নেই একাধিক পুরনো মুখ, বদলে যাচ্ছে লোকসভায় সামনের আসনে বসার সমীকরণ

0
Parliament

নয়াদিল্লি: সরকার হোক বা বিরোধী। ১৭তম লোকসভায় একাধিক পুরোনো মুখকে দেখা যাবে না। ফলে বদলে যেতে চলেছে লোকসভায় সামনের সারিতে বসার সমীকরণ।

২০১৪-এর থেকে বেশি আসন জেতার ফলে সামনের সারিতে আরও কয়েক জন সাংসদকে বসানোর সুযোগ পাচ্ছে বিজেপি। অন্য দিকে কংগ্রেস মাত্র ৫২টা আসন জেতায় তাদের পক্ষ থেকে দু’জনের বেশি সাংসদ সামনের সারিতে বসতে পারবেন না।

কিন্তু গত পাঁচ বছর ধরে যাদের সামনের সারিতে বসতে দেখা গিয়েছে, তাঁদের মধ্যে অনেকেই এ বার থাকছেন না। যাঁদের দেখা যাবে না, তাঁরা হলেন জেডিএস প্রধান এইচডি দেবগৌড়া, প্রাক্তন বিদেশমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ, লালকৃষ্ণ আডবাণী, মল্লিকার্জুন খাড়্গে। পাশাপাশি দেখা যাবে না এআইএডিএমকে নেতা এম থাম্বিদুরাইকেও।

দেবগৌড়া, খাড়্গে এবং থাম্বিদুরাই নির্বাচনে হেরে গিয়েছেন। সুষমা এ বার নির্বাচনে লড়েননি। আর বয়সের জন্য আডবাণীকে টিকিট দেয়নি বিজেপি। এই প্রসঙ্গে লোকসভার এক আধিকারিক বলেন, “প্রবীণ সাংসদ এবং বিভিন্ন দলের লোকসভার নেতাদের জন্যই সামনের সারির আসনগুলি সংরক্ষিত করা হয়। যদি পুনরায় নির্বাচিত হন, তা হলে প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রীদেরও সৌজন্যের খাতিরে সামনের সারিতে বসতে দেওয়া হয়। তবে কোন দল সামনের সারিতে বসার সুযোগ পাবে, সেটা তাদের সাংসদসংখ্যা দিয়েই বিচার করতে হবে। এ ক্ষেত্রে একটা কোটা ব্যবস্থাও কাজ করে।”

এই পাঁচটি জায়গায় যেমন নতুন মুখ আসবে, তেমনই আরও দু’টো দলও সম্ভবত তাদের দলীয় নেতাদের সামনের সারিতে বসাতে পারবে না। তারা হল বিজেডি এবং তৃণমূল। পাঁচ বছর আগে ৩৪ আসন জেতা তৃণমূল এ বার ২২-এ নেমেছে, অন্যদিকে ২০ আসন জেতা বিজেডি এ বার ১০-এ নেমেছে। ফলে অঙ্কের বিচারে তাদের সামনের সারি পাওয়ার সম্ভাবনা বেশ কম।

আরও পড়ুন শুরুতেই ধাক্কা, মোদী সরকারে থাকছে না বড়ো শরিক

বিজেপির তরফ থেকে অমিত শাহ যে সামনের সারিতে বসছেন, সে ব্যাপারে কোনো সন্দেহই নেই। পাশাপাশি রাজনাথ সিং, নিতিন গডকরী এবং সদানন্দ গৌড়া এ বার সামনের সারিতে বসতে পারেন।

লোকসভায় যে অঙ্কে এই আসন বণ্টন হয়, সেই অনুযায়ী স্পিকারের ডান দিকে প্রথম আসনটি প্রধানমন্ত্রীর জন্য সংরক্ষিত। তাঁর পাশের আসনটি যায় সব থেকে প্রবীণ মন্ত্রীর কাছে। গত পাঁচ বছর, মোদীর পাশে ওই আসনে বসতেন রাজনাথ সিং, এ বারও অবশ্য সেটাই হবে। ইউপিএ জমানায় ওই দু’নম্বর জায়গাটি ছিল প্রণব মুখোপাধ্যায়ের জন্য।

বিজেপির শরিকদের মধ্যে লোক জনশক্তি পার্টির রামবিলাস পাসওয়ান, শিবসেনার অরবিন্দ সবন্ত এবং শিরোমণি অকালি দলের হরসিমরত কৌর সামনের সারিতে বসতে পারেন।

বিরোধীদের ক্ষেত্রে গত লোকসভায় সামনের সারির প্রথম আসন অর্থাৎ স্পিকারের বাঁ দিক থেকে প্রথম আসনে বসতেন ইউপিএ চেয়ারপার্সন সনিয়া গান্ধী। দ্বিতীয় আসনটি ছিল লোকসভায় কংগ্রেসের দলনেতা মল্লিকার্জুন খাড়্গের। এ বার হয়তো খাড়্গের অনুপস্থিতিতে সনিয়ার পাশে বসতে পারেন ওয়েনাড়ের সাংসদ রাহুল গান্ধী। আগের লোকসভায় দ্বিতীয় সারিতে বসতেন তিনি।

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন