জম্মু-কাশ্মীর নিয়ে কেন্দ্রকে কড়া নির্দেশ শীর্ষ আদালতের

0
Supreme Court
প্রতীকী ছবি

ওয়েবডেস্ক: যত দ্রুত সম্ভব কাশ্মীর উপত্যকায় স্বাভাবিকতা ফিরিয়ে আনা হোক। এই বিষয়ে কেন্দ্র এবং জম্মু-কাশ্মীর প্রসাশনকে কড়া নির্দেশ দিল সুপ্রিম কোর্ট। পাশাপাশি কাশ্মীরের কংগ্রেস নেতা গুলাম নবি আজাদকেও নবগঠিত এই কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে যাওয়ার অনুমতি দিল আদালত। প্রয়োজনে তিনি নিজেও কাশ্মীরে যেতে পারেন বলে জানিয়েছেন প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ।

সোমবার সুপ্রিম কোর্টে কাশ্মীর নিয়ে একাধিক মামলার শুনানি ছিল। সেই শুনানি শেষেই এই মন্তব্যগুলি করে রঞ্জন গগৈয়ের নেতৃত্বাধীন শীর্ষ আদালতের ডিভিশন বেঞ্চ। গগৈ ছাড়াও এই ডিভিশন বেঞ্চে রয়েছেন বিচারপতি এসএ বোবদে এবং বিচারপতি আবদুল নাজির।

কাশ্মীরের বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে মন্তব্য করতে গিয়ে গগৈ স্পষ্ট করে বলে দেন, “স্বাভাবিক জীবনযাত্রা ফিরিয়ে আনার জন্য যা যা করা উচিত সেটা অবিলম্বে করার জন্য জম্মু-কাশ্মীর প্রসাশনকে আমরা নির্দেশ দিচ্ছি।” সেই সঙ্গে ডিভিশন বেঞ্চ এটাও বলে দেয় যে জাতীয় স্বার্থকে মাথায় রেখেই স্বাভাবিকতা ফিরিয়ে আনতে হবে উপত্যকায়।

এ দিনের শুনানিতে কেন্দ্রের তরফ থেকে বলা হয়, কাশ্মীরে চলতি নিষেধাজ্ঞার জন্য এ বার সেখানে প্রাণহানি ঘটনা কার্যত ঘটেনি। সাধারণ মানুষের নিরাপত্তার কথা মাথায় রেখেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে দাবি করে তারা।

আরও পড়ুন ফারুক আবদুল্লাহ কি বন্দি? কেন্দ্রের কাছে জানতে চাইল সুপ্রিম কোর্ট

পাশাপাশি সুপ্রিম কোর্ট জানিয়েছে, শ্রীনগর, বারামুল্লা, অনন্তনাগ এবং জম্মুতে যেতে পারবেন কংগ্রেসের রাজ্যসভা সাংসদ গুলাম নবি আজাদ। এই প্রসঙ্গে গগৈ বলেন, “তিনি নিজেই জানিয়েছেন, কোনো রাজনৈতিক বক্তব্য রাখবেন না এবং কোনো র‍্যালিরও আয়োজন করবেন না।” সেই সঙ্গে গগৈ বলেন, “যদি প্রয়োজন হয় আমি নিজেও জম্মু-কাশ্মীর যেতে পারি।”

এর আগে কাশ্মীর সংক্রান্ত শুনানি চলাকালীনই প্রবীণ রাজনীতিবিদ ফারুক আবদুল্লাহর বর্তমান অবস্থান সম্পর্কে জানতে চায় শীর্ষ আদালত। এই ব্যাপারে ৩০ সেপ্টেম্বর কেন্দ্রের জবাব জানার জন্য তাদের নোটিশও দিয়েছে শীর্ষ আদালত।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here