জালৌন (উত্তরপ্রদেশ) : গাছ খাওয়ার অপরাধে চার দিন জেল খাটতে হল আটটা গাধাকে। শুধু এটুকু শুনলে মনে হওয়ার কথা কেমন যেন হবু রাজা আর গবু মন্ত্রীর দেশে বাস করছি। কিন্তু এর  নেপথ্যে রয়েছে একটা বড়ো অঙ্ক । তা হল টাকার। এই আট মূর্তিমান যে-সে গাছ খেয়ে সাফ করেনি। তাদের পেটে চালান করেছে প্রায় পাঁচ লক্ষ টাকার মূল্যবান গাছগাছড়া। আর সেই অপরাধেই তাদের হাজতবাস। পরে জেল থেকে তাদের মুক্ত করতে আসরে নামতে হল এক বিজেপি নেতাকেও।

ঘটনা, উত্তরপ্রদেশের জালৌনের কাছে উরাই এলাকার গণেশগঞ্জ গ্রামের। উরাই জেলা সংশোধনাগারের হেড কনস্টেবল আরকে মিশ্র বলেন, গত ২৪ নভেম্বর থেকে মঙ্গলবার অবধি চার দিন জেলে ছিল এই গাধার পাল। এরা সংশোধনাগারের বাইরের দামি গাছপালা খেয়ে সাফ করে দিয়েছে। কিছুটা খেয়ে, বাকিটা নষ্ট করে।  মালিক কমলেশকে এ বিষয়ে বেশ কয়েক বার সতর্কও করা হয়েছিল। বলা হয়েছিল তাদের সামলে রাখতে। কিন্তু তাতেও লাভ হয়নি। সে তার পোষ্যদের খুলেই রেখেছিল। সম্প্রতি টানা তিন-চার দিন ধরে তাদের খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিল না। কমলেশ গ্রামবাসীদের মারফত জানতে পারেন, তাঁর ‘নির্বোধ’ পোষ্যের দল উরাই জেলে আটকে রয়েছে।

জেলের অধিকর্তা সীতারাম জানিয়েছেন, এ বার সাময়িক শাস্তি দিয়ে ছেড়ে দেওয়া হলেও শেষ বারের মতো কমলেশকে চরম হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়েছে।  দ্বিতীয় বার এ ধরনের ঘটনার সম্মুখীন হলে কমলেশের বিরুদ্ধে যথাযথ আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 

ওই আধিকারিক বলেন, উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষ বেশ কিছু দামি গাছ জেল চত্ত্বরের ভেতরে পোঁতার জন্য এনে রেখেছিলেন। সেগুলোও খেয়েছে ওই গাধার পাল।

তিনি বলেন, খবর পেয়ে কমলেশ গাধাদের ছেড়ে দেওয়ার জন্য পুলিশকে অনুরোধ করেছিল। কিন্তু তাতে কাজ না হওয়ায় সে স্থানীয় বিজেপি নেতা শক্তি গাহইয়ের কাছে যায়। নেতা তাকে নিয়ে থানায় আসেন। গাধাদের ছাড়িয়ে নেন।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here