সুপ্রিম কোর্টের পর একই দিনে নিম্ন আদালতেও ধাক্কা খেলেন চিদাম্বরম

0
p chidambaram
প্রতীকী ছবি

নয়াদিল্লি: একই দিনে দু’বার আদালতে ধাক্কা খেলেন প্রাক্তন কেন্দ্রীয়মন্ত্রী পি চিদাম্বরম। প্রথমে সুপ্রিম কোর্ট সরাসরি জানিয়ে দিল, আগাম জামিনের আবেদন আর শুনবে না তারা। আর দিনের শেষে তাঁর সিবিআই হেফাজতের মেয়াদ আরও চার দিনের জন্য বাড়িয়ে দিল নিম্ন আদালত।

গ্রেফতার হওয়ার ঠিক আগে সুপ্রিম কোর্টের যে আগাম জামিনের আর্জি চিদাম্বরম করেছিলেন, তারই শুনানি ছিল এ দিন। শুনানি শেষে বিচারপতি আর ভানুমতির বেঞ্চ জানিয়ে দেয়, চিদাম্বরম যে হেতু গ্রেফতার হয়ে গিয়েছেন, তাই আগাম জামিনের আবেদনের কোনো সারবত্তা এখন আর নেই।

তবে তিনি চাইলে সরাসরি যে জামিনের আবেদন করতে পারেন সে কথাও জানায় শীর্ষ আদালত। কিন্তু তার শুনানি হবে সংশ্লিষ্ট আদালতে। অর্থাৎ সেটা বিশেষ সিবিআই আদালত হতে পারে, বা দিল্লি হাইকোর্ট হতে পারে। 

বিকেলে দিল্লির বিশেষ সিবিআই আদালতে ধাক্কা খেলেন চিদাম্বরম। তাঁর হেফাজতের মেয়াদ শুক্রবার পর্যন্ত বাড়িয়ে দিয়েছে আদালত। তবে সিবিআই পাঁচ দিনের হেফাজত চেয়েছিল। তাদের বক্তব্য ছিল, তদন্তে কোনো সহযোগিতাই করছেন না প্রাক্তন মন্ত্রী। সিবিআইয়ের তরফে সলিসিটর জেনারেল তুষার মেহতা বলেন, “আমরা অভিযুক্তের আরও পাঁচ দিনের হেফাজত চাইছি। কারণ সঠিক ভাবে জেরা করলে আরও বড়ো কোনো দুর্নীতির তথ্য বেরিয়ে আসতে পারে।”

আরও পড়ুন ‘ভারত-পাকিস্তান নিজেদের সমস্যা নিজেরাই মিটিয়ে ফেলতে পারবে,’ ট্রাম্পকে বললেন মোদী

উল্লেখ্য, আইএনএক্স মিডিয়া মামলায় বিদেশি বিনিয়োগে অসঙ্গতির অভিযোগে দিল্লি হাইকোর্ট তাঁর আগাম জামিনের আর্জি খারিজ করার পরই ২১ অগস্ট রাতে নাটকীয় ভাবে চিদম্বরমকে গ্রেফতার করে সিবিআই। পরের দিন বিশেষ সিবিআই আদালতে পেশ করা হলে ২৬ অগস্ট পর্যন্ত তাঁর সিবিআই হেফাজতের নির্দেশ দেন বিচারক। এ দিন তাঁর হেফাজতের মেয়াদ আরও বাড়ল।

যদিও এরই মধ্যে চিদাম্বরমের কাছে কিছুটা স্বস্তির ব্যাপার এই যে, ইডির গ্রেফতারির ব্যাপারে তাঁর ওপর যে রক্ষাকবচ রয়েছে সেটা আরও একদিনের জন্য বাড়িয়ে শীর্ষ আদালত।

------------------------------------------------
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.