নয়াদিল্লি: ১৯৮৪ সালে শিখবিরোধী দাঙ্গায় জড়িত থাকায় অভিযোগে একজনকে ফাঁসির সাজা দিল দিল্লি একটি আদালত। এই মামলায় এই প্রথম কাউকে ফাঁসির সাজা শোনাল কোনো আদালত।

হরদেব সিং এবং অবতার সিং নামক দুই ব্যক্তিকে খুনের অভিযোগে যশপাল সিং নামক একটি পরিবহণ ব্যবসায়ীকে এই সাজা শুনিয়েছেন অতিরিক্ত বিচারক অজয় পাণ্ডে। এ ছাড়াও নরেশ শেহরাওয়াত নামক অবসরপ্রাপ্ত এক ডাককর্মীকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

আদালতের এই নির্দেশের পরে মধ্য পঞ্চাশের ওই দুই ব্যক্তিকে গ্রেফতার করে জেলে পাঠানো হয়েছে।

আরও পড়ুন নির্বিঘ্নেই শেষ হল ছত্তীসগঢ়ে চূড়ান্ত দফার ভোট

উল্লেখ্য, নিরাপত্তার কথা মাথায় রেখে তিহার জেলের ভেতরে এই সাজা শোনান বিচারক। গত বৃহস্পতিবারই অকালি দলের কয়েক জন কর্মীর হাতে নিগৃহীত হয়েছিলেন যশপাল। তার পরেই জেলের ভেতরে আদালত বসানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

২০১৫ সাল থেকে বিশেষ তদন্তকারী দল (সিট) যে শিখবিরোধী দাঙ্গা সংক্রান্ত যে আটটি মামলার পুনরায় তদন্ত শুরু করেছে, সেই মামলার পরিপ্রেক্ষিতেই এই নির্দেশ দিয়েছেন বিচারক। একটি মামলায় মূল অভিযুক্তের তালিকায় নাম রয়েছে কংগ্রেস নেতা সজ্জন কুমারের। সেই মামলার শুনানি এখনও শুরু হয়নি।

উল্লেখ্য, ১৯৮১ সালের ৩১ অক্টোবর, ইন্দিরা গান্ধীর মৃত্যুর পরেই দেশ জুড়ে শিখবিরোধী দাঙ্গা শুরু হয়।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here