ওয়েবডেস্ক: স্টারলাইট বিরোধী আন্দোলনে নির্বিচারে গুলি চালনায় ৯ জন প্রতিবাদীর মৃত্যু হল। তামিলনাড়ুর থদুকুড়ি (পূর্বনাম তুতিকোরিন)-তে এই আন্দোলন শুরু হয়েছিল তিন মাস আগে। মঙ্গল ১০০তম দিনে আন্দোলনকারী কপার স্টারলাইট কারখানার বন্ধের দাবিতে জেলা কালেক্টরেটের অফিসের সামনে ধর্নায় বসার পরিকল্পনা নিয়েছিলেন।

জেলা শাসকরে কার্যালয়ে ঢুকতে গেলে প্রথমেই আন্দোলনকারীদের বাধা দেয় পুলিশ। কিন্তু প্রায় ১৮টি গ্রাম থেকে অংশ নেওয়া অসংখ্য মানুষ জনসমুদ্রের মতোই সেই বাধাকে উপেক্ষা করে ভিতরে ঢুকতে চায়। পুলিশ প্রথমে তাঁদের উপর লাঠিচার্জ করে। এতে আন্দোলনকারীরা ছত্রভঙ্গ হওয়ার পরিবর্তে আরও রুখে দাঁড়ায়। তখন পুলিশ সেই নিরস্ত্র জনতার উপর গুলি চালায়। জেলা কালেক্টরেটের দফতরের সামনেই গুলির আঘাতে এক জনের মৃত্যু হয়। বাকিদের হাসপাতালে নিয়ে গেলে আট জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গিয়েছে।

tuticorin2

এই ঘটনা আগুনের ফুলকির মতো ছড়িয়ে পড়তেই শহরের কয়েক হাজার মানুষ রাস্তায় নেমে পড়ে। পুলিশের গাড়ি ভাঙচুর করা হয়, জ্বালিয়ে দেওয়া হয় জেলা কালেক্টরেটের দফতর, পাশাপাশি স্টারলাইট কারখানার কোয়ার্টারগুলিতেও অগ্নি সংযোগ করে উত্তেজিত জনতা। শহরের প্রতিটি প্রান্তে সংঘর্ষ বাঁধে পুলিশের সঙ্গে জনতার। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে দাঙ্গা নিয়ন্ত্রণকারী স্ট্রাইকিং ফোর্স নামানো হলেও কোনো কাজ হয়নি।

জানা গিয়েছে, শহরের একাধিক ভবন এবং যানবাহনে আগুন ধরিয়ে দেন বিক্ষোভকারীরা। যে কারণে সারা শহর কালো ধোঁয়ায় ঢাকা পড়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গেলে  মাদুরাই, রামনাথপুরম, থেনি, দিদিদিগুলের জেলা পুলিশকে তুতিকোরিনে ঢেকে পাঠানো হয়।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here