arun jaitley corporate tax

নয়দিল্লি: পরবর্তী বাজেটে অবসরভাতা বৃদ্ধি আর মাতৃত্বকালীন ভাতা পুরোদমে চালু করার দাবি জানিয়ে বৃহস্পতিবার অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলিকে চিঠি দিলেন দেশের ৬০ জন অর্থনীতিবিদ। উন্নয়ন-বিশেষজ্ঞ এই অর্থনীতিবিদরা  চিঠিতে বলেছেন, ‘ন্যাশনাল ওল্ড এজ পেনশন স্কিম’ সরকারের খুব ভালো একটা প্রকল্প। এর সাহায্যে সমাজের গরীব মানুষদের খুবই উপকার হয়। কিন্তু এই প্রকল্প খাতে দেয় টাকার পরিমাণ খুবই কম। তাই এই অবসরকালীন ভাতা প্রতিমাসে ২০০ টাকা থেকে বাড়িয়ে মাসে অন্তত ৫০০ টাকা করা হোক। পাশাপাশি বিধবাভাতা মাসে ৩০০ টাকা থেকে বাড়িয়ে অন্ততপক্ষে ৫০০ টাকা করার কথাও বলা হয়েছে। ২০১৬ সালের ৩১ ডিসেম্বর জাতির উদ্দেশ্যে প্রধানমন্ত্রী নরেন্ত্র মোদী বলেছিলেন, খুব শীঘ্রই মাতৃত্বকালীন ভাতা চালু করার হবে। কিন্তু এক বছর পার হতে মাত্র ক’টা দিন বাকি। তার বাস্তবায়ন এখনও হয়নি। তাই ২০১৮-১৯ সালের বাজেটে মাতৃত্বকালীন ভাতা পুরোদমে চালু করারও দাবি জানিয়েছেন তাঁরা।

চিঠিতে বলা হয়েছে, ন্যাশনাল ওল্ড এজ পেনশন স্কিমের অধীনে বয়স্কদের দেয় অর্থের পরিমাণ বৃদ্ধির জন্য উপরি আট হাজার ৬৪০ কোটি টাকা কেন্দ্রীয় সরকারকে বরাদ্দ করতে হবে। পাশাপাশি চিঠিতে এ-ও বলা হয়েছে, বিধবাভাতা বৃদ্ধির জন্য সরকারের বাড়তি বরাদ্দের পরিমাণ হবে এক হাজার ৬৮০ কোটি টাকা।

‘ন্যাশনাল ফুড সিকিউরিটি অ্যাক্ট ২০১৩’ অনুযায়ী মাতৃত্বকালীন সুবিধা বা ভাতা পাওয়ার অধিকার সকলের আছে। এ বিষয়ে চিঠিতে বলা হয়েছে, সকল ভারতীয় নারী এই আইন অনুযায়ী সন্তান পিছু ৬০০০ টাকা করে পাওয়ার অধিকারী। কিন্তু গত তিন বছরেও এই সম্পর্কে সরকার কার্যত কিছুই করে উঠতে পারেনি। সেই অনুযায়ী পরবর্তী বাজেট থেকেই পুরোদমে তা দেওয়ার আবেদন জানান অর্থনীতিবিদরা। এই খাতে সরকারকে অন্ততপক্ষে আট হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ করতে হবে বলেও জানান অর্থনীতিবিদদের এই গোষ্ঠী।

উল্লেখ্য, ‘প্রধানমন্ত্রী মাতৃ বন্দনা যোজনা’ এখনও পর্যন্ত কার্যকর হয়নি।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here