তির একটাই, দেশের প্রথম পূর্ণ সময়ের মহিলা অর্থমন্ত্রীর নিশানা কিন্তু দুই

nirmala sitharaman
কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ। ফাইল ছবি

ওয়েবডেস্ক: এক দিকে রাজস্ব একত্রীকরণ নীতি অনুসরণের কঠোর প্রয়োজনীয়তা, অন্য দিকে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধিতে সহায়ক ক্ষেত্রগুলিকে নিজের পায়ে দাঁড় করানোর প্রয়োজনীয়তা। আপাতত হাতে মাত্র একটা তির নিয়েই এ ভাবে দুই নিশানায় বাজি মারতে চাইছেন দেশের প্রথম পূর্ণ সময়ের মহিলা অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন।

অর্থমন্ত্রী সামনে এখন এমনই বহুবিধ ইস্যু রয়েছে, যেগুলি নিয়ে স্থির সিদ্ধান্ত নেওয়া দরকার যতটা সম্ভব তাড়াতাড়ি। মন্থরগতিতে এগিয়ে চলা বা কখনো পিছনের দিকে হাঁটতে শুরু করা দেশের দুর্বল অর্থনৈতিক পরিকাঠামোকে নতুন করে চাঙ্গা করে তোলাই যে তাঁর এক অন্যতম লক্ষ্য, সে কথাই তিনি জানিয়েছেন রাজ্যসভায়।

দেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির হার এতটাই বেহাল তা একটা পরিসংখ্যানেই স্পষ্ট। গত বছর এপ্রিল-জুন ত্রৈমাসিকে দেশের জিডিপি ৮ শতাংশ বৃদ্ধি পাওয়ার থেকেই ওই হার ক্রমশ কমে আসছে এবং এ বছর জানুয়ারি-মার্চ ত্রৈমাসিকে তা পাঁচ বছরের সর্বনিম্ন ৫.৮ শতাংশে ঠেকেছে।

এই অবস্থা থেকে উত্তরণে অর্থমন্ত্রী জোর দিচ্ছেন কৃষি ক্ষেত্রের উন্নয়নে। অন্য দিকে তাঁর প্রস্তাবিত বাজেট পরিকল্পনায় থাকছে বিনিয়োগ এবং বেকারত্ব নিয়েও বৃহত্তরও চিন্তাভাবনা। অর্থমন্ত্রী মঙ্গলবার জানান, “নতুন সরকারের আমলে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে প্রধানমন্ত্রী কিষাণ সম্মান নিধি যোজনার আওতায় দেশের সমস্ত কৃষককে বছরে ৬০০০ টাকার আয় সহায়তা দেওয়া হবে”।

অন্য দিকে বেসরকারি ক্ষেত্রগুলিতে কর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরি করে দিয়ে বেকারত্ব ঘোচানোর ইতিবাচক পদক্ষেপ নিতে পারে সরকার। এ বিষয়ে অবশ্য সরকার ইতিমধ্যেই দুটি মন্ত্রী-পর্যায়ের কমিটি গঠন করেছে। এ বারের বাজেটে এই দুই সমস্যা কাটিয়ে ওঠার রূপরেখা পেশ হতে পারে।

সব মিলিয়ে দেশের মন্থর অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধিতে নতুন করে প্রাণসঞ্চার এবং ক্ষেত্রগুলিকে আর্থিক ভাবে সক্ষম করে তোলার মতো একাধিক লক্ষ্য রয়েছে সীতারমনের। যদিও হাতে তাঁর তিরের সংখ্যা একটাই। স্বাভাবিক ভাবেই আগামী ৫ জুলাইয়ে তাঁর প্রথম বাজেটের দিকে তাকিয়ে গোটা দেশ!

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন