Connect with us

দেশ

“১৫ আগস্টেই বাজারে আসবে, তবে ২০২১-এ,” কোভ্যাক্সিন নিয়ে সরকারি সময়সীমার তীব্র নিন্দা বিশেষজ্ঞদের

খবরঅনলাইন ডেস্ক: গত সোমবারই, ভারতে তৈরি প্রথম করোনা-ভ্যাকসিন ‘কোভ্যাক্সিন’ (Covaxin) এর মানবশরীরে পরীক্ষানিরীক্ষা চালানোর জন্য ভারত বায়োটেককে ছাড়পত্র দিয়েছিল ড্রাগ কন্ট্রোলার জেনারেল অব ইন্ডিয়া (ডিসিজিআই)। তার চার দিনের মাথায় আইসিএমআর (ICMR) জানিয়ে দিল, তারা চায় ১৫ আগস্ট এই টিকাটিকে বাজারজাত করতে।

দেশের যে ১২টি প্রতিষ্ঠানে কোভ্যাক্সিনের পরীক্ষানিরীক্ষা চালানো হবে, সেই প্রতিষ্ঠানগুলিতে চিঠি দেন আইসিএমআরের ডিরেক্টর ডঃ বলরাম ভার্গব।

সে সব স্বেচ্ছাসেবকের ওপরে এই টিকার পরীক্ষামূলক প্রয়োগ হবে, ৭ জুলাইয়ের মধ্যে তাদের নাম নথিভুক্ত করার নির্দেশ দিয়েছে আইসিএমআর। আইসিএমআর জানিয়েছে, কোভিডের (Covid 19) মতো সংক্রমণ রুখতে ও দ্রুত প্রতিষেধক বাজারে আনার তাগিদে ওই সংস্থাগুলিকে সমস্ত প্রয়োজনীয় ছাড়পত্র দ্রুত জোগাড় করে কাজ শুরু করতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

ভার্গব চিঠিতে লিখেছেন, প্রকল্পটির নজরদারি চলছে সরকারের একেবারে শীর্ষ স্তর থেকে। নির্দেশ না মানলে কঠোর মনোভাব নেবে সরকার।

মানবশরীরে প্রয়োগ করার ছাড়পত্র পাওয়ার মাত্র দু’ মাসের মধ্যে কোনো টিকা বাজারে চলে এল, এই ধরনের ঘটনা আগে কখনও ঘটেনি। আর এটা কার্যত অসম্ভব বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা।

ইন্ডিয়ান জার্নাল অব মেডিক্যাল এথিক্সের সম্পাদক অমর জেসানি এই প্রসঙ্গেই বলেন, “মানবশরীরে প্রয়োগ শুরু হওয়ার আগেই বাজারে নিয়ে আসার সম্ভাব্য তারিখ ঘোষণা করে দেওয়া হল। আমি জানি না, এই ধরনের ঘটনা বিশ্ব আর কখনও ঘটেছে কি না। বিজ্ঞান এ ভাবে কাজ করে না।”

ভার্গবের এই চিঠির প্রসঙ্গে আইসিএমআরেরই এক কর্তা বসন্ত মুতুস্বামী বলেন, “আমার নিজের অভিজ্ঞতা বলছে টিকাকে বাজারে নিয়ে আসার জন্য এত কম সময়সীমা দেওয়া যায় না।”

যে সব চিকিৎসকের তত্ত্বাবধানে এই টিকাটি মানবশরীরে প্রয়োগ করা হবে, তাঁরাও বলছেন এই সময়সীমা আদৌ বাস্তববাদী নয়।

‘এটা মানবশরীরে প্রয়োগ করতে হবে, কোনো জীবজন্তুর শরীরে নয়’

যে ১২টি প্রতিষ্ঠান এই পরীক্ষা চালাবে, তাদের মধ্যে ৭টা প্রতিষ্ঠান এখনও স্বাধীন নীতি কমিটির (Independent Ethics Committee) কোনো ছাড়পত্রই জোগাড় করতে পারেনি। এই ছাড়পত্র না পেলে মানবশরীরে প্রয়োগ করার কাজটি শুরুই করা যায় না।

এই ১২টি প্রতিষ্ঠানের অন্যতম ভুবনেশ্বরের ইন্সটিটিউট অব মেডিক্যাল সায়ান্সেস। সেখানকার চিকিৎসক, তথা এই পরীক্ষানিরীক্ষার দায়িত্বে থাকা ডঃ বেঙ্কট রাও বলেন, “যে যা-ই বলুক, আমি নীতি কমিটির ছাড়পত্র না পেলে এক চুলও এগোবো না।”

তিনি যোগ করেন, “আমার কোনো অনমনীয় মনোভাব নেই। কিন্তু আমি বলছি, সব নিয়ম পরিষ্কার ভাবে পালন করে তবেই আমি এগোব। আমার প্রাথমিক উদ্দেশ্য হল কারও কোনো ক্ষতি করা যাবে না।”

আরও একটি প্রতিষ্ঠানের এক কর্তা বলেন, “এটা বিজ্ঞানসম্মত কোনো চিঠিই নয়। নীতি কমিটি ছাড়পত্র না দিলে ৭ জুলাই কেন, ৭ ডিসেম্বরও মানবশরীরে প্রয়োগ করার পরীক্ষা শুরু করতে পারব না। প্রধানমন্ত্রী হস্তক্ষেপ করলেও প্রোটোকল থেকে সরতে পারব না। এটা মানবশরীরে প্রয়োগ করতে হবে, জীবজন্তুর শরীরে নয়।”

এখনও পর্যন্ত যে ৫টি প্রতিষ্ঠান এই ছাড়পত্র জোগাড় করেছে, তাদের মধ্যে চারটেই বেসরকারি প্রতিষ্ঠান। এর মধ্যে একটি, কর্নাটকের বেলগাঁওয়ের জীবনরেখা হাসপাতাল। সরকারি সময়সীমা মানার ব্যাপারে এই হাসপাতালের কর্তৃপক্ষ যথেষ্ট আশাবাদী।

হাসপাতালের এক কর্তা বলেন, “১৫ আগস্টের মধ্যে সব কাজ শেষ হবে বলে আমরা আশাবাদী। সরকার যদি একটা তারিখ নির্দিষ্ট করে থাকে, নিশ্চয় তারা কিছু ভেবেচিন্তেই করেছে।”

তিন ধাপে মানবশরীরে প্রয়োগ করা হয়

অনেক প্রতিষ্ঠানই এই সময়সীমা নিয়ে প্রশ্ন তুলতে শুরু করে দিয়েছে। প্রথমত, ৭ জুলাইয়ের মধ্যে স্বেচ্ছাসেবকদের নথিভুক্ত করা কোনো ভাবেই সম্ভব নয় বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন লখনউয়ের কিং জর্জ হাসপাতালের এক কর্তা। তাঁর কথায়, “আদৌ আমরা এই সময়ের মধ্যে ছাড়পত্র (নীতি কমিটির) পাই কি না, সেটাই দেখার।”

সেই ছাড়পত্র যদিও বা পাওয়া যায়, ১৫ আগস্টের মধ্যে মানবশরীরে পরীক্ষার ফল, অর্থাৎ ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের ফল কোনো ভাবেই প্রকাশ করা যাবে যাবে না, এমনই জানাচ্ছেন ওই কর্তা। এই ১২টি প্রতিষ্ঠানে মোট ১১২৫ জনের শরীরে এই টিকা পরীক্ষামূলক ভাবে প্রয়োগ করার কথা।

সাধারণত তিনটে ধাপে একটি নতুন টিকার মানবশরীরে প্রয়োগের পরীক্ষা চালানো হয়। প্রথম ধাপে, অল্প সংখ্যক স্বেচ্ছাসেবকের ওপরে এই টিকা প্রয়োগ করা হয়। টিকাটি কতটা নিরাপদ, সেটা দেখা হয়। দ্বিতীয় ধাপে, স্বেচ্ছাসেবকদের সংখ্যা অনেকটাই বাড়ে। সেখানে দেখা হয়, এই ভ্যাকসিনের কারণে নির্দিষ্ট রোগের প্রতিরোধ ক্ষমতা মানবশরীরে তৈরি হচ্ছে কি না।

এর পর আসে তৃতীয় ধাপ। এই ধাপে বিপুল সংখ্যক মানুষের ওপরে এই টিকা প্রয়োগ করা হয়। সেই পরীক্ষা সফল হলে তবেই তা বাজারজাত করার ছাড়পত্র দেওয়া হয়।

বর্তমানে অক্সফোর্ডের তৈরি করোনার টিকাটির তৃতীয় ধাপের পরীক্ষানিরীক্ষা চলছে। আগামী মাসে মার্কিন সংস্থা মডার্নার টিকাটির তৃতীয় ধাপের পরীক্ষা শুরু হবে।

এ দিকে কোভ্যাক্সিনের ক্ষেত্রে তৃতীয় ধাপের পরীক্ষার কোনো উল্লেখই কোথাও করা নেই!

এই প্রসঙ্গেই একটি সরকারি প্রতিষ্ঠানের এক বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক বলেন, “১৫ আগস্টের মধ্যে প্রথম ধাপের পরীক্ষাই শেষ হবে না।” আরও চাঁচাছোলা ভাষায় তাঁর বক্তব্য, “আমার মনে হয়, ওঁরা ঠিক তারিখটাই (১৫ আগস্ট) বলেছে, কিন্তু বছরটা লিখতে ভুল করেছে। ওটা ২০২১ হবে।”

Advertisement
Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

দেশ

চেন্নাইয়ে মজুত প্রচুর টন অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট, বেইরুটের ভয়াবহতায় বাড়ছে আতঙ্ক

২০১৫ থেকে চেন্নাই বন্দরে মজুত রয়েছে এই পরিমাণ অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট। শুল্ক দফতরের তত্বাবধানে রয়েছে এটি।

খবরঅনলাইন ডেস্ক: প্রশাসনের চূড়ান্ত গাফিলতিতে ভয়াবহ ঘটনা ঘটে গিয়েছে লেবাননের রাজধানী বেইরুটে। ২,৭০০ টন অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট বিস্ফোরিত হয়েছে। শহরের একটা অংশ কার্যত ধ্বংস হয়ে গিয়েছে।

বেইরুটের এই ঘটনার পর এ বার আতঙ্ক বাড়ছে চেন্নাইয়ে। কারণ এই শহরে মজুত রয়েছে ৭০০ টন অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট।

২০১৫ থেকে চেন্নাই বন্দরে মজুত রয়েছে এই পরিমাণ অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট। শুল্ক দফতরের তত্বাবধানে রয়েছে এটি। দফতরের আধিকারিকরা জানান, পাঁচ বছর আগে এই বিপুল পরিমাণ অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট বাজেয়াপ্ত করেছিল চেন্নাই বন্দর কর্তৃপক্ষ।

তামিলনাড়ুর শিবকাশীকে দেশের আতসবাজির রাজধানী বলা হয়। সেখানে বাজি তৈরির জন্যই ওই বিস্ফোরক পদার্থ নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল। কিন্তু তখন সঠিক ভাবে কাগজপত্র দেখানো হয়নি বলে সেগুলিকে বন্দরেই আটকে দেয় কর্তৃপক্ষ।

তবে বন্দর কর্তৃপক্ষের দাবি, বর্তমানে এই অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট বন্দরে নেই, শুল্ক দফতরের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে।

এই খবরটি জানাজানি হওয়ার পরেই চেন্নাইয়ে আতঙ্ক ছড়িয়েছে। যে কোনো দিন যে কোনো ধরনের ভয়াবহ দুর্ঘটনার আশঙ্কা রয়েই যায়। এই ব্যাপারে টুইট করে পিএমকে প্রধান অম্বুমনি রামাডস বলেন, “বড়ো ধরনের বিপর্যয়ের আশঙ্কা রয়েই যায়। এই ঘটনা যাতে না হয়, সে কারণে অবিলম্বে এই বিস্ফোরককে অন্য কাজে ব্যবহার করা উচিত।”

Continue Reading

দেশ

প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের ওয়েবসাইট থেকে গায়েব চিনা অনুপ্রবেশ সংক্রান্ত নথি

খবরঅনলাইন ডেস্ক: প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের (Ministry of Defence) ওয়েবসাইট থেকে গায়েব হয়ে গেল চিনা অনুপ্রবেশের নথি। বৃহস্পতিবার সকালে এই ঘটনাটি ঘটেছে।

মে মাসের গোড়ায় গালোয়ানে (Galwan Valley) যে ভাবে চিনা অনুপ্রবেশ ঘটেছিল, সেই সংক্রান্ত নথি বৃহস্পতিবার বিকেলে প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের ওয়েবসাইটে আপলোড করা হয়।

সাইটের ‘হোয়াটস্‌ নিউ’ বিভাগে ‘এলএসি-তে চিনা আগ্রাসন’ শিরোনামে লেখা হয়েছিল, ‘‘২০২০ সালের ৫ মে থেকে লাদাখের নিয়ন্ত্রণরেখা বিশেষত গালওয়ান উপত্যকায় চিনের হানাদারি বাড়ে। মে মাসের ১৭-১৮ তারিখে চিনারা কংরং নালা, গোগরা এবং প্যাংগং লেকের উত্তর পাড়ে এলএসি অতিক্রম করে।’’

এলএসি-তে উত্তেজনা কমাতে দু’ পক্ষের ডিভিশন এবং কোর কমান্ডার স্তরের বৈঠকের উল্লেখও ছিল উধাও হওয়া নথিতে। ছিল ১৫ জুনের গালওয়ান সংঘর্ষ এবং তার পরে ২২ জুন কোর কমান্ডার স্তরের দ্বিতীয় বৈঠক ও কূটনৈতিক স্তরের আলোচনায় মুখোমুখি অবস্থান থেকে ‘সেনা পিছনো’ (ডিসএনগেজমেন্ট) এবং ‘সেনা সংখ্যা কমানো’ (ডিএসক্যালেশন)-র প্রক্রিয়ার বিষয়ে আলোচনার প্রসঙ্গও।

সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির খবর, ওই নথিটিই বৃহস্পতিবার সকালে প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের ওয়েবসাইট থেকে গায়েব হয়ে যায়। সংশ্লিষ্ট লিঙ্কটিও আর কাজ করছে না। মন্ত্রকের এক আধিকারিক আজ সকালে বলেন, ‘‘আমরা এ রকম কাজ করিনি।’’

গালওয়ান সংঘর্ষের চার দিন পরে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী সর্বদল বৈঠকে বলেছিলেন, ‘‘ওখানে (লাদাখ) কেউ আমাদের সীমান্ত পেরিয়ে ঢুকে আসেনি। ওখানে আমাদের এলাকায় কেউ ঢুকেও বসে নেই।’’ এ বার সরকারি ওয়েবসাইট থেকেও মুছে গেল লাদাখে চিনা সেনার অনুপ্রবেশের প্রসঙ্গ।

Continue Reading

দেশ

ফিরল নির্ভয়াকাণ্ডের স্মৃতি, দিল্লিতে ধর্ষণের পর মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে ১২ বছরের কিশোরী

এখনও কোনো আসার কথা শোনাতে পারেননি চিকিৎসকরা। কে বা কারা এই ঘটনা ঘটিয়েছে, সে বিষয়ে কোনো ধারণাই করতে পারছ না ওই কিশোরীর পরিবারের সদস্যরা।

Child Rape

খবরঅনলাইন ডেস্ক: নির্ভয়াকাণ্ডে দোষীদের কয়েক মাস আগেই ফাঁসি হয়েছে। কিন্তু তাতে যে কাজের কাজ কিছুই হয় না, সেটা আরও একবার বোঝা গেল। আবার সেই দিল্লিতেই নৃশংসতার শিকার হল ১২ বছরের এক কিশোরী।

ওই নাবালিকার উপর যৌন অত্যাচার চালিয়ে তাকে খুনের চেষ্টা করল অপরাধীরা। দিল্লির এইমসের (AIIMS) এখন সে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে। এখনও পর্যন্ত অভিযুক্তদের কারও খোঁজ পায়নি পুলিশ। পকসো (POCSO Act) আইনে মামলা দায়ের করে শুরু হয়েছে তদন্ত। ঘটনায় তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল।

রাজধানীর পশ্চিম বিহারের বাসিন্দা এই নাবালিকা। মা, বাবা, দিদির সঙ্গে থাকত সে। তাঁরা সকলেই একটি কাপড়ের কারখানায় কাজ করেন। বুধবার দুপুরের সে বাড়িতে একা থাকার সুযোগে জনা কয়েক দুষ্কৃতী ঢুকে পড়ে। চলে লাগাতার যৌন অত্যাচার।

পরিবারের সদস্যরা বাড়ি ফিরে মেয়েটিকে মেঝেতে শুয়ে কাতরাতে দেখেন। রক্তে ভেসে যাচ্ছিল সে। পরিবারের সদস্যদের বয়ান অনুযায়ী, যৌন অত্যাচারের পর তাকে খুনের চেষ্টা করা হয়েছিল। মাথায়, মুখে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপানোর চিহ্ন মিলেছে।

এই অবস্থায় সঙ্গে সঙ্গে নাবালিকাকে উদ্ধার করে প্রথমে নিকটবর্তী সঞ্জয় গান্ধী মেমোরিয়াল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখান থেকে এইমসে নিয়ে যাওয়া হয় ওই কিশোরীকে।

