তিরুঅনন্তপুরম: এ ধরনের ঘটনা বিশ্বে এই প্রথম ঘটল। পাঁচটি কোম্পানির সিইও সমুদ্রের গভীরে গিয়ে সম্মেলন করলেন। ২০ মিনিট ধরে চলল এই সম্মেলন। শপথ নিলেন সামুদ্রিক প্রাণীজগৎ রক্ষা করতে তাঁরা যথাসাধ্য করবেন।  

তিরুঅনন্তপুরম থেকে ১৫ কিলোমিটার দূরে পৃথিবীখ্যাত সৈকত কোভালাম। সেখানেই সমুদ্রতলের ৬ মিটার নীচে ওই সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। ওই সম্মেলনে যোগ দেন রাজাগোপাল আইয়ার (উদয় সমুদ্র গ্রুপ অব হোটেলস), হেমা মেনন (ইউএসটি গ্লোবাল), দীনেশ পি থাম্পি (টিসিএস), ড. শ্যাম কুমার (নিওলজিক্স) এবং রনি থমাস (অ্যাভন মবিলিটি সল্যুশনস)। কোভালামের গ্রুভ বিচ থেকে ৫০ মিটার দূরে সমুদ্র তলদেশে পাতা হয়েছিল ইউ আকারের টেবিল। সেখানেই স্কুবা ডাইভিং-এর পোশাক পরে সিইও-রা বৈঠক করেন।

সমুদ্রের প্রতি ভালোবাসার বার্তা সর্ব সাধারণের কাছে পৌঁছে দিতেই সমুদ্রতলে এই সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। বিশ্ব উষ্ণায়ন ও দূষণ থেকে সমুদ্রের প্রাণীজগৎকে রক্ষা করার ব্যাপারে জনগণকে সচেতন করাই ছিল এই সম্মেলনের উদ্দেশ্য। সমুদ্রে গভীরে আয়োজিত এই সম্মেলনের নাম দেওয়া হয়েছে ‘ওসেন লাভ’। এই সম্মেলনের সংগঠকরা জানান, এখানেই শেষ নয়। পরবর্তী পদক্ষেপ হল ‘বিচ অ্যান্ড মেরিন এনভায়রনমেন্ট প্রটেকশন ক্লাব’ গড়া। ৮ জুন বিশ্ব সমুদ্র দিবসে ওই ক্লাবের গোড়াপত্তন করা হবে। এই ক্লাবের মাধ্যমে দক্ষিণ ভারতের উপকূল অঞ্চলে যত হোটেল, রিসোর্ট আছে, তারা একটা কর্মসূচি তৈরি করবে, যাতে সৈকত ও সমুদ্র তলদেশ নিয়মিত পরিষ্কার করা হয়। এর ফলে সমুদ্রে বর্জ্য ফেলা অনেক কমবে।  

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here