ছোটোখাটো কর ফাঁকিতে কোনো ব্যবস্থা নেবে না সরকার: নির্মলা সীতারমন

Nirmala Sitharaman
ফাইল ছবি

ওয়েবডেস্ক: দেশের অর্থনৈতিক মন্দা থেকে মোড় ঘোরাতে একাধিক পদক্ষেপের কথা জানালেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন। শনিবার নয়াদিল্লিতে সাংবাদিক বৈঠকে তিনি কেন্দ্রের অর্থনৈতিক সংস্কারের একাধিক পরিকল্পনার কথা তুলে ধরেন।

নির্মলা এ দিন বলেন, অর্থনীতি ফের চাঙ্গা হওয়ার সমস্ত লক্ষণ দেখা যাচ্ছে। মুদ্রাস্ফীতির হার ৪ শতাংশের নীচে। ব্যাঙ্কের সংস্কারের পর কর ব্যবস্থার সংস্কার, রফতানি ক্ষেত্রে ঋণের পরিমাণ বাড়ানো ও সরলীকরণে কার্যকরী ব্যবস্থা নিচ্ছে কেন্দ্র। এক্সপোর্ট ক্রেডিট ইন্সুরেন্স স্কিমকে আরও বাড়িয়ে তুলে রফতানির ক্ষেত্রে ব্যাঙ্ক ঋণের ওপর পণ্যের বিমার পরিমাণও বাড়ানো হবে। 

অর্থমন্ত্রী বলেন, কর ব্যবস্থার সংস্কারের ক্ষেত্রে আগামীতে আর কোনো করদাতাকে সশরীরে আয়কর দফতরের দফতরে যাওয়ার ব্যাপার থাকছে না। যাবতীয় কাজ হবে অনলাইনেই। বিজয়া দশমীর দিন থেকেই আয়কর এবং জিএসটি জমার যাবতীয় প্রক্রিয়া সম্পন্ন হবে অনলাইনে। ছোটোখাটো কর ফাঁকিতে কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হবে না। অর্থব্যবস্থাকে চাঙ্গা করতেই এই নীতি গ্রহণ করা হচ্ছে।

আবাসন শিল্প এবং রফতানি ক্ষেত্রকে উৎসাহ দিতে সরকার সব সময়ই সচেষ্ট দাবি করে নির্মলা জানান, বস্ত্রশিল্পের রফতানিতে বর্তমানে চালু মার্কেনডাইজ এক্সপোর্টস ফ্রম ইন্ডিয়া স্কিম বা এমইআইএস-এ নীতি আগামী ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত কার্যকরী থাকবে। রফতানিকৃত পণ্যের উপর শুল্কের হার হ্রাস করা হবে। এমনকী রফতানির ক্ষেত্রে ব্যাঙ্ক ঋণে বিমার পরিমাণও বাড়বে। আগামী ১ জানুয়ারি, ২০২০ থেকে বস্ত্রশিল্পে রফতানির ক্ষেত্রে নতুন প্রকল্প চালু হবে।

কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী জানান, এমএসএমই-র জন্য ব্যাঙ্কের ঋণ পাওয়ার ক্ষেত্রে নিয়মকানুন সরলীকরণ করা হচ্ছে। শুধু সরকারি ব্যাঙ্ক নয়, বেসরকারি ব্যাঙ্কগুলিকেও সরকারি নীতি অনুসরণ করতে হবে। এ ব্যাপারে আগামী বৃহস্পতিবার বেসরকারি ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বৈঠক আয়োজিত হবে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*


This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.