allahabad killed family
এখানেই ঝুলছিল গৃহকর্তার দেহ। ছবি: টুইটার

এলাহাবাদ: সিলিং ফ্যান, ফ্রিজ, আলমারি এবং সুটকেস। একটি ঘরের ভিতর বিভিন্ন জায়গা থেকে উদ্ধার করা হল একই পরিবারের পাঁচজনের মৃতদেহ। এই ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাহাবাদে।

সোমবার বিকেলে সিলিং ফ্যান থেকে প্রথমে ঝুলতে দেখা যায় বাড়ির মালিক পঁয়ত্রিশ বছরের মনোজ কুশওয়াহাকে। তারপরে একে একে খুঁজে বের করে হয় তাঁর স্ত্রী এবং তিন কন্যার দেহ।

আরও পড়ুন যে কোনো মুহূর্তে ভেঙে পড়তে পারে বিপজ্জনক বাড়ি, খালি করতে গিয়ে বাধার মুখে পুরসভা, ঘটনাস্থলে পুলিশ

উল্লেখ্য, বেশ কয়েক দিন ধরেই পরিবারের কাউকে দেখতে পাচ্ছিলেন না পড়শিরা। ফলে সন্দেহ হতে পুলিশে খবর দেন তাঁরা। ঘটনাস্থলে পৌঁছেই দরজা ভেঙে বাড়ির ভিতরে ঢোকে পুলিশ। প্রথমেই তাদের নজর যায় সিলিং ফ্যানের দিকে যেখানে ঝুলছিল বাড়ির মালিক মনোজের মৃতদেহ। তারপর বাড়ির বিভিন্ন অংশ থেকে বেরোতে থাকে একটির পর একটি মৃতদেহ। ফ্রিজের মধ্যে ঢোকানো ছিল তাঁর স্ত্রীর দেহ। তাঁদের দুই শিশুকন্যার মৃতদেহ পাওয়া যায় একটি স্যুটকেসের মধ্যে। তাঁদের তৃতীয় কন্যার মৃতদেহ উদ্ধার করা হয় পাশের একটি ঘর থেকে।

প্রাথমিক তদন্তে এলাহাবাদ পুলিশের অনুমান, গৃহকর্তা মনোজ প্রথমে খুন করেন স্ত্রী ও তাঁর তিন শিশুকন্যাকে। তার পর সিলিং ফ্যান থেকে ঝুলে আত্মঘাতী হন নিজেও। কিন্তু কী কারণে তিনি এই কাণ্ড ঘটালেন তা নিয়ে নিশ্চিত নয় পুলিশ। ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন