Connect with us

দেশ

প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের ওয়েবসাইট থেকে গায়েব চিনা অনুপ্রবেশ সংক্রান্ত নথি

Published

on

ladakh situation

খবরঅনলাইন ডেস্ক: প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের (Ministry of Defence) ওয়েবসাইট থেকে গায়েব হয়ে গেল চিনা অনুপ্রবেশের নথি। বৃহস্পতিবার সকালে এই ঘটনাটি ঘটেছে।

মে মাসের গোড়ায় গালোয়ানে (Galwan Valley) যে ভাবে চিনা অনুপ্রবেশ ঘটেছিল, সেই সংক্রান্ত নথি বৃহস্পতিবার বিকেলে প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের ওয়েবসাইটে আপলোড করা হয়।

সাইটের ‘হোয়াটস্‌ নিউ’ বিভাগে ‘এলএসি-তে চিনা আগ্রাসন’ শিরোনামে লেখা হয়েছিল, ‘‘২০২০ সালের ৫ মে থেকে লাদাখের নিয়ন্ত্রণরেখা বিশেষত গালওয়ান উপত্যকায় চিনের হানাদারি বাড়ে। মে মাসের ১৭-১৮ তারিখে চিনারা কংরং নালা, গোগরা এবং প্যাংগং লেকের উত্তর পাড়ে এলএসি অতিক্রম করে।’’

এলএসি-তে উত্তেজনা কমাতে দু’ পক্ষের ডিভিশন এবং কোর কমান্ডার স্তরের বৈঠকের উল্লেখও ছিল উধাও হওয়া নথিতে। ছিল ১৫ জুনের গালওয়ান সংঘর্ষ এবং তার পরে ২২ জুন কোর কমান্ডার স্তরের দ্বিতীয় বৈঠক ও কূটনৈতিক স্তরের আলোচনায় মুখোমুখি অবস্থান থেকে ‘সেনা পিছনো’ (ডিসএনগেজমেন্ট) এবং ‘সেনা সংখ্যা কমানো’ (ডিএসক্যালেশন)-র প্রক্রিয়ার বিষয়ে আলোচনার প্রসঙ্গও।

সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির খবর, ওই নথিটিই বৃহস্পতিবার সকালে প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের ওয়েবসাইট থেকে গায়েব হয়ে যায়। সংশ্লিষ্ট লিঙ্কটিও আর কাজ করছে না। মন্ত্রকের এক আধিকারিক আজ সকালে বলেন, ‘‘আমরা এ রকম কাজ করিনি।’’

গালওয়ান সংঘর্ষের চার দিন পরে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী সর্বদল বৈঠকে বলেছিলেন, ‘‘ওখানে (লাদাখ) কেউ আমাদের সীমান্ত পেরিয়ে ঢুকে আসেনি। ওখানে আমাদের এলাকায় কেউ ঢুকেও বসে নেই।’’ এ বার সরকারি ওয়েবসাইট থেকেও মুছে গেল লাদাখে চিনা সেনার অনুপ্রবেশের প্রসঙ্গ।

Advertisement
Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

দেশ

কোভিড-১৯: বুধবারের পর থেকে দেশব্যাপী নমুনা পরীক্ষায় ক্রমশ অবনমন

২৫ আগস্টের পর থেকে দৈনিক সর্বনিম্ন নমুনা পরীক্ষা হয়েছে গত শুক্রবার।

Published

on

নয়াদিল্লি: গত বুধবারের পর সারা দেশ জুড়ে করোনাভাইরাসের (Coronavirus) নমুনা পরীক্ষায় ক্রমশ অবনমন ধরা পড়েছে।

গত শনিবার কেন্দ্রীয় সরকারের পরিসংখ্যান থেকে জানা যায়, ২৪ ঘণ্টায় দেশে টেস্ট হয়েছে ৮ লক্ষ ৮১ হাজার ৯১১টি। দেশে এখনও পর্যন্ত মোট ৬ কোটি ২৪ লক্ষ ৫৪ হাজার নমুনা পরীক্ষা হয়েছে।

তার আগের দিন জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় সারা দেশে ১০ লক্ষ ৬ হাজার ৬১৫টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। দেশে তখনও পর্যন্ত মোট ৬ কোটি ১৫ লক্ষ ৭২ হাজার ৩৪৩টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছিল।

অন্য দিকে বুধবার ২৪ ঘণ্টায় সারা দেশে টেস্ট হয়েছিল ১১ লক্ষ ৩৬ হাজার ৬১৩টি। ওই দিন পর্যন্ত পর্যন্ত মোট ৬ কোটি ৫ লক্ষ ৬৫ হাজার ৭১৮টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছিল।

এই পরিসংখ্যান থেকেই স্পষ্ট, বুধবারের তুলনায় শুক্রবারের নমুনা পরীক্ষা কমে গিয়েছে প্রায় আড়াই লক্ষ বা ২৩ শতাংশ। বৃহস্পতিবারেও হ্রাস পেয়েছিল নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা। বুধবারের তুলনায় ওই দিন দেশব্যাপী নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা হ্রাস পেয়েছিল ১ লক্ষ ২৯ হাজার ৯৯৮টি।

সরকারি পরিসংখ্যান থেকেই দেখা গিয়েছে, ২৫ আগস্টের পর থেকে দৈনিক সর্বনিম্ন নমুনা পরীক্ষা হয়েছে গত শুক্রবার।

বিশেষজ্ঞদের মত, নমুনা পরীক্ষার তুলনায় ভারতে এখন সংক্রমণের হার ৮.৬-৮.৭ শতাংশ। এই হারকে ৫ শতাংশের নীচে নামিয়ে নিয়ে আসতে হবে। কিন্তু একই সঙ্গে বাড়াতে হবে নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা।

প্রসঙ্গত, দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা এক লক্ষের দিকে এগোতে থাকলেও বর্তমানে সেটা কিছুটা পিছিয়ে এসেছে। অন্য দিকে দৈনিক সুস্থতার সংখ্যা কিন্তু এক লক্ষের দিকে এগিয়ে গিয়েছে শনিবার। এক দিনে দেশে সুস্থ হয়েছেন ৯৫ হাজারের বেশি মানুষ। বিস্তারিত পড়ুন এখানে: ৯৫ হাজার! ভারতে এক দিনে রেকর্ড সংখ্যক মানুষ কোভিডমুক্ত, কমল সক্রিয় রোগীর সংখ্যা

নমুনা পরীক্ষার ধরন

ভারতে এখন করোনা টেস্টের জন্য তিন রকমের পরীক্ষা চালু রয়েছে। তবে প্রকৃতিগত ভাবে সেগুলি দু’টি বিভাগের অন্তর্ভুক্ত। একটি ডায়াগনস্টিক টেস্ট এবং অন্যটি অ্যান্টিবডি পরীক্ষা।

ডায়াগনস্টিক টেস্টের মধ্য পড়ে মলিকিউলার টেস্ট। যা আরটি-পিসিআর নামে পরিচিত। এবং অন্যটি অ্যান্টিজেন টেস্ট। মাত্র ১৫ মিনিটে এই পরীক্ষার ফলাফল হাতে পাওয়া যায়।

অ্যান্টিবডি পরীক্ষায় রোগীর রক্তের নমুনায নেওয়া হয়। এত ভাইরাসের সন্ধান করা হয় না। বা ভাইরাসে থাকা প্রোটিনেরও সন্ধান করা হয় না। অ্যান্টিবডি পরীক্ষা এমন অ্যান্টিবডিগুলির সন্ধান করে, যেগুলি সংক্রমণের প্রতিক্রিয়ায় আমাদের প্রতিরোধ ব্যবস্থা গড়ে তোলে।

আরও পড়তে পারেন: আগামী সপ্তাহে পুনেতে শুরু হবে অক্সফোর্ড ভ্যাকসিনের তৃতীয় ধাপের পরীক্ষা

Continue Reading

দেশ

পেঁয়াজবোঝাই ট্রাক ঢুকছে বাংলাদেশে, অর্ধেক নষ্ট হওয়ার আশঙ্কায় ব্যবসায়ীরা

মহারাষ্ট্রের নাসিক থেকে পেঁয়াজবোঝাই ট্রাক ৬ দিন পরে ঘোজাডাঙায় এসেছে এবং সেখানে ৬ দিন ধরে অপেক্ষায় থেকেছে। ফলে অর্ধেক পেঁয়াজ নষ্ট হয়ে গেছে।

Published

on

পেঁয়াজবোঝাই ট্রাক।

নিজস্ব প্রতিনিধি, ঢাকা: ১২ দিন পর ভারত থেকে পেঁয়াজভর্তি ট্রাক প্রবেশ করতে শুরু করেছে বাংলাদেশে। ত্রিপল দিয়ে ঢেকে রাখার কারণে বস্তাবোঝাই পেঁয়াজের অর্ধেকটাই নষ্ট হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা করছেন ব্যবসায়ীরা।

প্রচণ্ড গরমের মধ্যে ভারতের মহারাষ্ট্রের নাসিক থেকে সাতক্ষীরা সীমান্তে আসতে সময় লাগে ৬ দিন। তার পর হঠাৎ রফতানি বন্ধের নির্দেশনায় অপেক্ষা করতে হয়েছে আরও ৬ দিন। অর্থাৎ মোট ১২ দিন ধরে ট্রাকে বস্তাবোঝাই হয়ে রয়েছে পেঁয়াজ।

সাতক্ষীরার পেঁয়াজ আমদানিকারক মোস্তাফিজুর রহমান নাফিন জানালেন, ঘোজাডাঙায় পেঁয়াজবোঝাই তিনশতাধিক ট্রাক ৬ দিন যাবত অপেক্ষায় রয়েছে। মহারাষ্ট্রের নাসিক থেকে পেঁয়াজবোঝাই ট্রাক ৬ দিন পরে ঘোজাডাঙায় এসেছে এবং সেখানে ৬ দিন ধরে অপেক্ষায় থেকেছে। ফলে অর্ধেক পেঁয়াজ নষ্ট হয়ে গেছে।

শনিবার বিকাল নাগাদ সাতক্ষীরার ভোমরা, সোনামসজিদ ও হিলি দিয়ে পেঁয়াজবোঝাই ট্রাক বাংলাদেশে প্রবেশ করতে শুরু করেছে। কিন্তু ব্যবসায়ীদের বিপুল অঙ্কের লোকসান গুণতে হবে। তাঁরা জানান, বিভিন্ন বন্দরে শ’ শ’ ট্রাক আটকে আছে।

এর আগে ভারতের বাণিজ্য মন্ত্রকের পাঠানো এক চিঠিতে পেঁয়াজ রফতানির বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়। চিঠির কথা জানিয়ে সোনামসজিদ স্থলবন্দরের পেঁয়াজ  আমাদানিকারক হারুনুর রশিদ জানান, আগের খোলা ঋণপত্রের বিপরীতে গত ১৩ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত টেন্ডার হওয়া পেঁয়াজই প্রবেশের অনুমতি পাবে।

এ সময় পর্যন্ত কী পরিমাণ পেঁয়াজের টেন্ডার হয়েছে নিশ্চিত ভাবে তা জানা যায়নি। সীমান্তের অপর প্রান্তে বাংলাদেশে প্রবেশের অপেক্ষায় রয়েছে অন্তত পেঁয়াজভরতি দুশো ট্রাক। গরমের কারণে ট্রাকের পেঁয়াজ নষ্ট হচ্ছে বলে অভিযোগ তাঁদেরও।

প্রসঙ্গত, অভ্যন্তরীণ চাহিদা মেটাতে ১৪ সেপ্টেম্বর হঠাৎ পেঁয়াজ রফতানি বন্ধের সিদ্ধান্ত নেয় ভারত সরকার। এর জেরে বাংলাদেশের অসাধু ব্যবসায়ীরা রাতারাতি পেঁয়াজের দাম কেজিপ্রতি ২০ থেকে ৩০ টাকা পর্যন্ত বাড়িয়ে দেয়। যার ফলে  অস্থির হয়ে উঠে দেশের বাজার। আর ভারতীয় পেঁয়াজের দাম বেড়ে যায় কেজিপ্রতি ২০ টাকা পর্যন্ত। প্রতিকেজি বিক্রি হয় ৫৫ থেকে ৬০ টাকায়। অনেক আড়তদার আবার বিক্রিও বন্ধ করে দেন।

খবর অনলাইনে আরও পড়তে পারেন

চার দিনের সম্মেলনে ১৪টি সিদ্ধান্ত, সীমান্ত-হত্যা শূন্যে নামাতে একমত বিজিবি-বিএসএফ

Continue Reading

দেশ

চার দিনের সম্মেলনে ১৪টি সিদ্ধান্ত, সীমান্ত-হত্যা শূন্যে নামাতে একমত বিজিবি-বিএসএফ

পারস্পরিক বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক অটুট রাখতে এবং নিজেদের মধ্যে আস্থা বাড়াতে নানা পদক্ষেপ গ্রহণে সম্মত হয়েছে উভয় দেশের সীমান্তরক্ষা বাহিনী।

Published

on

BSF-BGB Meet
ঢাকায় বিজিবি ও বিএসএফ-এর বৈঠক।

ঋদি হক: ঢাকা

ঢাকায় চার দিনের সীমান্ত-সম্মেলনে ১৪টি গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য সীমান্তে হত্যা শূন্যে নামানো, যৌথ টহল, চোরাচালান ও মানবপাচার প্রতিরোধ ইত্যাদি।

বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি, BJB) ও ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ, BSF) মহাপরিচালক পর্যায়ের ৫০তম সীমান্ত সম্মেলনে নেওয়া এই সব গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্তের কথা যৌথ সাংবাদিক বৈঠকে জানিয়েছেন বিজিবি মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মো. সাফিনুল ইসলাম ও বিএসএফ মহাপরিচালক রাকেশ আস্থানা।

বরাবরের মতো এ বারের সম্মেলনেও সীমান্ত-হত্যার বিষয়টি ছিল আলোচনার প্রধান বিষয়। সাংবাদিক বৈঠকে উভয় বাহিনীর প্রধান সীমান্ত-হত্যা শূন্যের কোটায় নামিয়ে আনতে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ বলে জানান। সীমান্ত সংশ্লিষ্ট নানা বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। পারস্পরিক বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক অটুট রাখতে এবং নিজেদের মধ্যে আস্থা বাড়াতে নানা পদক্ষেপ গ্রহণে সম্মত হয়েছে উভয় দেশের সীমান্তরক্ষা বাহিনী। জানা গেছে, নির্ধারিত আলোচনার বাইরেও অন্য বিষয়েও উন্মুক্ত আলোচনা হয়েছে। দু’ পক্ষই এ বারের সম্মেলনকে সফল বলে আখ্যায়িত করেছেন।

ভারতীয় হাইকমিশন সূত্রে জানা গেছে, প্রাণঘাতী নয়, এমন অস্ত্রই কেবল ব্যবহার করা হবে ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তে। সকল নিরস্ত্র, নিরপরাধ এবং মানবপাচারের শিকার ব্যক্তিকে সংশ্লিষ্ট বাহিনীর সদস্যদের হাতে হস্তান্তর করা হবে। মানসিক প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের জাতীয়তা নির্ধারণে একটি স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিং পদ্ধতি (এসওপি) তৈরির সিদ্ধান্তও হয়েছে। তাৎক্ষণিক গোয়েন্দা তথ্য বিনিময়ের জন্য উভয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী নোডাল কর্মকর্তা নির্বাচন করবে। সুনির্দিষ্ট গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে সীমান্তে পাচারকারীদের বিরুদ্ধে যৌথ অভিযান চালু করতেও রাজি হয়েছে উভয় বাহিনী।

