basak couple
বসাক দম্পতি। নিজস্ব চিত্র।

নিজস্ব প্রতিনিধি, গুয়াহাটি : বারবার প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছে নিখুঁত ও শুদ্ধ জাতীয় নাগরিকপঞ্জি প্ৰকাশ করা হবে। কিন্তু তা যে হয়নি তা দিনের আলোর মতো স্পষ্ট৷ ইতিমধ্যে সুপ্ৰিম কোৰ্টের বিশিষ্ট আইনজীবী উপমন্যু হাজরিকা এনআরসি প্ৰকাশিত তালিকায় হাজার হাজার ভুলভ্ৰান্তির অভিযোগ করে আরজিআইয়ের কাছে অভিযোগ দায়ের করেছেন৷

এমনই এক ভুলের নজির মধ্য অসমের রেলশহরের স্থায়ী বাসিন্দা রুহিদাস বসাক এবং তাঁর স্ত্ৰী রত্না বসাক। এঁদের দু’ জনকেই বিদেশি নাগরিক হিসাবে দেখানো হয়েছে। এর প্ৰতিবাদে বসাকদম্পতি এক কোটি টাকা করে মোট দু’ কোটি টাকার মানহানির মামলা দায়ের করেছেন৷ রুহিদাস রেলে চাকরি করেন৷ রুহিদাস এবং রত্না, দু’ জনেরই বাপের বাড়ি লামডিঙে। এঁদের উভয়েরই পরিবার ১৯৫১ সাল থেকে লামডিঙের স্থায়ী বাসিন্দা ও শহরের সন্মাননীয় নাগরিক৷

এঁদের অভিযোগ, ২০১৭ সালে বিদেশি হিসাবে নোটিশ পাওয়ার পর তাঁদের যথেষ্ট সন্মানহানি হয়েছে৷ বিদেশি ট্ৰাইব্যুনালে মামলা দায়ের করার ফলে আৰ্থিক ক্ষতি ছাড়াও তাঁদের মানসিক ভাবে বিপৰ্যস্ত হতে হয়েছে৷ ইতিমধ্যে বিদেশি ট্ৰাইব্যুনাল তাঁদের ভারতীয় নাগরিক হিসেবে ঘোষণা করেছে৷ ভারতীয় হওয়ার পরেও বিদেশির তকমা লাগিয়ে তাঁদের মানসিক ও সামাজিক ভাবে হেনস্থা করা হচ্ছে। তারই প্ৰতিবাদে তাঁরা এক কোটি টাকা করে মোট দু’ কোটি টাকার মানহানির মামলা দায়ের করেছেন নগাঁও আদালতে৷ তাঁদের কেন অন্যায় ভাবে হয়রানি করা হচ্ছে, সে প্রশ্ন তুলে প্ৰধানমন্ত্ৰী ও কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্ৰমন্ত্ৰীর কাছে তাঁরা চিঠিও পাঠিয়েছেন৷

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন