‘অভূতপূর্ব’, সবরমতী আশ্রম দেখে প্রতিক্রিয়া ডোনাল্ড ট্রাম্পের

0

অমদাবাদ: মহাত্মা গান্ধীর স্মৃতি বিজড়িত সবরমতী আশ্রম ঘুরে দেখলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও তাঁর স্ত্রী মেলানিয়া। অভিজ্ঞতাটিকে ‘অভূতপূর্ব’ হিসেবে ব্যাখ্যা করেন তাঁরা।

সফরসূচির ব্যস্ততার মধ্যেও মহাত্মা গাঁধীর স্মৃতি বিজড়িত ঐতিহাসিক আশ্রমে রাখেন ট্রাম্পদম্পতি। শুধু আশ্রম ঘুরেই দেখেননি তাঁরা, স্বামী-স্ত্রী পাশাপাশি বসে চরকাও কাটেন সেখানে।

সোমবার বেলা ১১টা ৪০ নাগাদ স্ত্রী মেলানিয়াকে সঙ্গে নিয়ে আমদাবাদে পা রাখেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। তাঁকে স্বাগত জানানোর জন্য বিমানবন্দরেই উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। বিমানবন্দরে ভারতীয় প্রতিনিধিদলের সঙ্গে আলাপচারিতা সেরেই গান্ধী আশ্রমের উদ্দেশে রওনা দেন ডোনাল্ড ট্রাম্প, মেলানিয়া ট্রাম্প এবং নরেন্দ্র মোদী।

আট কিলোমিটার পাড়ি দিয়ে সাবরমতী আশ্রমে পৌঁছন তাঁরা। আশ্রমে ঢোকার আগেই সেখানে উত্তরীয় পরিয়ে তাঁদের স্বাগত জানান প্রধানমন্ত্রী। তার পর পায়ে হেঁটেই আশ্রমের ভিতর পৌঁছোন ট্রাম্প ও মেলানিয়া।

বাকিদের মতো ডোনাল্ড আর মেলানিয়া ট্রাম্পও জুতো খুলে আশ্রমে ঢোকেন। আশ্রমের যে ঘরে মোহনদাস কর্মচন্দ এবং স্ত্রী কস্তুরবা থাকতেন, সেই ‘হৃদয়কুঞ্জ’ ট্রাম্পদম্পতিকে ঘুরিয়ে দেখান মোদী।

বারান্দার এক কোণে রাখা চরকার সামনে ট্রাম্প দম্পতিকে নিয়ে আসেন প্রধানমন্ত্রী। প্রথমে প্রধানমন্ত্রী তাঁদের চরকার তাৎপর্য ব্যাখ্যা করেন। পরে ডেকে নেন এক আশ্রমিককে। তিনি তাঁদের চরকা কী ভাবে কাটে হাতে কলমে বুঝিয়ে দেন।

সব মিলিয়ে সাবরমতী আশ্রমে ১৫-২০ মিনিট কাটান ট্রাম্প ও মেলানিয়া। চরকা কাটার পর নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে আশ্রমের বারান্দায় বসে ছবিও তোলেন তাঁরা। গাঁধীজির বিখ্যাত ‘তিন বাঁদর’-এর একটি শ্বেতপাথরের মূর্তি উপহার হিসেবে তুলে দেন ট্রাম্পকে। মোদী বুঝিয়ে বলেন এর তাৎপর্যও।

আরও পড়ুন মোতেরা থেকে পাকিস্তানকে কড়া বার্তা মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের

তার পর সই করেন ভিজিটর্স বুকে। তাতে ইংরেজিতে ট্রাম্প লেখেন, ‘‘এই অভূতপূর্ব সফরের জন্য আমার মহান বন্ধু প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে ধন্যবাদ।’’ সেখান থেকেই মোতেরা স্টেডিয়ামের উদ্দেশে রওনা দেন তাঁরা।

------------------------------------------------
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.