আম্বেডকর ভবনে নেই শুধু পশ্চিমবঙ্গ

0
নাগরিক আইনের প্রতিবাদে মিছিলে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রতীকী ছবি

ওয়েবডেস্ক: জাতীয় জনসংখ্যা নিবন্ধক বা এনপিআর নিয়ে কেন্দ্রের ডাকা বৈঠকে অংশ নিচ্ছেন না পশ্চিমবঙ্গের কোনো প্রতিনিধি। শুক্রবার ২০২০ সালের আদমশুমারি এবং অনপিআর নিয়ে আম্বেডকর ভবনে কেন্দ্র-রাজ্য যৌথ বৈঠকের আহ্বান জানিয়েছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক।

মন্ত্রক সূত্রে খবর, বৈঠকের আগেই পশ্চিমবঙ্গের পক্ষ থেকে লিখিত ভাবে কেন্দ্রকে জানিয়ে দেওয়া হয়, রাজ্য থেকে কোনো প্রতিনিধি বৈঠকে অংশ নেবেন না। এ দিন আম্বেডকর ভবনের ওই বৈঠকে বাংলা ব্যতিরেকে প্রায় প্রতিটি রাজ্য থেকেই প্রতিনিধি অংশ নিচ্ছেন বলে আশ্বস্ত করা হয়েছে।

জানা গিয়েছে, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী নিত্যানন্দ রাইয়ের নেতৃত্বে এ দিনের বৈঠকে উপস্থিত থাকবেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রসচিব অজয় ভাল্লা এবং প্রতিটি রাজ্যের মুখ্যসচিব ও আদমশুমারি ডিরেক্টররা। সেখানে এনপিআর প্রক্রিয়ার বিষয়ে রাজ্যগুলির মতামত এবং পরামর্শ নেওয়া হবে।

আধিকারিকরা জানিয়েছেন, এনপিআরের উদ্দেশ্য হল দেশের প্রতিটি সাধারণ বাসিন্দার একটি বিস্তৃত পরিচয় ডেটাবেস তৈরি করা। যে ডেটাবেসে জনসংখ্যার পাশাপাশি বায়োমেট্রিক বিশদ তথ্যও থাকবে।

একই সঙ্গে তাঁরা জানিয়েছেন, বেশিরভাগ রাজ্যগুলি এনপিআর সম্পর্কিত বিধানগুলি অবহিত করেছে, যা দেশের সাধারণ বাসিন্দাদের একটি রেজিস্টার। এটি স্থানীয় (গ্রাম / শহরতলি), উপ-বিভাগীয়, জেলা, রাজ্য ও জাতীয় পর্যায়ে নাগরিকত্ব আইন, ১৯৫৫ এবং নাগরিকত্ব (নাগরিকদের নিবন্ধন এবং জাতীয় পরিচয়পত্রের ইস্যু) বিধি, ২০০৩-এর আইন অনুযায়ী তৈরি করা হচ্ছে।

আইনে নিয়ম লঙ্ঘনকারীদের এক হাজার টাকা পর্যন্ত জরিমানার বিধান রয়েছে। উল্লেখ্য, বিতর্কিত নাগরিকত্ব সংশোধন আইন (সিএএ) নিয়ে তীব্র ক্ষোভের মধ্যে এনপিআর মহড়ার বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে কেন্দ্র।

আরও পড়ুন: এনপিআর নিয়ে কেন্দ্রের ইঙ্গিতে আরও ধোঁয়াশা?

সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন (সিএএ) নিয়ে বিক্ষোভের পাশাপাশি প্রস্তাবিত সারা দেশব্যাপী জাতীয় নাগরিকপঞ্জী (এনআরসি) নিয়ে জল্পনা ছড়িয়েছে। এমনটাও দাবি করা হচ্ছে, এনআরসির আগাম প্রক্রিয়া এই এনপিআর। যে কারণে এনপিআর-এর বিরোধিতায় রাজ্য এই সংক্রান্ত মহড়া প্রক্রিয়া বন্ধের সরকারি বিজ্ঞপ্তি জারি করে পশ্চিমবঙ্গ।

------------------------------------------------
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.