সীমান্তে চোরাচালান সিন্ডিকেটগুলি যে নতুন পদ্ধতি গ্রহণ করছে তার প্রতিক্রিয়া হিসেবে চোরাচালানপ্রবণ এলাকাগুলো চিহ্নিত করা এবং পাচারকারীদের সিন্ডিকেটের তালিকা বিষয়ে তাৎক্ষণিক গোয়েন্দা তথ্য বিনিময় করার বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়েছে।

করোনাকালীন সময়ে সীমান্তে উভয় বাহিনীর সমন্বিত টহল বন্ধ ছিল। দুই বাহিনীর মধ্যে পারস্পরিক আস্থা তৈরি করতে এবং সীমান্তে অপরাধ কমাতে ফের সমন্বিত টহল চালু করা হবে। করোনার প্রভাব কমে আসার পর উভয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর আত্মবিশ্বাস বাড়ানোর ব্যবস্থা এবং প্রশিক্ষণ কার্যক্রমের সিদ্ধান্তও হয়েছে। 

উভয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী গবাদি পশু পাচারকারীদের সহিংস হামলার বিষয়টি স্বীকার করেছেন। ভারতের সীমান্তবর্তী জেলাগুলিতে কোডিন জাতীয় কাশির সিরাপ চোরাচালানের বিরুদ্ধে বিএসএফের নিয়মতান্ত্রিক প্রচারের প্রশংসা করেছে বিজিবি। সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্সের নীতির পুনরাবৃত্তি করে, সুনির্দিষ্ট গোয়েন্দা তথ্য প্রদানের অনুরোধ করেছে এবং বিচ্ছিন্নতাবাদী গোষ্ঠীগুলির (যদি থাকে) বিরুদ্ধে যৌথ অভিযান পরিচালনা করার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে বিজিবির তরফে।

যৌথ নদী কমিশনের অনুমোদন অনুযায়ী বাংলাদেশের সীমান্তবর্তী অঞ্চলে নদী তীরের সমস্ত সুরক্ষা কাজ শেষ করার বিষয়ে একমত হওয়া গেছে। পার্বত্য চট্টগ্রাম অঞ্চলে বিজিবি এয়ার উইংয়ের দু’টি হেলিকপ্টারের অধিকতর ও ট্রেনিং অপারেশনাল ফ্লাইটের বিষয়ে বিএসএফ মহাপরিচালককে অবহিত করেন বিজিবি মহাপরিচালক। যে কোনো ধরনের বিভ্রান্তি বা ভুল বোঝাবুঝি এড়াতে তাঁকে তাঁর বাহিনীর প্রান্তিক পর্যায় পর্যন্ত অবহিত করার অনুরোধ জানান।

বিজিবি মহাপরিচালক সাফিনুল ইসলামের নেতৃত্বে ১৩ সদস্যের বাংলাদেশ প্রতিনিধি দল সম্মেলনে অংশ নেন। বাংলাদেশ প্রতিনিধিদলে বিজিবির অতিরিক্ত মহাপরিচালকরা ও বিজিবি সদর দফতরের সংশ্লিষ্ট স্টাফ অফিসারগণ ছাড়াও প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়, স্বরাষ্ট্র ও বিদেশ  মন্ত্রক, যৌথ নদী কমিশন এবং ভূমি রেকর্ড ও জরিপ অধিদফতরের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা প্রতিনিধিত্ব করেন। বিএসএফ মহাপরিচালক রাকেশ আস্থানার নেতৃত্বে ৬ সদস্যের ভারতীয় প্রতিনিধিদলে ছিলেন বিএসএফ সদর দফতরের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা এবং স্বরাষ্ট্র ও বিদেশ মন্ত্রকের কর্মকর্তারা। সম্মেলন শেষে শনিবার আগরতলার পথে ঢাকা ত্যাগ করেন বিএসএফ প্রতিনিধিদল।

খবর অনলাইনে আরও পড়তে পারেন

১৪ অক্টোবর থেকে ইলিশ প্রজনন ক্ষেত্রে ইলিশ-সহ সব মাছ ধরা ২২ দিন নিষিদ্ধ

Continue Reading
Advertisement
রাজ্য40 mins ago

জাতীয় গড়ের তুলনায় রাজ্যে সুস্থতার হার অনেকটাই বেশি, কেন্দ্রের প্রশংসা

দেশ1 hour ago

কোভিড-১৯: বুধবারের পর থেকে দেশব্যাপী নমুনা পরীক্ষায় ক্রমশ অবনমন

chennai superkings
ক্রিকেট9 hours ago

বদলে যাওয়া আইপিএলের শুরুতেই ‘বদলা’, জয়যাত্রা শুরু ধোনিবাহিনীর

দেশ11 hours ago

পেঁয়াজবোঝাই ট্রাক ঢুকছে বাংলাদেশে, অর্ধেক নষ্ট হওয়ার আশঙ্কায় ব্যবসায়ীরা

partha chatterjee
কলকাতা12 hours ago

ঐতিহ্যবাহী প্রতিভা গ্রন্থাগারের দ্রুত সংস্কারের প্রতিশ্রুতি দিলেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়

BSF-BGB Meet
দেশ12 hours ago

চার দিনের সম্মেলনে ১৪টি সিদ্ধান্ত, সীমান্ত-হত্যা শূন্যে নামাতে একমত বিজিবি-বিএসএফ

Covid situation kolkata
রাজ্য12 hours ago

সংক্রমণের হারকে আরও কিছুটা কমিয়ে রাজ্যে কমল নতুন কোভিড আক্রান্তের সংখ্যা, বাড়ল সুস্থতার হার

দেশ12 hours ago

আগামী সপ্তাহে পুনেতে শুরু হবে অক্সফোর্ড ভ্যাকসিনের তৃতীয় ধাপের পরীক্ষা

দেশ23 hours ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ৯৩৩৩৭, সুস্থ ৯৫৮৮০

covid in kolkata
কলকাতা3 days ago

আগস্টের তুলনায় সেপ্টেম্বরের প্রথম ১৫ দিনে কলকাতায় কমেছে নতুন কোভিডরোগীর সংখ্যা

শিল্প-বাণিজ্য2 days ago

এসবিআই এটিএমে টাকা তোলার নিয়ম বদলে গেল! দেখে নিন ওটিপি-ভিত্তিক পদ্ধতির খুঁটিনাটি বিষয়

কলকাতা3 days ago

কোভিড রুখতে অনলাইন মাধ্যমকে হাতিয়ার করছে কলকাতার একাধিক পুজো

কলকাতা3 days ago

রবীন্দ্র সরোবরে করা যাবে না ছটপুজো, খারিজ কেএমডিএর আবেদন

বিজ্ঞান3 days ago

রাশিয়ার করোনা ভ্যাকসিনে সাত জনের মধ্যে এক জনের শরীরে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া!

Wriddhiman Saha
ক্রিকেট3 days ago

হায়দরাবাদের প্রথম একাদশে কি জায়গা পাবেন ঋদ্ধিমান সাহা?

kolkata knightriders
ক্রিকেট3 days ago

আইপিএলে কলকাতা নাইটরাইডার্সের সেরা প্রথম একাদশ কেমন হতে পারে?

কেনাকাটা

কেনাকাটা18 hours ago

সংসারের খুঁটিনাটি সমস্যা থেকে মুক্তি দিতে এই জিনিসগুলির তুলনা নেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক : নিজের ও ঘরের প্রয়োজনে এমন অনেক কিছুই থাকে যেগুলি না থাকলে প্রতি দিনের জীবনে বেশ কিছু সমস্যার...

কেনাকাটা4 days ago

ঘরের জায়গা বাঁচাতে চান? এই জিনিসগুলি খুবই কাজে লাগবে

খবরঅনলাইন ডেস্ক : ঘরের মধ্যে অল্প জায়গায় সব জিনিস অগোছালো হয়ে থাকে। এই নিয়ে বারে বারেই নিজেদের মধ্যে ঝগড়া লেগে...

কেনাকাটা1 week ago

রান্নাঘরের জনপ্রিয় কয়েকটি জরুরি সামগ্রী, আপনার কাছেও আছে তো?

খবরঅনলাইন ডেস্ক: রান্নাঘরের এমন কিছু সামগ্রী আছে যেগুলি থাকলে কাজ করাও যেমন সহজ হয়ে যায়, তেমন সময়ও অনেক কম খরচ...

কেনাকাটা2 weeks ago

ওজন কমাতে ও রোগ প্রতিরোধশক্তি বাড়াতে গ্রিন টি

খবরঅনলাইন ডেস্ক : ওজন কমাতে, ত্বকের জেল্লা বাড়াতে ও করোনা আবহে যেটি সব থেকে বেশি দরকার সেই রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা...

কেনাকাটা2 weeks ago

ইউটিউব চ্যানেল করবেন? এই ৮টি সামগ্রী খুবই কাজের

বহু মানুষকে স্বাবলম্বী করতে ইউটিউব খুব বড়ো একটি প্ল্যাটফর্ম।

কেনাকাটা3 weeks ago

ঘর সাজানোর ও ব্যবহারের জন্য সেরামিকের ১৯টি দারুণ আইটেম, দাম সাধ্যের মধ্যে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: ঘর সাজাতে কার না ভালো লাগে। কিন্তু তার জন্য বাড়ির বাইরে বেরিয়ে এ দোকান সে দোকান ঘুরে উপযুক্ত...

কেনাকাটা4 weeks ago

শোওয়ার ঘরকে আরও আরামদায়ক করবে এই ৮টি সামগ্রী

খবর অনলাইন ডেস্ক : সারা দিনের কাজের পরে ঘুমের জায়গাটা পরিপাটি হলে সকল ক্লান্তি দূর হয়ে যায়। সুন্দর মনোরম পরিবেশে...

kitchen kitchen
কেনাকাটা1 month ago

রান্নাঘরের এই ৮টি জিনিস কাজ অনেক সহজ করে দেবে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: আজকাল রান্নাঘরের প্রত্যেকটি কাজ সহজ করার জন্য অনেক উন্নত ব্যবস্থা এসে গিয়েছে। তা হলে ঘণ্টার পর ঘণ্টা কষ্ট...

care care
কেনাকাটা1 month ago

চুল ও ত্বকের বিশেষ যত্নের জন্য ১০০০ টাকার মধ্যে এই জিনিসগুলি ঘরে রাখা খুবই ভালো

খবরঅনলাইন ডেস্ক : পার্লার গিয়ে ত্বকের যত্ন নেওয়ার সময় অনেকেরই নেই। সেই ক্ষেত্রে বাড়িতে ঘরোয়া পদ্ধতি অনেকেই অবলম্বন করেন। বাড়িতে...

কেনাকাটা1 month ago

ঘর ও রান্নাঘরের সরঞ্জাম কিনতে চান? অ্যামাজন প্রাইম ডিলে রয়েছে ৫০% পর্যন্ত ছাড়

খবরঅনলাইন ডেস্ক : অ্যামাজন প্রাইম ডিলে রয়েছে ঘর আর রান্না ঘরের একাধিক সামগ্রিতে প্রচুর ছাড়। এই সেলে পাওয়া যাচ্ছে ওয়াটার...

নজরে