arijit

ওয়েবডেস্ক: বিহারের রাজধানী পটনায় গ্রেফতার করা হল কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অশ্বিনী চৌবের পুত্র অর্জিত শাশ্বতকে। অনুমতি না নিয়ে রামনবমীর মিছিল সংগঠিত করার অভিযোগে পুলিশ তাঁকে গত দু’ সপ্তাহ ধরেই খুঁজে বেড়াচ্ছিল। তাঁর বিরুদ্ধে আরও অভিযোগ, গত ১৭ মার্চ আয়োজিত ওই মিছিল থেকেই সাম্প্রদায়িক সংঘর্ষের সৃষ্টি হয়। যদিও সংবাদ মাধ্যমের দাবি, পুলিশ অর্জিতকে খুঁজে পাচ্ছিল না। শনিবার মাঝরাতে সাংবাদিকদের বেষ্টনীর মাঝে পড়ে গেলে পুলিশ অর্জিতকে গ্রেফতার করে।

বিহারের সাম্প্রতিক গোষ্ঠীসংঘর্ষ নিয়ে নীতীশ কুমার সরকারকে বেকায়দায় ফেলে দিয়েছে বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলি। রামনবমী উপলক্ষে বিজেপি ও সহযোগী সংগঠনগুলি যে ভাবে ধর্মীয় প্রথা মেনে চলার নামে হিংসা ছড়িয়েছে, তা নিয়ে তারা তুলোধনা করছে সরকারকে। কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর পুত্র ভাগলপুরের একটি সভা থেকে রামনবমীর সপ্তাহখানেক আগেই ওই ধরনের অশান্তি ছড়ানোর অভিযোগে অভিযুক্ত হয়েছিলেন। তার পর থেকে রাজ্যের বিভিন্ন এলাকায় ওই হিংসা ছড়িয়েছে বলে জানা যায়।

শনিবারই অর্জিত আদালতে গ্রেফতারি পরোয়ানা এড়ানোর জন্য আবেদন করেন। আদালত তা বাতিল করে দেয়। এর পর প্রায় মধ্যরাতে মুখ্যমন্ত্রীর বাসভবন থেকে মাত্র তিনশো মিটার দূরে তাঁকে গ্রেফতার করে পুলিশ। ৩৬ বছরের অরিজিতের গ্রেফতারি নিয়ে সংশয়ে ভুগছিল পুলিশ। রাজনৈতিক চাপের কাছে নতি স্বীকার করে পুলিশ অভিযুক্তের গতিবিধি সম্পর্কে জানলেও তাঁকে যে গ্রেফতার করতে পারছিল না, সে কথা পুলিশকর্তারাও উপলব্ধি করেছেন।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এসপি) রাকেশ দুবে সাংবাদিকদের জানান, “ভাগলপুর থানা গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছিল। এখানে থানার পাশে একটা হনুমান মন্দির থেকে অভিযুক্তকে গ্রেফতার করা হয়েছে। রুটিন মাফিক তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।”

যদিও একটি মহল বলছে, গ্রেফতার নয়, অর্জিত পুলিশের কাছে আত্মসমর্পণ করেছেন

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন