খবর অনলাইন ডেস্ক: আগামী ২৬ মে ‘কালা দিবস’ পালন করবে আন্দোলনরত প্রায় ৪০টি কৃষক সংগঠনকে নিয়ে গঠিত সংযুক্ত কিষাণ মোর্চা বা এসকেএম। কেন্দ্রের নতুন তিন কৃষি আইনের বিরুদ্ধে দিল্লি সীমানায় তাদের আন্দোলন ছ’মাস ধরে চলছে। ওই দিনটিকে স্মরণ করেই বিশেষ কর্মসূচি নিয়েছে মোর্চা।

একটি ভার্চুয়ারি সংবাদিক বৈঠকে কৃষকনেতা বলবীর সিং রাজেওয়াল কৃষকদের উদ্দেশে আহ্বান জানিয়েছেন, ওই দিন নিজের বাড়ি, গাড়ি অথবা দোকানে কালো পতাকা তুলতে।

Loading videos...

তিনি বলেন, ২৬ মে, আমরা এই প্রতিবাদের ছয় মাস পূর্ণ করব এবং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী সরকার গঠনের সাত বছরও হতে চলেছে। আমরা ওই দিনটাকে কালা দিবস হিসাবে পালন করব”।

কেন্দ্রের বিতর্কিত তিন কৃষি আইনের বিরুদ্ধে “দিল্লি চলো” পদযাত্রায় অংশ নিয়ে জলকামান এবং পুলিশি বাধার মুখোমুখি হওয়ার পরে ২৬ নভেম্বর প্রচুর কৃষক দিল্লির সীমানায় পৌঁছেছিলেন। পরের দিকে সারাদেশের হাজার হাজার কৃষক জাতীয় রাজধানীর আশেপাশে টিকরি, সিংহু এবং গাজিপুর সীমানায় এই প্রতিবাদে যোগ দেন।

২৬ নভেম্বর থেকে ২৬ মে, ছ’মাস পূরণের দিনে কালা দিবস পালনের ডাক দিয়ে রাজেওয়াল বলেন, “আমরা দেশের মানুষকে তাঁদের বাড়ি, দোকান, ট্রাক ও অন্যান্য যানবাহনে কালো পতাকা লাগানোর আবেদন করছি। প্রতিবাদের একটি অঙ্গ হিসাবে আমরা প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদীর কুশপুতুলও পোড়াব”।

প্রসঙ্গত, গত বছর সংসদের বাদল অধিবেশনে ‘অত্যাবশ্যকীয় পণ্য সংশোধনী’, ‘কৃষি পণ্য লেনদেন ও বাণিজ্য উন্নয়ন’ এবং ‘কৃষিপণ্যের দাম নিশ্চিত করতে কৃষকদের সুরক্ষা ও ক্ষমতায়ন চুক্তি’ সংক্রান্ত তিনটি বিল পেশ করেছিল কেন্দ্র। সংসদের বাইরে-ভিতরে বিক্ষোভের মাঝেই সেই বিলগুলি পাশ হয়ে যায়। সেগুলিতেই এ দিন স্বাক্ষর করলেন রাষ্ট্রপতি।

বিলগুলি নিয়ে দেশের একাধিক রাজ্যের কৃষকেরা আশঙ্কা প্রকাশ করে বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন। তাঁদের অভিযোগ, এই বিলকে হাতিয়ার করেই ফসলের ন্যূনতম সহায়ক মূল্য ছেঁটে ফেলা হবে। তবে কেন্দ্রীয় কৃষিমন্ত্রী এবং প্রধানমন্ত্রীর তরফে সেই অভিযোগ নস্যাৎ করা হয়েছে।

আরও পড়তে পারেন: Covid crisis: সব রাজ্যের শিক্ষাসচিবদের নিয়ে ভার্চুয়াল বৈঠকে বসছেন কেন্দ্রীয় শিক্ষামন্ত্রী

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.