কান্নুর: পরীক্ষায় বসতে হলে খুলতে হবে অন্তর্বাস। ন্যাশনাল এলিজেবিলিটি কাম এন্ট্রান্স টেস্টে (নিট) বসার আগে এমন অদ্ভুত নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল তাঁকে। এমনই দাবি করলেন এক মহিলা পরীক্ষার্থী। শুধু তিনিই নন, আরও অনেক মহিলা পরীক্ষার্থীকে এমন উদ্ভট নির্দেশ দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে কান্নুরের পরীক্ষাকেন্দ্রটি ঘিরে।

সরকারি এবং বেসরকারি মেডিক্যাল কলেজে স্নাতক স্তরে ভর্তি হওয়ার পরীক্ষা এই নিট। সেই পরীক্ষায় বসতে গিয়ে এমন নির্দেশ শুনে সবাই হতচকিত। যে মহিলাকে অন্তর্বাস খোলার নির্দেশ দেওয়া হয় তাঁর মায়ের কথায়, “আমার মেয়ে পরীক্ষাকেন্দ্রে ঢোকার কিছুক্ষণের মধ্যেই বেরিয়ে এল। নিজের অন্তর্বাস আমাদের হাতে ধরিয়ে দিল।”

আরও এক জনকে তাঁর জিন্সের পকেট কাটার নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। তাঁর বাবার কথায়, “পরীক্ষাকেন্দ্র থেকে তিন কিলোমিটার দূরে একটা দোকানে গিয়ে দোকানটাকে খুলিয়ে আমার মেয়ের জন্য নতুন পোশাক কিনে আনলাম।”

এই পোশাকবিধি নিয়ে ছাত্রীদের মধ্যে চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়তেই সাহায্যে এগিয়ে আসেন পরীক্ষাকেন্দ্রটির আশেপাশে থাকা স্থানীয় মানুষজন। এক অভিভাবকের কথায়, “স্থানীয় এক বাসিন্দা আমাদের সাহায্যে এগিয়ে এসে ছ’টা টপ পরতে দেন। আমি এমনও শুনেছি যে যারা ফুল স্লিভ জামা পরে গিয়েছে তাদের স্লিভগুলো কেটে ছোটো করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।”

এই ঘটনার প্রতিবাদ জানায় স্থানীয় কংগ্রেস নেতৃত্ব। মহিলা কংগ্রেসের সভাপতি বিন্দু কৃষ্ণা বলেন, “কতজন মহিলা পরীক্ষার্থী ভালো ভাবে পরীক্ষা দিতে পেরেছেন সে ব্যাপারে সন্দেহ রয়েছে। এই ব্যাপারে মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়নের হস্তক্ষেপের দাবি জানাচ্ছি।”

শুধু কান্নুরই নয়, একই সমস্যার মধ্যে পড়েছিলেন চেন্নাই এবং তামিলনাড়ুর বিভিন্ন প্রান্তের পরীক্ষাকেন্দ্রের পরীক্ষার্থীরা। জুতো পরে পরীক্ষাকেন্দ্রে ঢোকা নিষেধ ছিল ছাত্রছাত্রীদের। সেখানেও ‘ফুল স্লিভ’ জামা পরে যাওয়া ছাত্রছাত্রীদের ‘স্লিভ’ কেটে ছোটো করতে হয়েছে।

দেশের ১০৪টি শহরে নিট পরীক্ষার আয়োজন করেছিল সিবিএসই। প্রায় ১১ লক্ষ পরীক্ষার্থী এই পরীক্ষার জন্য নিজেদের নাম নথিভুক্ত করেছিলেন।

 

1 মন্তব্য

  1. যদি অন্তরবাস কে কাজে লাগিয়ে ছাত্র-ছাত্রীরা টুক্লি বা নকলের মহাযোগ্গ্য করে, আর গার্ড চেক করতে গেলে শ্লীলতাহানির অভিযোগ তোলে, তো পরীক্ষাকেন্দ্র গুলি কি করবেন, দোষ না দিয়ে তা নির্দিষ্ট করে জানলে ভাল হয়।
    আমার ছাত্রজীবনে আমাদের অনেক সহপাঠী কেই আমি এভাবে পরীক্ষায় ভাল ফল করতে ও গার্ড কে মিথ্যা বদনাম দিতে,স্বচোক্ষে দেখেছি।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here