়েছে। এখন মহিলা ভালোই আছেন”।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*


This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.