এখনও কোনো আসার কথা শোনাতে পারেননি চিকিৎসকরা। কে বা কারা এই ঘটনা ঘটিয়েছে, সে বিষয়ে কোনো ধারণাই করতে পারছে না ওই কিশোরীর পরিবারের সদস্যরা।

বৃহস্পতিবার এই ঘটনায় তীব্র প্রতিক্রিয়া দিয়েছেন কেজরিওয়াল। টুইটে এ দিন তিনি বলেন, “এই ঘটনা আমাকে পুরোপুরি ভাবে নাড়িয়ে দিয়েছে। দোষীরা স্বাধীন ভাবে চলাফেরা করলে সেটা সহ্য করতে পারব না।”

এর পর এইমসে ওই কিশোরীকে দেখতে যান তিনি। সেখানে বলেন, “ওর শারীরিক অবস্থা এখনও সংকটজনক। অপারেশন হয়েছে। ২৪ থেকে ৪৮ ঘণ্টা না গেলে কিছুই বলা যাবে না।”

পশ্চিম দিল্লি পুলিশের জয়েন্ট কমিশনার জানিয়েছেন, ঘটনার খবর পেয়েই তাঁরা তদন্তে নেমেছেন। ওই এলাকার সিসিটিভি ফুটেজ জোগাড় করে তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। দুষ্কৃতীরা এলাকার মধ্যেই গা-ঢাকা দিয়েছে বলে অনুমান তাঁর।

দ্রুত তাদের গ্রেফতার করার আশ্বাস দিয়েছেন ওই পুলিশ আধিকারিক। তবে এই ঘটনা আবার প্রমাণ করে দিয়ে গেল যে দিল্লির আইনশৃঙ্খলা ব্যবস্থা ২০১২ সালে যে রকম ছিল, এখনও সেই রকমই রয়েছে।

Continue Reading
Advertisement
দেশ20 mins ago

চেন্নাইয়ে মজুত প্রচুর টন অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট, বেইরুটের ভয়াবহতায় বাড়ছে আতঙ্ক

বিজ্ঞান24 mins ago

করোনা রোগীর মৃত্যুর ঝুঁকি কমাতে প্লাজমা থেরাপির কোনো ভূমিকা নেই, বলেছে এইমসের অন্তর্বর্তী বিশ্লেষণ

কেনাকাটা36 mins ago

এই ১০টির মধ্যে আপনার প্রয়োজনীয় প্রোডাক্টটি প্রাইম ডে সেলে কিনতে পারেন

দেশ38 mins ago

প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের ওয়েবসাইট থেকে গায়েব চিনা অনুপ্রবেশ সংক্রান্ত নথি

Child Rape
দেশ58 mins ago

ফিরল নির্ভয়াকাণ্ডের স্মৃতি, দিল্লিতে ধর্ষণের পর মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে ১২ বছরের কিশোরী

দেশ1 hour ago

দেশের একাধিক রাজ্যে বৃষ্টি-বিপর্যয়, দুর্গত মানুষের হাহাকার

রাজ্য1 hour ago

বেসরকারি বাস-মিনিবাসের একাধিক কর মকুব করল নবান্ন

দেশ2 hours ago

হাইকোর্টে সাময়িক স্বস্তি অশোক গহলৌতের

দেশ9 hours ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ৫৬২৮২, সুস্থ ৪৬১২১

গাড়ি ও বাইক1 day ago

পেট্রোলচালিত গাড়ি ‘এস-ক্রস’ বাজারে নিয়ে এল মারুতি সুজুকি

ক্রিকেট1 day ago

আইপিএলের নিয়মাবলি: গুচ্ছের টেস্টিং, চলা-ফেরায় নিয়ন্ত্রণ, একটি দলের জন্য একটি হোটেল

ক্রিকেট1 day ago

অঘটন! ৩২৯ তাড়া করে বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের হারাল আয়ারল্যান্ড

দেশ1 day ago

রুপোর ইট দিয়ে রামমন্দিরের শিলান্যাস করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী

ক্রিকেট2 days ago

বিতর্কের মধ্যেই আইপিএলের সঙ্গত্যাগ করল চিনা সংস্থা ভিভো

রাজ্য3 days ago

লকডাউনের সূচি ফের বদলাল রাজ্যে

প্রযুক্তি1 day ago

শাওমি, বাইডু-সহ আরও বেশ কয়েকটি চিনা সংস্থার অ্যাপ নিষিদ্ধ করল কেন্দ্র

রবিবারের খবর অনলাইন

কেনাকাটা

কেনাকাটা36 mins ago

এই ১০টির মধ্যে আপনার প্রয়োজনীয় প্রোডাক্টটি প্রাইম ডে সেলে কিনতে পারেন

খবরঅনলাইন ডেস্ক : চলছে অ্যামাজনের প্রাইমডে সেল। প্রচুর সামগ্রীর ওপর রয়েছে অনেক ছাড়। ৬ ও ৭  তারিখ চলবে এই সেল।...

কেনাকাটা18 hours ago

শুরু হল অ্যামাজন প্রাইম ডে সেল, জেনে নিন কোন জিনিসে কত ছাড়

খবরঅনলাইন ডেস্: শুরু হল অ্যামাজন প্রাইম ডে সেল। চলবে ২ দিন। চলতি মাসের ৬ ও ৭ তারিখ থাকছে এই অফার।...

things things
কেনাকাটা6 days ago

করোনা আতঙ্ক? ঘরে বাইরে এই ১০টি জিনিস আপনাকে সুবিধে দেবেই দেবে

খবরঅনলাইন ডেস্ক : করোনা পরিস্থিতিতে ঘরে এবং বাইরে নানাবিধ সাবধানতা অবলম্বন করতেই হচ্ছে। আগামী বেশ কয়েক মাস এই নিয়মই অব্যাহত...

কেনাকাটা1 week ago

মশার জ্বালায় জেরবার? এই ১৪টি যন্ত্র রুখে দিতে পারে মশাকে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: একে করোনা তায় আবার ডেঙ্গুর প্রকোপ শুরু হয়েছে। এই সময় প্রতি বারই মশার উৎপাত খুবই বাড়ে। এই বারেও...

rakhi rakhi
কেনাকাটা2 weeks ago

লকডাউন! রাখির দারুণ এই উপহারগুলি কিন্তু বাড়ি বসেই কিনতে পারেন

সামনেই রাখি। কিন্তু লকডাউনের মধ্যে মনের মতো উপহার কেনা একটা বড়ো ঝক্কি। কিন্তু সেই সমস্যা সমাধান করতে পারে অ্যামাজন। অ্যামাজনের...

কেনাকাটা2 weeks ago

অনলাইনে পড়াশুনা চলছে? ল্যাপটপ কিনবেন? দেখে নিন ৪০ হাজার টাকার নীচে ৬টি ল্যাপটপ

ইনটেল প্রসেসর সহ কোন ল্যাপটপ আপনার অনলাইন পড়াশুনার কাজে লাগবে জেনে নিন।

কেনাকাটা2 weeks ago

করোনা-কালে ঘরে রাখতে পারেন ডিজিটাল অক্সিমিটার, এই ১০টির মধ্যে থেকে একটি বেছে নিতে পারেন

শরীরে অক্সিজেনের মাত্রা বুঝতে সাহায্য করে এই অক্সিমিটার।

কেনাকাটা3 weeks ago

লকডাউনে সামনেই রাখি, কোথা থেকে কিনবেন? অ্যামাজন দিচ্ছে দারুণ গিফট কম্বো অফার

খবরঅনলাইন ডেস্ক : সামনেই রাখি। কিন্তু লকডাউনের মধ্যে দোকানে গিয়ে রাখি, উপহার কেনা খুবই সমস্যার কথা। কিন্তু তা হলে উপায়...

laptop laptop
কেনাকাটা3 weeks ago

ল্যাপটপ কিনবেন? দেখে নিন ২৫ হাজার টাকার মধ্যে এই ৫টি ল্যাপটপ

খবরঅনলাইন ডেস্ক : কোভিভ ১৯ অতিমারির প্রকোপে বিশ্ব জুড়ে চলছে লকডাউন ও ওয়ার্ক ফ্রম হোম। অনেকেই অফিস থেকে ল্যাপটপ পেয়েছেন।...

কেনাকাটা4 weeks ago

হ্যান্ডওয়াশ কিনবেন? নামী ব্র্যান্ডগুলিতে ৩৮% ছাড় দিচ্ছে অ্যামাজন

খবরঅনলাইন ডেস্ক : করোনাভাইরাস বা কোভিড ১৯ এর সঙ্গে লড়াই এখনও জারি আছে। তাই অবশ্যই চাই মাস্ক, স্যানিটাইজার ও হ্যান্ডওয়াশ।...

নজরে

Click To Expand