মুম্বইতে অস্ত্রোপচারের দেড় মাসের মধ্যে ২৫০ কেজি ঝরল ইমনের

0

মুম্বই: ২৫ বছর টানা ঘর ছেড়ে বেরোতেই পারেননি। এত দিন পর বেরিয়েছিলেন চিকিৎসার কারণেই। সুদূর মিশর থেকে তাই পাড়ি দেওয়া মুম্বই শহরে। মুম্বই-এর সাইফি হাসপাতালে ইমনের অস্ত্রোপচার হয়েছে মাস দেড়েক আগে। ‘ল্যাপেরোস্কোপিক স্লিভ গ্যাসট্রেকটমি’র পর ৫০০ কেজির ইমন এখন ঝরিয়ে ফেলে হয়েছেন আদ্ধেক। আড়াইশো কিলোতে নেমে ইমন এখন নিয়মিত হুইল চেয়ারে বসতে পারছেন। এক টানা বসেও থাকছেন অনেকক্ষণ।

আরও পড়ুন; ওজন কমাতে মিশর থেকে মুম্বই এসে অস্ত্রোপচার সফল ইমনের

ইমন আব্দ এল আতি। বয়স ৩৭ বছর। জন্মের সময় ওজন ছিল ৫ কিলো। তার পর পরই ধরা পড়ে এলিফ্যান্টিয়াসিস; এমন এক রোগ, যার ফলে হাত পা-এর সঙ্গে সঙ্গে ফুলতে শুরু করে পুরো শরীরটাই। ১১ বছর বয়সে স্ট্রোক হওয়ার পর থেকেই শয্যাশায়ী ছিলেন তিনি। সাইফি হাসপাতালের চিকিৎসক ডঃ লাকদাওয়ালা ইমনের বেরিয়াট্রিক সার্জারি করেছেন মার্চের ৭ তারিখ। তার আগেই অবশ্য ওষুধ খেয়ে ১০০ কেজি কমিয়ে এনেছিলেন ইমন। অতএব বিশ্বের সব চেয়ে বেশি ওজনের মহিলার তকমা ইতিমধ্যেই মুছেছে তাঁর গা থেকে।

আপাতত চিকিৎসকরা জানাচ্ছেন, সামনের ৬ মাস পরীক্ষা-নিরীক্ষামূলক চিকিৎসা আর ওষুধ চলবে ইমনের ওপর। সিটি স্ক্যান মেশিনের ওপর শোয়ানোর জন্য অপেক্ষা করতে হবে আরও কিছু দিন।

আরও পড়ুন; শোভা দে-র এক টুইটেই সার্জারি করে ১৫ কেজি কমালেন মধ্যপ্রদেশের পুলিশ আধিকারিক

ওজন কমানোর জন্য আর কোনো উপায় না থাকলে চূড়ান্ত পর্যায়ে সাহায্য নিতে হয় বেরিয়াট্রিক সার্জারির। সাধারণত বডি-মাস-ইন্ডেক্স ৪০-এর ওপর থাকলে (কিছু ক্ষেত্রে ৩৫) ওজন কমানোর এক মাত্র সম্বল এই সার্জারি, জানালেন ডঃ লাকদাওয়ালা।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here