সেহোর (মধ্যপ্রদেশ): বলদকে দিয়ে জমি চাষ করানোর ক্ষমতা নেই, তাই নিজের দুই মেয়েকে দিয়ে লাঙল টানালেন সেহোরের বসন্তপুর পাংরি গ্রামের এক চাষি। বাবাকে নিয়ে দুই মেয়ে জমিতে লাঙল টানছে, এই ছবি দিয়ে সংবাদটি টুইট করেছে সংবাদ সংস্থা এএনআই।

সেহোরের চাষি সর্দার কহলা এএনআইকে বলেছেন, ভুট্টা ফলানোর জন্য জমি চষা দরকার। কিন্তু বলদ কেনার মতো টাকা নেই। টাকার অভাবে মেয়েরা ক্লাস এইটের পর পড়া ছেড়ে দিয়েছে। তাদের দিয়ে কাজ করাচ্ছি।

টাকার অভাবে কহলার দুই মেয়ে ১৪ বছরের রাধিকা এবং ১১ বছরের কুন্তি পড়াশোনা ছেড়ে দিয়েছে।

এই খবর পেয়ে জেলা জনসংযোগ অফিসার (ডিপিআরও) আশিস শর্মা বলেছেন, প্রশাসন গোটা ব্যাপারটি খুঁটিয়ে দেখছে। তিনি বলেন, “এ ধরনের কাজে ছেলেমেয়েদের না লাগানোর জন্য কৃষকদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। চাষিদের সাহায্য করার জন্য নানা সরকারি প্রকল্প রয়েছে। কী ধরনের সাহায্য তাঁকে দেওয়া যায়, তা খতিয়ে দেখছে প্রশাসন।”

কৃষি ক্ষেত্রে চরম সংকট চলছে মধ্যপ্রদেশে। গত দু’ মাসে এই রাজ্যে ২৫ জন কৃষক আত্মহত্যা করেছেন। ঋণ মকুব করা এবং আরও অন্যান্য সুবিধার দাবিতে রাজ্যের কৃষকরা আন্দোলন করছেন। গত মাসে মন্দসৌরে সেই আন্দোলন হিংসাত্মক হয়ে ওঠে। পুলিশের গুলিতে ৫ জন মারা যান।

ছবি: সৌজন্যে টুইটার

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন