কৃষকদের ও ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের আরও খানিকটা স্বস্তি এনে দিল কেন্দ্রের সোমবারের বেশ কিছু ঘোষণা। এ দিন অর্থমন্ত্রক ঘোষণা করে, কৃষক ও ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা বাতিল হয়ে যাওয়া ৫০০ টাকার নোট ব্যবহার করতে পারবেন। ও-ই নোট দিয়েই তাঁরা কাজের জন্য প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম ও জিনিসপত্র কিনতে পারবেন।

রবিশস্য চাষের কথা মাথায় রেখে অর্থমন্ত্রক এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। সরকারি তরফে জানানো হয়, উৎপাদনের প্রমাণপত্র দেখিয়ে বাতিল হওয়া ৫০০ টাকা ব্যবহার করা যাবে। ও-ই টাকা ব্যবহার করে কেন্দ্র ও রাজ্য কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অফ এগ্রিক্যালচারাল রিসার্চ (আইসিএআর), রাজ্য ও কেন্দ্র সরকারের তালিকাভুক্ত দোকান বা সংস্থা, জাতীয় ও রাজ্য বীজ সরবরাহ নিগম থেকে বীজ কেনা যাবে।

এ দিন রিজার্ভ ব্যাঙ্কের তরফ থেকেও বেশ কিছু ঘোষণা করা হয়েছে। বলা হয়, সংস্থাগুলির ওভারড্রাফট ও ক্যাশ ক্রেডিট অ্যাকাউন্ট থেকে প্রতি সপ্তাহে ৫০ হাজার টাকা করে তোলা যাবে। কারেন্ট অ্যাকাউন্ট যাদের আছে তারাও সপ্তাহে ৫০ হাজার টাকা করে তুলতে পারবে। ক্যাশ ক্রেডিট অ্যাকাউন্ট থেকেও টাকা তোলার ক্ষেত্রে বেশ কিছু সুবিধে দেওয়া হয়েছে। তবে এ ক্ষেত্রে কোনও সংস্থার এই সব ক’টি অ্যাকাউন্টের মধ্যে যেটি গত তিন মাস ধরে নিয়মিত ব্যবহার করা হচ্ছে, কেবল সেই অ্যাকাউন্ট থেকেই সপ্তাহে ৫০ হাজার টাকা তোলা যাবে।

কিন্তু টাকা তোলার এই ঊর্ধ্বসীমা ব্যক্তিগত অ্যাকাউন্টের ক্ষেত্রে কার্যকর নয়।

এর আগে গত সপ্তাহে ৫০০ ও ১০০০ টাকার নোট বাতিলের পর কৃষকদের সুবিধের কথা মাথায় রেখে কেন্দ্রীয় সরকারের তরফ থেকে বলা হয়েছিল, কেওয়াইসি জমা দেওয়া আছে এমন অ্যাকাউন্ট থেকে কৃষকরা প্রতি সপ্তাহে ২৫ হাজার টাকা করে তুলতে পারবেন। এ ছাড়াও তাঁদের আরও কিছু সুযোগ সুবিধেও দেওয়া হয়েছিল। এমনকি কৃষি ঋণের কিস্তির টাকা জমা দেওয়ার শেষ তারিখও ১৫ দিন পিছিয়ে দেওয়া হয়েছিল। কৃষিজাত দ্রব্য বিপণন সংস্থার তালিকাভুক্ত শিল্পগুলো সপ্তাহে ৫০ হাজার টাকা করে তুলতে পারবে বলে জানানো হয়েছিল।

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন